বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Last Cheetahs of India: ১৯৪৭ সালের রাতে ৩ চিতা শিকার! ভারতের ‘গর্ব’ লুপ্ত হয়েছিল মহারাজার ফূর্তিতে
করিয়ার (ছত্তিশগড়) মহারাজা রামানুজ প্রতাপ সিং দেওয়ের শিকার করা চিতা (ফাইল ছবি, সৌজন্যে টুইটার @ParveenKaswan) এবং আজ মধ্যপ্রদেশের জাতীয় উদ্যানে চিতা। (ছবি সৌজন্যে পিটিআই)

Last Cheetahs of India: ১৯৪৭ সালের রাতে ৩ চিতা শিকার! ভারতের ‘গর্ব’ লুপ্ত হয়েছিল মহারাজার ফূর্তিতে

  • Last Cheetahs of India: চিতার একাধিক ভিডিয়ো শেয়ার করেছেন ইন্ডিয়ান ফরেস্ট সার্ভিস অফিসার পারভিন কাসওয়ান। ব্রিটিশ এবং মহারাজাদের আমলে কীভাবে চিতা পোষ্য হিসেবে রাখা হত, তাও তুলে ধরেন। একটি ভিডিয়োয় দেখা গিয়েছে, গরুর গাড়িতে চাপিয়ে চিতা নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

শেষ তিনটি চিতা শিকার করেছিলেন। সাত দশক ধরে করিয়ার (ছত্তিশগড়) মহারাজা রামানুজ প্রতাপ সিং দেওয়ের সেই ফূর্তির মাশুল গুনতে হয়েছে ভারতকে। অবশেষে ভারতে আবারও পা পড়ল চিতার। শনিবার মধ্যপ্রদেশের কুনহো জাতীয় উদ্যানে আটটি চিতা ছেড়ে দেওয়া হল।

ভারতে চিতা শিকারের ইতিবৃত্ত

১৯৫২ সালে ভারতে চিতাকে বিলুপ্ত বলে ঘোষণা করেছিল জওহরলাল নেহরুর সরকার। ইন্ডিয়ান ফরেস্ট সার্ভিস অফিসার পারভিন কাসওয়ান জানিয়েছেন, মহারাজা এবং ব্রিটিশদের আমলে চিতাকে পোষ্য হিসেবে রাখা হত। ব্যবহার করা হত শিকারের দলে। সেভাবেই ধীরে-ধীরে ভারত থেকে বিলুপ্ত হতে শুরু করেছিল চিতা। সরকারিভাবে ১৯৪৭ সালে ভারতের শেষ চিতা শিকার করা হয়েছিল। শেষ তিনটি চিতা শিকার করেছিলেন করিয়ার (ছত্তিশগড়) মহারাজা রামানুজ প্রতাপ সিং দেও। তিনটি পূর্ণবয়স্ক চিতার উচ্চতা মোটামুটি এক ছিল। তাদের রাতে শিকার করা হয়েছিল।

আরও পড়ুন: PM Modi Releases 8 Cheetahs: ৭ দশক পর মোদীর হাত ধরে দেশের মাটিতে চিতা, দেখুন ঐতিহাসিক মুহূর্তের ভিডিয়ো

ইন্ডিয়ান ফরেস্ট সার্ভিস অফিসার কাসওয়ান একাধিক ভিডিয়ো এবং ছবি শেয়ার করেন। ব্রিটিশ এবং মহারাজাদের আমলে কীভাবে চিতা পোষ্য হিসেবে রাখা হত, তা তুলে ধরেন। একটি ভিডিয়ো শেয়ার করে তিনি দাবি করেছেন, ১৯৩৯ সালে সেই ভিডিয়ো তোলা হয়েছিল। তাতে দেখা গিয়েছে, গরুর গাড়িতে চাপিয়ে চিতা নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। গলায় বকলস বাঁধা আছে। সেগুলি শিকারের জন্য ব্যবহার করা হচ্ছিল বলে জানিয়েছেন তিনি।

একটি আঁকা ছবি শেয়ার করে ওই আইএফএস অফিসার দাবি করেছেন, ম্যারিন নর্থের বইয়ে ১৮৭৮ সালের সেই ছবি ছিল। আলওয়ার বা রাজস্থানের কোনও জায়গায় অন্যান্য পোষ্যের মতো চিতার গলায় চেন বেঁধে রাখা হত। ১৮৭৫-৭৬ সালেরও একটি ছবি শেয়ার করেছেন তিনি। দাবি করেছেন, প্রিন্স অফ ওয়েলসের ভারত সফরের আর্কাইভের ছবি থেকে স্পষ্ট যে কীভাবে চিতাকে শিকারের জন্য ব্যবহার করা হত। সেইসঙ্গে আরও একটি ছবি টুইটারে পোস্ট করেছেন। তাতে দেখা গিয়েছে, মাটিতে তিনটি চিতার দেহ পড়ে আছে। হাতে বন্দুক নিয়ে দাঁড়িয়ে আছেন এক ব্যক্তি। সেটাই ভারতের শেষ তিন চিতার শিকারের ছবি বলে জানিয়েছেন ওই আইএফএস অফিসার।

আরও পড়ুন: Project Cheetah: ভারতে ফিরছে চিতা, কিন্তু জানেন কি এটি কীভাবে এত জোরে ছুটতে পারে

সাত দশক পরে ভারতে চিতা

অবশেষে সাত দশক পরে শনিবার ভারতে ফের চিতার পা পড়ল। মধ্য়প্রদেশের কুনো জাতীয় উদ্যানে আটটি চিতা ছাড়েন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। আফ্রিকার নামিবিয়া থেকে চিতাগুলিকে ভারতে উড়িয়ে আনা হয়। সকাল ৭ টা ৫৫ মিনিটে গোয়ালিয়রে বোয়িং ৭৪৭-৪০০ বিমান অবতরণ করে। আটটি চিতাকে ভারতীয় বায়ুসেনার চপারে জাতীয় উদ্যানে নিয়ে আসা হয়। দরজার হাতল ঘুরিয়ে জাতীয় উদ্যানে চিতা ছেড়ে দেন মোদী। আটটির মধ্যে পাঁচটি চিতা নারী। তাদের বয়স ২ থেকে ৫-র মধ্যে। পুরুষ তিনটি চিতার বয়স ৪.৫ থেকে ৫.৫-র মধ্য়ে।

বন্ধ করুন