বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ‘চেষ্টা করুন, ছিঁচকাঁদুনে বাচ্চা হবেন না’, অক্সিজেনের আকাল নিয়ে দিল্লিকে তোপ কেন্দ্রের
মায়াপুরীতে অক্সিজেন সিলিন্ডার হাতে এক করোনা আক্রান্তের আত্মীয়। (ছবি সৌজন্য পিটিআই)
মায়াপুরীতে অক্সিজেন সিলিন্ডার হাতে এক করোনা আক্রান্তের আত্মীয়। (ছবি সৌজন্য পিটিআই)

‘চেষ্টা করুন, ছিঁচকাঁদুনে বাচ্চা হবেন না’, অক্সিজেনের আকাল নিয়ে দিল্লিকে তোপ কেন্দ্রের

  • অক্সিজেনের আকাল নিয়ে দিল্লি হাইকোর্টে রীতিমতো তরজায় জড়াল কেন্দ্র এবং দিল্লি সরকার।

অক্সিজেনের আকাল নিয়ে দিল্লি হাইকোর্টে রীতিমতো তরজায় জড়াল কেন্দ্র এবং দিল্লি সরকার। অক্সিজেন সরবরাহ নিয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে দিল্লি সরকারের অভিযোগের প্রত্যুত্তরে পালটা অরবিন্দ কেজরিওয়ালের সরকারের উপর দায় চাপাল সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতা। বললেন, ‘চেষ্টা করুন। ছিঁচকাঁদুনে বাচ্চা হবেন না।’

করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসার জন্য অক্সিজেনের আকাল নিয়ে মহারাজা আগ্রাসেন হাসপাতালের আবেদনের শুনানিতে দিল্লি সরকারের তরফে দাবি করা হয়, রাজধানীতে ৪৮০ মেট্রিক টন অক্সিজেন দেওয়া না হলে পুরো ব্যবস্থা ‘ভেঙে’ পড়বে। অথচ শুক্রবার মাত্র ২৯৭ মেট্রিক টন অক্সিজেন মিলেছে। তার ফলে গত ২৪ ঘণ্টায় যা হয়েছে, সেরকম ‘বিপর্যয়কর’ কিছু হবে বলেও আশঙ্কা প্রকাশ করা হয়। সেই পরিস্থিতিতে কত অক্সিজেন বরাদ্দ করা হবে এবং কবে পাঠানো হবে, তা বিস্তারিতভাবে হলফনামা আকারে যাতে কেন্দ্র পেশ করে, সেই দাবি জানানো হয়। দিল্লি সরকারের আইনজীবী রাহুল মেহরা অভিযোগ করেন, অক্সিজেন দেওয়ার ক্ষেত্রে নির্দেশিকা মেনে চলছে না কেন্দ্র।

তারইমধ্যে শনিবারের শুনানিতে অক্সিজেনের আকাল নিয়ে আম আদমি পার্টির (আপ) সরকারের ঘাড়েই দোষ চাপায় কেন্দ্র। সলিসিটর জেনারেল বলেন, ‘রাজ্যগুলি ট্যাঙ্কার থেকে শুরু করে সবকিছুর বন্দোবস্ত করছে। কিন্তু দিল্লিতে সবকিছু আমাদের উপর ছেড়ে দেওয়া হচ্ছে। দিল্লির আধিকারিকজের নিজেদের দায়িত্ব পালন করতে হবে।’ অক্সিজেন দেওয়ার ক্ষেত্রে নির্দেশিকা মেনে চলার অভিযোগের প্রেক্ষিতে সলিসিটর জেনারেল বলেন, ‘আমি নিজের দায়িত্ব জানি। আমি অনেক কিছু জানি। কিন্তু কিছু বলছি না। চেষ্টা করুন। ছিঁচকাঁদুনে বাচ্চা হবেন না।’ সঙ্গে যোগ করেন, ‘আমরা নির্বাচনে লড়াই করছি না।’

বন্ধ করুন