কলকাতার বাইরে একটি ইটভাটায় চলছে কাজ (ছবি সৌজন্য এএফপি)
কলকাতার বাইরে একটি ইটভাটায় চলছে কাজ (ছবি সৌজন্য এএফপি)

Lockdown 2.0: আজ থেকে কিছু কাজে ছাড়, কিছু ক্ষেত্রে জারি বিধিনিষেধ, দেখে সম্পূর্ণ তালিকা

মধ্যরাত থেকেই লকডাউন শিথিল করা হয়েছে। কোন কোন কাজে ছাড় দেওয়া হয়েছে ও কোন কোন কাজে এখনও বিধিনিষেধ জারি আছে, তা দেখে নিন।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ঘোষণা মতো রবিবার মধ্যরাত থেকে দেশের কয়েকটি প্রান্তে লকডাউন শিথিল হয়েছে। সেই এলাকাগুলিতে কয়েকটি ক্ষেত্রকে শর্তসাপেক্ষে কাজের ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে। লক্ষ্য একটাই, ঝিমুনি কাটিয়ে অর্থনীতিতে গতি আনা।

আরও পড়ুন : Lockdown 2.0: জনধন অ্যাকাউন্টের টাকা তোলার লাইনে দেড় ঘণ্টা, মৃত্যু বৃদ্ধার

তবে করোনাভাইরাসের হটস্পট জেলা ও সংক্রামক এলাকাগুলিতে লকডাউন শিথিলের পথে হাঁটেনি কেন্দ্র। একইসঙ্গে দিল্লি, তেলাঙ্গানা ও পঞ্জাব জানিয়ে দিয়েছে, সারা রাজ্যেই কঠোরভাবে লকডাউন পালন করা হবে।

সোমবার থেকে কী কী ছাড় দেওয়া হয়েছে, তা দেখে নিন -

১) ব্যক্তিগত গাড়ি : শুধুমাত্র জরুরি ক্ষেত্রে ব্যক্তিগত গাড়িকে ছাড়পত্র দেওয়া হবে। যেমন চিকিৎসকের কাছে যাওয়ার জন্য ব্যক্তিগত গাড়ি ব্যবহারের অনুমতি দিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। তবে সেক্ষেত্রে নির্দিষ্ট নিয়ম মেনে চলতে হবে। চার চাকা গাড়ির ক্ষেত্রে সামনে শুধু চালক থাকবেন। পিছনের সিটে দু'জনের বেশি থাকতে পারবেন না। দু'চাকার গাড়িতে মাত্র একজন যেতে পারবেন।

আরও পড়ুন : New Tax Rate vs Old Tax Rate with deductions- স্বনিযুক্তদের উপার্জনের ওপর কোন নিয়মে TDS কাটবে?

২) অফিস : অফিসে বিভিন্ন শিফটের বন্দোবস্ত করতে হবে। লাঞ্চব্রেকের ক্ষেত্রেও একই নিয়ম মেনে চলতে হবে। অফিসে কাজের সময় ন্যূনতম ১০ ফুটের দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। পাশাপাশি, মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক। বাড়িতে তৈরি মাস্ক ব্যবহার করা যাবে।

এছাড়াও অফিসের লিফটে চারজনের বেশি ওঠা যাবে না। কর্মীদের পিক অ্যান্ড ড্রপের জন্য বড় গাড়ির বন্দোবস্ত করতে হবে। যাতে সামাজিক দূরত্ব বজায় থাকে। পাশাপাশি, অফিসে থার্মাল স্ক্যানার রাখারও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

৩) তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থার ক্ষেত্রে ৫০ শতাংশ কর্মী অফিসে কাজ করতে পারবেন। অন্য ক্ষেত্রে ৩৩ শতাংশ কর্মীকে অফিসে ডাকার অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

৪) বাড়ি থেকে কাজ (Work From Home) : যে কর্মীদের বয়স ৬৫ বছর বা তার বেশি এবং যাঁদের পাঁচ বছর বা তার ছোটো বাচ্চা আছে, তাঁরা বাড়ি থেকে কাজ করতে পারবেন।

আরও পড়ুন : Income Tax Filing: আয়কর রিটার্নের সময়সীমা বৃদ্ধির পর সহজ-সুগম ফর্মে সংশোধন কেন্দ্রের

৫) ই-কমার্স : অ্যামাজন, ফ্লিপকার্ট-সহ ই-কমার্স সংস্থাগুলি শুধুমাত্র অত্যাবশ্যকীয় পণ্যের ডেলিভারি দিতে পারবে।

৬) মুদিখানা দোকান : মুদিখানা দোকান খোলা থাকবে। তবে সামাজিক দূরত্বের বিধি চলতে হবে।

৭) পরিষেবা : যাঁরা বাড়ির বিদ্যুতের কাজ করেন, যাঁরা বাড়ির বিভিন্ন সারাইয়ের কাজ করেন, মোটর মেকানিক, ছুতোর, ক্যুরিয়ার পরিষেবার সঙ্গে যাঁরা যুক্ত, তাঁদের লকডাউন থেকে ছাড় দেওয়া হয়েছে। তাঁরা সোমবার থেকে কাজ শুরু করতে পারবেন। কেবল ও ডিটিএইচ কর্মীদের সারাইয়ের কাজ করার অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

৮) জরুরি পরিষেবা : ব্যাঙ্ক, এটিএম, ডাকঘর, পেট্রোল ও সিএনজি পাম্প, হাসপাতাল, ল্যাবরেটরি, চিকিৎসা সামগ্রীর দোকান খোলা থাকবে। অ্য়াম্বুলেন্স, চিকিৎসক ও বিজ্ঞানীদের এক রাজ্য থেকে অন্য রাজ্যে যেতে দেওয়া হবে।

৯) কৃষিকাজ জনিত কাজ : কৃষিকাজ ও হর্টিকালচারের অনুমতি দেওয়া হয়েছে। খাদ্যজাত দ্রব্যের প্যাকেজিং এবংং মার্কেটিং করা যাবে। তবে যে সংস্থাগুলি এই ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত, তাদের সামাজিক দূরত্বের বিধি মেনে চলতে হবে। ইটভাটাও চালু থাকবে।

আরও পড়ুন : Lockdown 2.0: ভিনরাজ্যে বাড়ি ফেরা যাবে না, তবে পরিযায়ী শ্রমিকদের কাজের অনুমতি দিল কেন্দ্র

১০) নির্মাণ কাজ : সোমবার থেকে নির্মাণ কাজ করার অনুমতি দিয়েছে কেন্দ্র। তবে আবাসন শিল্পের সঙ্গে জড়িত সংস্থাগুলি ভিনরাজ্য থেকে শ্রমিক আনতে পারবে না। ১০০ দিনের কাজ করা যাবে। সেক্ষেত্রে মাস্ক বাধ্যতামূলক।

১১) পণ্য পরিবহন : সোমবার থেকে সবধরনের পণ্য পরিবহন শুরু করা যাবে। ট্রেন ও বিমানেও পণ্য পরিবহন চালু থাকবে।

১২) আয়ূস-সহ সমস্ত স্বাস্থ্য পরিষেবা চালু থাকছে।

১৩) অভ্যন্তরীণ ও সমুদ্রের মৎস্যশিল্প পুরোপুরি চালু থাকবে। চা, কফি, রাবার গাছ রোপণ করা যাবে। তবে ৫০ শতাংশ কর্মী থাকতে হবে। প্রাণীসম্পদ সংক্রান্ত কাজকর্ম চালু থাকবে।

কোন কোন কাজগুলির উপর নিষেধাজ্ঞা জারি আছে?

১) সমস্ত ঘরোয়া ও আন্তর্জাতিক উড়ান পরিষেবা বন্ধ থাকবে। শুধুমাত্র নিরাপত্তা সংক্রান্ত ও বিশেষ বিশেষ ক্ষেত্রে ছাড় থাকছে। একইসঙ্গে নিরাপত্তা সংক্রান্ত কারণ ছাড়া সব যাত্রীবাহী ট্রেন বাতিল থাকছে। বন্ধ মেট্রো ও গণ পরিবহনের জন্য বাস পরিষেবা।

২) আন্তঃজেলা ও আন্তঃরাজ্য যাতাযাত করা যাবে না। শুধুমাত্র স্বাস্থ্যজনিত কারণ ও যে ক্ষেত্রগুলিকে নির্দেশিকায় ছাড় দেওয়া হয়েছে, সেক্ষেত্রেই যাতাযাত করা যাবে।

৩) ট্যাক্সি (অটো রিক্সা ও সাইকেল রিক্সা) এবং ক্যাব পরিষেবা বন্ধ থাকবে।

৪) যেগুলি লকডাউনের আওতার বাইরে রাখা হয়েছে, সেগুলি ছাড়া সমস্ত শিল্প ও বাণিজ্যিক কাজকর্ম বন্ধ থাকছে।

আরও পড়ুন : Lockdown 2.0: রেল-উড়ান পরিষেবা ৪ মে শুরুর সম্ভাবনা কার্যত নেই, মন্ত্রিগোষ্ঠীর ভাবনায় ১৫ মে

৫) সমস্ত শিক্ষা, প্রশিক্ষণ, কোচিং প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকছে।

৬) সমস্ত সিনেমা হল, মল, শপিং কমপ্লেক্স, জিম, স্পোর্টস কমপ্লেক্স, সুইমিং পুল, বিনোদন পার্ক, থিয়েটার, বার, অডিটোরিয়াম, অ্যাসেম্বলি হল ও সমগোত্রীয় জায়গাগুলি বন্ধ থাকবে।

৭) সমস্ত সামাজিক বা রাজনৈতিক বা খেলাধূলা বা বিনোদন বা শিক্ষা বা সাংস্কৃতিক বা ধর্মীয়-সহ অনান্য অনুষ্ঠানে কড়া নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। ধর্মীয় জমায়েতেও নিষেধাজ্ঞা চাপানো হয়েছে।

৮) শেষকৃত্যে ২০ জনের বেশি জমায়েত করায় নিষেধাজ্ঞা রয়েছে।

৯) আতিথেয়তা পরিষেবা (হসপিট্যালিটি সার্ভিস) বন্ধ থাকবে। যেগুলিকে নির্দিষ্টভাবে ছাড় দেওয়া হয়েছে, সেগুলি শুধু সচল থাকবে।

বন্ধ করুন