বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Lockdown 3.0 rules: জেলবন্দিদের সঙ্গে পরিবারের সাক্ষাতে ‘না’, বদলে ভিডিয়ো কলের নির্দেশ কেন্দ্রের
আপাতত বন্ধ এই নিয়ম। বহিরাগতদের সরাসরি সাক্ষাত নিষিদ্ধ ঘোষণা করল কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক।
আপাতত বন্ধ এই নিয়ম। বহিরাগতদের সরাসরি সাক্ষাত নিষিদ্ধ ঘোষণা করল কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক।

Lockdown 3.0 rules: জেলবন্দিদের সঙ্গে পরিবারের সাক্ষাতে ‘না’, বদলে ভিডিয়ো কলের নির্দেশ কেন্দ্রের

  • কয়েদিদের সঙ্গে বহিরাগতদের সরাসরি সাক্ষাত নিষিদ্ধ ঘোষণা করল কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। সংক্রমণের উপসর্গ দেখা দিলে জেলকর্মীদের প্রবেশ নিষিদ্ধ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। 

দেশের ভিড়ঠাসা কারাগারগুলিতে করোনা সংক্রমণে লাগাম দিতে কয়েদিদের সঙ্গে বহিরাগতদের সরাসরি সাক্ষাত নিষিদ্ধ ঘোষণা করল কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। 

রবিবার এই মর্মে কেন্দ্রীয় মন্ত্রক প্রকাশিত এক বিজ্ঞপ্তিতে সুস্পষ্ট নির্দেশ জারি করেছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র সচিব রাজীব ভল্লা। বিবৃতিতে বলা হয়েছে, এখন থেকে বন্দিদের সঙ্গে তাঁদের পরিজনদের সরাসরি সাক্ষাৎ বন্ধ থাকবে। পরিবর্তে ভিডিয়ো কল ও ফোন কলের মাধ্যমে নির্দিষ্ট সময়ে তাঁরা পরস্পরের সঙ্গে কথা বলতে পারবেন।

এ ছাড়া বন্দিদের সঙ্ঘবদ্ধ কাজকর্মও আপাতত নিয়ন্ত্রণ করার নির্দেশ দিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। জেল কর্তৃপক্ষকে বলা হয়েছে এই বিষয়ে নজর রাখতে এবং নেহাত প্রয়োজনে সমবেত কর্মসূচি পালন করতে হলে বিধিসম্মত সামাজিক দূরত্ব মেনে চলতে হবে।

পাশাপাশি, রাজ্যের মুখ্য সচিব ও জেলপ্রধানদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে, বিদেশ ভ্রমণের অভিজ্ঞতা থাকা  এবং করোনা আক্রান্ত ব্যক্তির সংস্পর্শে আসা বন্দিদের পৃথক ভবনে রাখার ব্যবস্থা করতে হবে। 

 

আরও পড়ুন:  করোনা সতর্কতার জেরে দমদম জেলে তাণ্ডব বন্দিদের, পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে জখম একাধিক

এ ছাড়া, যে সমস্ত জেলকর্মীদের মধ্যে সংক্রমণের উপসর্গ দেখা দিয়েছে, তাঁদের জেল চত্বরে প্রবেশ নিষিদ্ধ করার নির্দেশ দিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। 

সম্প্রতি মধ্য প্রদেশের ইন্দোর জেলে প্রায় দুই ডজন করোনা আক্রান্তের খবর পাওয়ার পরে কারানীতি সম্পর্কিত নতুন নির্দেশিকা প্রকাশের সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। 

জেল কর্তৃপক্ষের উদ্দেশে স্বরাষ্ট্র সচিব নির্দেশ দিয়েছেন, বিভিন্ন মামলায় অভিযুক্ত ও আটক ব্যক্তিদের সম্পর্কে সবিস্তারে তথ্য সংগ্রহ করতে হবে। বিদেশ ভ্রমণ ও করোনা সংক্রমিত এলাকায় ঘোরাফেরার অভিজ্ঞতা ছাড়াও গত ১৩৪ দিনে তাঁদের স্বাসকষ্ট, জ্বর ও কাশির উপসর্গ দেখা দিয়েছে কি না, সে বিষয়ে খোঁজ নিতে হবে বলেও তিনি জানিয়েছেন। 

যে সমস্ত কয়েদি প্রতিদিন জেলের বাইরে যাচ্ছেন, তাঁদের জন্য কর্তৃপক্ষকে নিত্য ডায়েরি রাখার নির্দেশও দিয়েছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক।  

বন্ধ করুন