বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ফের লকডাউনের মতোই কড়া নিয়ম জারি হতে পারে, তোড়জোড় শুরু উদ্ধবের
ফাইল ছবি (এডিটেড) : পিটিআই (PTI)
ফাইল ছবি (এডিটেড) : পিটিআই (PTI)

ফের লকডাউনের মতোই কড়া নিয়ম জারি হতে পারে, তোড়জোড় শুরু উদ্ধবের

মানুষ নিজে থেকে সরকারের গাইডলাইনকে আমল দিচ্ছে না। ফলে লকডাউনের মতো কড়া রাস্তায় হাঁটা ছাড়া প্রশাসনের কোনও উপায় থাকছে না বলে জানালেন তিনি।

ফের দ্রুত হারে করোনা সংক্রমণ বাড়ছে দেশজুড়ে। ভারতে করোনা সংক্রমণের এপিসেন্টার হয়ে দাঁড়িয়েছে মহারাষ্ট্র। এমন পরিস্থিতিতে আমজনতা সতর্ক না হলে লকডাউনের মতোই কড়া নিয়ম জারি হবে, হুঁশিয়ারি দিলেন মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে।

রবিবার মহারাষ্ট্রের একাধিক উচ্চপদস্থ আধিকারিক ও প্রশাসনিক কর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেন উদ্ধব। সেখানে রাজ্যের করোনা পরিস্থিতির নিয়ন্ত্রণ পদ্ধতি নিয়ে আলোচনা হয়। স্বাস্থ্য আধিকারিক ও কোভিড টাস্ক ফোর্সের সদস্যদের এদিন আরও কড়া নজরদারির জন্য প্রস্তুত থাকতে বলেন উদ্ধব।

সংবাদসংস্থা এএনআই সূত্রে খবর, সাধারণ মানুষ করোনা সতর্কতায় ঢিলেমি দিলে ফের লকডাউনের মতো কড়া নিষেধাজ্ঞার পথেই হাঁটবে রাজ্য। রবিবার এমনটাই জানিয়েছেন মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী।

এত দ্রুত হারে করোনা বাড়ছে কেন? এর জন্য আমজনতার অসচেতনতাকেই দায়ী করেন উদ্ধব। মানুষ নিজে থেকে সরকারের গাইডলাইনকে আমল দিচ্ছে না। ফলে লকডাউনের মতো কড়া রাস্তায় হাঁটা ছাড়া প্রশাসনের কোনও উপায় থাকছে না বলে জানালেন তিনি।

প্রসঙ্গত, রবিবার রাত ৮টা থেকেই আবারও নাইটকার্ফু মহারাষ্ট্রে। আপাতত প্রতিদিন রাত ৮টা থেকে সকাল ৭টা পর্যন্ত জারি হচ্ছে নাইট কার্ফু।

চলতি মাসের শুরুতেই যদিও লকডাউনের ভাবনা চলছে বলে জানিয়েছিলেন উদ্ধব। করোনার বাড়বাড়ন্তের পরিস্থিতিতে রাজ্যবাসী সতর্কতা না মানলে লকডাউনই একমাত্র পথ বলে মত প্রকাশ করেন তিনি। তবে, সেই সময়ে তিনি এটাও বলেন যে, 'রাজ্যবাসীর উপর আমার আস্থা রয়েছে। সকলে করোনা সতর্কতা, সামাজিক দূরত্ব এমনিতেই মেনে চলবেন বলে আমার বিশ্বাস।' মাসের শেষে যে সেই আস্থা অনেকটাই ভঙ্গ হয়েছে, তা বলাই যায়।

সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে স্বাস্থ্য আধিকারিক ও কোভিড টাস্ক ফোর্সকে। ফাইল ছবি : পিটিআই
সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে স্বাস্থ্য আধিকারিক ও কোভিড টাস্ক ফোর্সকে। ফাইল ছবি : পিটিআই (PTI)

মহারাষ্ট্রে মাস্ক না পরে বের হলে জরিমানার পরিমাণও বৃদ্ধি করা হয়েছে। এতদিন মাস্ক না পরলে ২০০ টাকা জরিমানা নেওয়া হত। এবার সেটা এক ধাক্কায় ৫০০ টাকা করে দেওয়া হয়েছে। শুধু তাই নয়, প্রকাশ্যে থুতু ফেললে হবে ১,০০০ টাকা জরিমানা।

উত্সবের মরসুমেও জারি নিষেধাজ্ঞা। দোল, শবে বরাত, ইস্টারে বেশি ভিড়-জমায়েত নিষিদ্ধ করা হয়েছে। উত্সব বাড়িতে, পরিবারের সঙ্গে পালন করতে বলা হয়েছে।

 

বন্ধ করুন