বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > আরও এক সপ্তাহ বাড়ল দিল্লির লকডাউনের মেয়াদ, ঘোষণা কোজরিওয়ালের
অরবিন্দ কেজরিওয়াল (ছবি সৌজন্যে এএনআই)
অরবিন্দ কেজরিওয়াল (ছবি সৌজন্যে এএনআই)

আরও এক সপ্তাহ বাড়ল দিল্লির লকডাউনের মেয়াদ, ঘোষণা কোজরিওয়ালের

  • দিল্লিতে লকডাউনের মেয়াদ আরও এক সপ্তাহ বাড়ানোর ঘোষণা করলেন কেজরিওয়াল।

গত সপ্তাহে দিল্লি জুড়ে ৬ দিনের লকডাউনের ঘোষণা করেছিলেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। সেই লকডাউনের মেয়াদ আরও এক সপ্তাহ বাড়ানোর ঘোষণা করলেন কেজরিওয়াল। এদিন তিনি জানান, আগামীকাল শেষ হচ্ছে না রাজধানীর লকডাউন। বরং এই লকডাউ আপাতত লাগু থাকবে ৩ এপ্রিল ভোর ৫টা পর্যন্ত।

করোনার দ্বিতীয় ঢেউ আছড়ে পড়েছে গোটা দেশে। যার জেরে অক্সিজেনের ঘাটতি দেখা দিয়েছে। সবথেকে ভয়ঙ্কর অবস্থা দিল্লিতে। অক্সিজেনের অভাবে প্রচুর রোগীর মৃত্য়ু হয়েছে বলে অনেকেই অভিযোগ তুলছেন। এই পরিস্থিতিতে অক্সিজেন সরবরাহ নজরে রাখতে নয়া পোর্টাল লঞ্চ করল দিল্লি সরকার।

এদিন মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল এই পোর্টাল সম্পর্কে বলেন, 'আমরা একটি পোর্টাল চালু করেছি। এটি প্রতি দুই ঘণ্টা অন্তর অন্তর অক্সিজেন আপডেট করা হবে। এতে উত্পাদনকারী, সরবরাহকারী এবং হসপাতালগুলির অক্সিজেন ম্যানেজমেন্ট কার্যকরী হবে। কেন্দ্র এবং রাজ্য একসঙ্গে কাজ করছে।' 

বিগত বেশ কিছু দিন ধরেই দিল্লির ছোট-বড় সব রকম হাসপাতালই অক্সিজেনের অভাব নিয়ে দিল্লি হাইকোর্টে আবেদন জানিয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টার মধ্যে অক্সিজেন না পেয়ে অন্ততপক্ষে একটি হাসপাতালে করোনাসংক্রামিত রোগীদের মৃত্যু হয়েছে। 

উল্লেখ্য, দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৩,৪৯,৬৯১ জন। গত ৪ দিন ধরে দৈনিক সংক্রমণ ৩ লাখের উপরে রয়েছে। এই আবহে দিল্লিতে হুহু করে বেড়েছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। সঙ্গে বেড়েছে মৃতের সংখ্যাও। রাজধানীতে গত ৬ দিন লকডাউন থাকা সত্ত্বেও করোনায় মৃতের সংখ্যা কমেনি। গত ২৪ ঘণ্টায় দিল্লিতে করোনায় মৃত্যু হয়েছে ৩৫৭ জনের। আক্রান্ত হয়েছে ২৪১০৩। পরিস্থিতি বাগে আনতেই লকডাউনের মেয়াদ আরও এক সপ্তাহ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিল কেজরিওয়াল সরকার। 

গত সপ্তাহে দিল্লি জুড়ে ৬ দিনের লকডাউনের ঘোষণা করেছিলেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। সেই লকডাউনের মেয়াদ আরও এক সপ্তাহ বাড়ানোর ঘোষণা করলেন কেজরিওয়াল। এদিন তিনি জানান, আগামীকাল শেষ হচ্ছে না রাজধানীর লকডাউন। বরং এই লকডাউ আপাতত লাগু থাকবে ৩ এপ্রিল ভোর ৫টা পর্যন্ত।

করোনার দ্বিতীয় ঢেউ আছড়ে পড়েছে গোটা দেশে। যার জেরে অক্সিজেনের ঘাটতি দেখা দিয়েছে। সবথেকে ভয়ঙ্কর অবস্থা দিল্লিতে। অক্সিজেনের অভাবে প্রচুর রোগীর মৃত্য়ু হয়েছে বলে অনেকেই অভিযোগ তুলছেন। এই পরিস্থিতিতে অক্সিজেন সরবরাহ নজরে রাখতে নয়া পোর্টাল লঞ্চ করল দিল্লি সরকার।

এদিন মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল এই পোর্টাল সম্পর্কে বলেন, 'আমরা একটি পোর্টাল চালু করেছি। এটি প্রতি দুই ঘণ্টা অন্তর অন্তর অক্সিজেন আপডেট করা হবে। এতে উত্পাদনকারী, সরবরাহকারী এবং হসপাতালগুলির অক্সিজেন ম্যানেজমেন্ট কার্যকরী হবে। কেন্দ্র এবং রাজ্য একসঙ্গে কাজ করছে।' 

বিগত বেশ কিছু দিন ধরেই দিল্লির ছোট-বড় সব রকম হাসপাতালই অক্সিজেনের অভাব নিয়ে দিল্লি হাইকোর্টে আবেদন জানিয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টার মধ্যে অক্সিজেন না পেয়ে অন্ততপক্ষে একটি হাসপাতালে করোনাসংক্রামিত রোগীদের মৃত্যু হয়েছে। 

উল্লেখ্য, দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৩,৪৯,৬৯১ জন। গত ৪ দিন ধরে দৈনিক সংক্রমণ ৩ লাখের উপরে রয়েছে। এই আবহে দিল্লিতে হুহু করে বেড়েছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। সঙ্গে বেড়েছে মৃতের সংখ্যাও। রাজধানীতে গত ৬ দিন লকডাউন থাকা সত্ত্বেও করোনায় মৃতের সংখ্যা কমেনি। গত ২৪ ঘণ্টায় দিল্লিতে করোনায় মৃত্যু হয়েছে ৩৫৭ জনের। আক্রান্ত হয়েছে ২৪১০৩। পরিস্থিতি বাগে আনতেই লকডাউনের মেয়াদ আরও এক সপ্তাহ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিল কেজরিওয়াল সরকার। 

|#+|

 

বন্ধ করুন