বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Lucknow Building Collapse: উদ্ধার ৯, এখনও ধ্বংসস্তূপে আটকে ৬-৭, ভূমিকম্পের জেরেই লখনউয়ে ভেঙে পড়ল ফ্ল্যাট?

Lucknow Building Collapse: উদ্ধার ৯, এখনও ধ্বংসস্তূপে আটকে ৬-৭, ভূমিকম্পের জেরেই লখনউয়ে ভেঙে পড়ল ফ্ল্যাট?

ভেঙে পড়েছে ফ্ল্যাট, আর্তি আত্মীয়ের। (ছবি সৌজন্যে পিটিআই)

Lucknow Building Collapse: লখনউয়ের ওয়াজির হাসান রোডের চারতলা আবাসন ভেঙে পড়ে। যে আবাসনে ১২ টির মতো ফ্ল্যাট এবং দুটি পেন্টহাউস ছিল। কী কারণে ফ্ল্যাট ভেঙে পড়েছে, তা এখনও পর্যন্ত স্পষ্ট নয়।

ভূমিকম্পের কয়েক ঘণ্টার পরই লখনউয়ে ভেঙে পড়ল চারতলা ফ্ল্যাট। ধ্বংসস্তূপের তলা থেকে ইতিমধ্যে নয়জনকে উদ্ধার করা হয়েছে। আরও ছয়-সাতজন আটকে থাকতে পারেন বলে আশঙ্কাপ্রকাশ করেছেন উদ্ধারকারীরা। যে ঘটনায় ইতিমধ্যে প্রাথমিক রিপোর্ট তলব করেছে উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ।

মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাতটা নাগাদ লখনউয়ের ওয়াজির হাসান রোডের চারতলা আবাসন ভেঙে পড়ে। যে আবাসনে ১২ টির মতো ফ্ল্যাট এবং দুটি পেন্টহাউস ছিল। দ্রুত শুরু হয় উদ্ধারকাজ। রাতের দিকে লখনউয়ের জেলাশাসক সূর্যপাল গাঙ্গওয়ার জানিয়েছেন, ইতিমধ্যে নয়জনকে উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধারকাজ চালাচ্ছে জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী (এনডিআরএফ) এবং রাজ্য বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী (এসডিআরএফ)। উদ্ধারকাজের জন্য ভারতীয় সেনাকেও ডাকা হয়েছে।

কী কারণে ফ্ল্যাট ভেঙে পড়েছে, তা এখনও পর্যন্ত স্পষ্ট নয়। প্রাথমিকভাবে একাধিক মহলের তরফে দাবি করা হয় যে ফ্ল্যাটের পার্কিংলটে টুকটাক নির্মাণ সংক্রান্ত কাজ চলছিল। বিষয়টি নিয়ে উত্তরপ্রদেশের ডিজিপি ডিএস চৌহান বলেন, 'প্রাথমিকভাবে মনে হচ্ছে, এটা প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের কারণে হয়েছে। সম্ভবত ভূমিকম্পের (৫.৮ রিখটার স্কেলে মাত্রা, নেপালে উৎসস্থল, দিল্লি, উত্তরপ্রদেশ-সহ উত্তর ভারতের একাংশ কম্পন অনুভূত হয়) ধাক্কায় এবং গোমতী নদী কাছেই অবস্থিত হওয়ার কারণে ওই ঘটনা ঘটতে পারে।'

আরও পড়ুন: Earthquake in Nepal, tremor in Delhi: ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল নেপাল, বেশি দূরে নয় যোশীমঠ, জোরালো কম্পন দিল্লি-উত্তরপ্রদেশে

উত্তরপ্রদেশের ডিজিপি আরও বলেন, ‘তবে হ্যাঁ, ফ্ল্যাটে কিছু নির্মাণ কাজ চলছিল। কিন্তু সেটা মালুমি কাজ ছিল। নির্মাণের জন্য বিশেষ কোনও মেশিন ছিল না। তাই নির্মাণকাজের কারণে এরকম ঘটনা ঘটেনি।’ সেইসঙ্গে তিনি বলেন, ‘তবে পুরোটাই তদন্তসাপেক্ষ। তদন্তের জন্য আমরা বিশেষজ্ঞদের আসতে বলেছি। শীঘ্রই ঘটনাস্থলে আসবেন ইঞ্জিনিয়াররা এবং বাড়ি ভেঙে পড়ার কারণ খতিয়ে দেখবেন।’

তারইমধ্যে ঘটনায় প্রাথমিক রিপোর্ট তলব করেছেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী। রাতের দিকে মুখ্যমন্ত্রীর কার্যালয়ের তরফে একটি বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, আহতদের দ্রুত হাসপাতালে ভরতির জন্য জেলা প্রশাসনের কর্তাদের নির্দেশ দিয়েছেন যোগী। উদ্ধারকাজে তদারকির জন্য জেলা প্রশাসনের শীর্ষকর্তা এবং পুলিশের শীর্ষকর্তাদের ঘটনাস্থলে থাকারও নির্দেশ দিয়েছেন। সেইসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীর সচিব সঞ্জয় প্রসাদ জানিয়েছেন, আপাতত গোরখপুরে আছেন যোদী। সেখান থেকেই উদ্ধারকাজের উপর নজর রাখছেন।

(এই খবরটি আপনি পড়তে পারেন HT App থেকেও। এবার HT App বাংলায়। HT App ডাউনলোড করার লিঙ্ক https://htipad.onelink.me/277p/p7me4aup)

বন্ধ করুন