বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > পরিবার রাজি, তবু আইন দর্শিয়ে হিন্দু-মুসলিম বিয়ে রুখে দিল আদিত্যনাথের পুলিশ
আইন লঙ্ঘনের ভয় দেখিয়ে পরিবারের সম্মতি থাকা সত্ত্বেও হিন্দু মহিলার সঙ্গে মুসলিম পুরুষের বিয়ে রুখে দিল লখনউ পুলিশ।
আইন লঙ্ঘনের ভয় দেখিয়ে পরিবারের সম্মতি থাকা সত্ত্বেও হিন্দু মহিলার সঙ্গে মুসলিম পুরুষের বিয়ে রুখে দিল লখনউ পুলিশ।

পরিবার রাজি, তবু আইন দর্শিয়ে হিন্দু-মুসলিম বিয়ে রুখে দিল আদিত্যনাথের পুলিশ

  • হবু দম্পতি ও তাঁদের আত্মীয়দের আগে বিশেষ বিবাহ আইনে আইনি প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ করারও পরামর্শ দিলেন উত্তর প্রদেশের আইনরক্ষকরা।

আইন লঙ্ঘনের ভয় দেখিয়ে হিন্দু মহিলার সঙ্গে মুসলিম পুরুষের বিয়ে রুখে দিল লখনউ পুলিশ। সেই সঙ্গে হবু দম্পতি ও তাঁদের আত্মীয়দের আগে বিশেষ বিবাহ আইনে আইনি প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ করারও পরামর্শ দিলেন যোগী আদিত্যনাথের রাজ্যের আইনরক্ষকরা।

দুই পরিবারের অভিযোগ, শহরের পারা এলাকায় তাঁদের থানায় ডেকে বলপূর্বক ও অসৎ ধর্মান্তকরণ রুখতে নতুন জারি হওয়া অর্ডিন্যান্স সম্পর্কে জানায় পুলিশ।

পুলিশের কথা বিশ্বাস করে বিয়ে পিছিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন দুই পরিবারের সদস্যরা। ঠিক হয়, ভিনধর্মের বিয়ের জন্য স্পেশ্যাল ম্যারেজ অ্যাক্ট অনুসারে সমস্ত আইনি প্রক্রিয়া মেনেই বিয়ের অনুষ্ঠান সম্পন্ন করা হবে। 

লখনউ পুলিশের (দক্ষিণ) অতিরিক্ত ডেপুটি কমিশনার সুরেশ চন্দ্র রাওয়াত জানিয়েছেন, ‘দুদা কলোনিতে আন্তঃধর্ম বিয়ের খবর পেয়ে হানা দেয় পুলিশবাহিনী। ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখা যায় যে, দুই পরিবারের সম্মতিতেই বিয়ে হচ্ছে। তখন পুলিশ পরিবারের সদস্যদের বলে প্রয়োজনীয় আইনি প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ করার পরে অনুষ্ঠান করতে।’

এডিসিপি জানিয়েছেন, ধর্মান্তরণ না করে স্পেশ্যাল ম্যারেজ অ্যাক্টে বিয়ে করতে পারেন ওই যুগল। কিন্তু কেউ নিজের ধর্ম পরিবর্তন করতে চাইলে নতুন অর্ডিন্যান্স অনুসারে কমপক্ষে ৬০ দিন আগে সংশ্লিষ্ট জেলাশাসক বা অতিরিক্ত জেলাশাসকের কাছে ঘোষণাপত্র জমা দিতে হবে। তার জেরে ধর্মান্তকরণের উদ্দেশ্য জানতে অনুসন্ধান করা হবে। কোনও ত্রুটি ধরা পড়লে ধর্মান্তকরণ সঙ্গে সঙ্গে বাতিল হয়ে যাবে। 

পুলিশকর্তা জানিয়েছেন, ধর্মান্তরিত হওয়ার পরেও সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিকে ছয় মাসের মধ্যে ফের নির্দিষ্ট ফর্মে আবেদন করতে হবে। এই প্রক্রিয়া অমান্য করলে ৬ মাস থেকে ৩ বছর পর্যন্ত কারাদণ্ড হতে পারে ও তার সঙ্গে ১০,০০০ টাকা জরিমানা ধার্য করা হবে।

বন্ধ করুন