বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > বন্ধ হয়ে গেল দিল্লির মাদাম তুসো মিউজিয়াম! জেনে নিন কারণ..
বন্ধ হয়ে গেল দিল্লির মাদাম তুসো মিউজিয়াম
বন্ধ হয়ে গেল দিল্লির মাদাম তুসো মিউজিয়াম

বন্ধ হয়ে গেল দিল্লির মাদাম তুসো মিউজিয়াম! জেনে নিন কারণ..

  • তিন বছর ধরে বিরাট আর্থিক ক্ষতির শিকার, দিল্লি শাখার ঝাঁপ বন্ধ করল মাদাম তুসো।

লন্ডনের বিখ্যাত মাদাম তুসো জাদুঘরের ২৩তম শাখাটি গড়ে উঠেছিল দিল্লিতে। বছর তিনেক আগেই পথচলা শুরু হয়েছিল এই জাদুঘরের। মার্চে লকডাউন শুরুর সময় থেকে সাময়িকভাবে তালাবন্ধ হয়ে যায় এই বলিউড তারকাদের মোমের মূর্তিতে ঠেসে সাজানো এই জাদুঘর। এবার জানা যাচ্ছে কনট প্লেসের রিগ্যাল বিল্ডিংয়ে অবস্থিত এই জাদুঘরের ঝাঁপ বন্ধ করে দিচ্ছে মার্লিন এন্টারটেনমেন্ট ইন্ডিয়া, যাঁদের মালিকাধীন এই জাদুঘর।

মার্লিন এন্টারটেনমেন্ট ইন্ডিয়ার জেনারেল ম্যানেজার অনশুল জৈন জানান, ‘হ্যাঁ, আমরা এটা নিশ্চিতভাবে জানাচ্ছি কনট প্লেসে মাদাম তুসো দিল্লি জাদুঘর বন্ধ হচ্ছে পুরোপুরিভাবে’। 

২০১৭ সালের নভেম্বরে পথচলা শুরু হয় মাদাম তুসো দিল্লির। সেই সময় এই শাখায় ১০ মিলিয়ন ইউরোর বিনিয়োগের কথা ঘোষণা করেছিল কোম্পানি। তবে দর্শকরা সেইভাবে এই মিউজিয়ামের প্রতি আগ্রহ দেখায়নি, ৭৬০ টাকার টিকিট মূল্যটাও অনেকের কাছেই বাড়াবাড়ি বলে মনে হয়েছিল। যার জেরে দিনদিন ক্রমেই ক্ষতির বোঝা বইতে হচ্ছিল কোম্পানিকে। 

সানি লিওন,শাহরুখ খান থেকে, বিরাট কোহলি, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী দেশের বিখ্যাত ব্যক্তিত্বদের প্রায় ১২০টি মোমোর মূর্তি স্থাপিত হয়েছিল এই মিউজিয়ামে। সেগুলি ইতিমধ্যেই অন্যত্র স্থানান্তরিত করা হয়েছে। মহাত্মা গান্ধী, ভগত সিং, সর্দার প্যাটেলের মতো স্বাধীনতা সংগ্রামীদের মূর্তিও এখানে রাখা হয়েছিল। 

কনট প্লেসের এই আউটলেট ডিজাইন করবার সময় ৬০: ৪০ ধাঁচে মূর্তিগুলি নির্বাচন করা হয়েছিল, এখানে ৬০ শতাংশ স্থানীয় বিশিষ্ট ব্যক্তিত্বদের মূর্তি রাখবার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়, এবং বাকি ৪০ শতাংশ আন্তর্জাতিক গ্যালারি গুলি থেকে নির্বাচিত করা হয়। ভারতীয় বাজারের কথা মাথায় রেখেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল। তবুও শেষরক্ষা হল না। 

ভবিষ্যতে নয়ডা বা গুঁরগাঁওয়ের হাই-এন্ড মলে মাদাম তুসোর জাদুঘরটি স্থানান্তরিত করবার পরিকল্পনা রয়েছে তাঁদের। এখন জায়গা নির্বাচনের কাজ চলছে। করোনা পরিস্থিতি কাটলে মানুষ হয়ত ফের একবার জাদুঘরমুখী হবেন আশাবাদী আনশুল জৈন। 

বন্ধ করুন