বাড়ি > ঘরে বাইরে > সুপ্রিম নির্দেশে আগামিকাল আস্থাভোট মধ্যপ্রদেশে, ভাগ্যপরীক্ষা কমলনাথের
আত্মবিশ্বাসী কমলনাথ (MINT_PRINT)
আত্মবিশ্বাসী কমলনাথ (MINT_PRINT)

সুপ্রিম নির্দেশে আগামিকাল আস্থাভোট মধ্যপ্রদেশে, ভাগ্যপরীক্ষা কমলনাথের

বিকেল পাঁচটায় আস্থা ভোট করতে হবে।

শুক্রবার পাঁচটার সময় সংখ্যাগরিষ্ঠতা প্রমাণ করতে হবে মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী কমলনাথকে। কংগ্রেসের বিদ্রোহী বিধায়করা যদি আস্থা ভোটে অংশগ্রহণ করতে চান, তাহলে তাদের নিরাপত্তা দিতে হবে বলেও জানিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট।

আগামিকাল পাঁচটার সময় আস্থাভোট হবে। বিধায়করা হাত দেখিয়ে নিজেদের মতামত জানাবেন ও পুরো কার্যপ্রক্রিয়া ভিডিও রেকর্ড করা হবে বলে সুপ্রিম কোর্ট জানিয়েছে। স

২২ জন কংগ্রেস বিধায়ক বর্তমানে ইস্তফাপত্র পাঠিয়েছেন। এদের মধ্যে ছয়জনের ইস্তফা গৃহীত হয়েছে। আরও ১৬ জন বিধায়কের ইস্তফা যদি গৃহীত হয়, তাহলে সংখ্যাগরিষ্ঠতা হারাবে কমলনাথের সরকার। কংগ্রেস আস্থাভোট করতে চাইছে না, এই অভিযোগে সুপ্রিম কোর্টে যায় বিজেপি। তারই পরিপ্রেক্ষিতে এই নির্দেশ দিল শীর্ষ আদালত।

কংগ্রেসের দাবি ছিল যে তাদের ২২ বিধায়ককে জোর করে কর্নাটকে আটকে রাখা হয়েছে।সুপ্রিম কোর্ট বলে যে বিধায়কদের জোর করে আটকে রাখা হয়েছে কিনা, সেটি স্পিকার ভিডিওর মাধ্যমে যাচাই করতে পারেন। প্রয়োজনে এটি দেখার জন্য অবজার্ভার রাখার প্রস্তাবও দেন বিচারপতিরা। কিন্তু স্পিকার রাজি হননি। অন্যদিকে বিধায়কদের ইস্তফা নিয়ে সিদ্ধান্ত নিতে আরও দুই সপ্তাহ সময় দেওয়া উচিত বলে স্পিকারের আর্জি খারিজ করে আদালত।

অতিরিক্ত সময় দিলে হর্সট্রেডিং বাড়বে বলেই জানায় আদালত। ২৩০ আসনের বিধানসভায় দুটি আসন খালি আছে। কংগ্রেসের ১১৪ বিধায়কের মধ্যে ২২ জন ইস্তফা দিয়েছেন। তার মধ্যে ছয় জনের ইস্তফা গৃহীত হয়েছে। অন্যদিকে বিজেপির আছে ১০৭ বিধায়ক।

হিসাব বলছে, বর্তমানে সংখ্যালঘু কমলনাথ সরকার। কিন্তু আজ ও কাল বিকালের মধ্যে পরিস্থিতি বদলে যায় কিনা, সেটাই দেখার।




বন্ধ করুন