বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > 'যারা মদ খায়, তারা মিথ্যা বলে না', মুখের কথাই টিকার সার্টিফিকেট BJP শাসিত রাজ্যে
ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস
ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস

'যারা মদ খায়, তারা মিথ্যা বলে না', মুখের কথাই টিকার সার্টিফিকেট BJP শাসিত রাজ্যে

  • মদ কিনতে গেলে টিকার দু'টি ডোজ বাধ্যতামূলক করেছে বিজেপি শাসিত রাজ্যের জেলা প্রশাসন। নির্দেশিকায় 'মৌখিক সার্টিফিকেটের' কোনও উল্লেখ অবশ্য ছিল না।

বিজেপি শাসিত মধ্যপ্রদেশের খান্ডওয়া জেলায় মদ কেনার ক্ষেত্রে টিকাকরণ বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। আর এই বিষয়ে সেই রাজ্যের এক আবগারি কর্তার বক্তব্য, দোকানে গিয়ে টিকাকরণে সার্টিফিকেট দেখাতে হবে না খদ্দেরদের। শুধু মুখে বললেই চলবে যে তারা টিকার দু'টি ডোজ নিয়েছে। কারণ, সেই আবগারি কর্তার যুক্তি, যারা মদ খায়, তারা মিথ্যা কথা বলে না।

সম্প্রতি মধ্যপ্রদেশে খান্ডওয়া জেলা প্রশাসন নির্দেশিকা জারি করেছে, যারা টিকার দুই ডোজ নিয়েছে, শুধু তাদেরই মদ বিক্রি করা যাবে। তবে সেই নির্দেশিকায় 'মৌখিক সার্টিফিকেটের' কোনও উল্লেখ ছিল না। তবে সেই বিষয়ে খান্ডওয়া জেলার আবগারি কর্তা আরপি কিরারের বক্তব্য, 'যারা মদ খায়, তারা মিথ্যা কথা বলে না।' তিনি বলেন, 'টিকা দেওয়ার কোনও প্রমাণের প্রয়োজন নেই...শুধুমাত্র মৌখিকভাবে সম্পূর্ণ টিকা নেওয়ার আশ্বাসই যথেষ্ট...যারা সুরা পান করেন তারা মিথ্যা বলেন না...'

এদিকে এই সংক্রান্ত সরকারি নির্দেশিকায় লেখা, 'খান্ডওয়ার জেলা প্রশাসনের ডাকা বৈঠকে দেওয়া নির্দেশ অনুযায়ী, জেলায় থাকা ৫৫টি দেশী এবং ১৯টি বিদেশী মদের দোকান থেকে শুধুমাত্র তাদেরই মদ বিক্রি করা যাবে যারা ভ্যাকসিনের উভয় ডোজ পেয়েছেন। বর্তমানে জেলায় করোনভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে বিশাল টিকাকরণ অভিযান চলছে। এর অধীনে প্রতিটি নাগরিককে টিকা নিতে হবে। এর জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে যে বিনা টিকাকরণে মদ বিক্রি করা যাবে না।'

উল্লেখ্য, করোনা রোধে টিকাকরণ এক বড় হাতিয়ার। ভারতে প্রাথমিক ভাবে টিকার আকাল দেখা গেলেও বর্তমানে পর্যাপ্ত পরিমাণে টিকা মিলছে। তবে এখন মানুষের মধ্যে টিকা নেওয়া নিয়ে অনীহা দেখা দিয়েছে অনেক জায়গাতেই। এরই মাঝে গতকাল সন্ধ্যা ৭টা নাগাদ দেশে ১১৫ কোটি টিকার ডোজের মাইলফলক ছুঁয়েছে। তবে এর মাঝেও বহু স্থানে টিকাকরণ নিয়ে রয়েছে সংশয়। আর এই সংশয় দূর করতে বহু জায়গাতেই চালু হয়েছে বিভিন্ন ধরনের নিয়ম।

 

বন্ধ করুন