কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন মহারাষ্ট্রের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অনিল দেশমুখ।
কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন মহারাষ্ট্রের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অনিল দেশমুখ।

নিজামুদ্দিনের সমাবেশ অনুমোদনের জন্য দায়ী কেন্দ্র, অভিযোগ মহারাষ্ট্রের মন্ত্রীর

  • কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভালের সঙ্গে তবলিঘি প্রধান মৌলানা সাদের কী ‘গোপন কথা’ হয়েছিল?

দিল্লির নিজামুদ্দিনে তবলিঘি জামাত আয়োজিত ধর্মীয় সমাবেশের অনুমোদ দেওয়ার জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন মহারাষ্ট্রের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অনিল দেশমুখ।

মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে দেশমুখ প্রশ্ন তুলেছেন, কেন ওই সমাবেশের অনুমতি দেওয়া হয়েছিল এবং সেই বিষয়ে কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভালের সঙ্গে তবলিঘি প্রধান মৌলানা সাদের কী ‘গোপন কথা’ হয়েছিল?

শুধু তাই নয়, ডোভাল মরকজে যাওয়ার পর থকেই কেন সাদ আত্মগোপন করেছিলেন, তাই নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন মহারাষ্ট্রের মন্ত্রী। এই বিষয়ে নিরাপত্তা উপদেষ্টা এবং দিল্লির পুলিশ কমিশনার কী কারণে মৌনতা অবলম্বন করছেন, তা নিয়েও জানতে চেয়েছেন দেশমুখ।

শুধু তাই নয়, বার বার আবেদন জানানো সত্ত্বেও ৫০-৬০ জন জামাত সদস্য কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ না করায় তাঁদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানিয়েছেন অনিল দেশমুখ।

তাঁর দাবি, মহারাষ্ট্র থেকে যে ১,৪০০ জামাত সদস্য নিজামুদ্দিনের সমাবেশে অংশগ্রহণ করেছিলেন, তাঁদের মধ্যে ওই ৫০-৬০ জন ছাড়া সকলেই প্রশাসনের সঙ্গে সহযোগিতা করেছেন।

গত ১৩ ও ১৫ মার্চ দিল্লির নিজামুদ্দিনে তবলিঘি জামাত আয়োজিত সমাবেশে ২,০০০ এর বেশি সদস্য যোগ দিয়েছিলেন। তাঁদের মধ্যে ছিলেন বহু বিদেশিও।

মঙ্গলবার দেশের প্রথম রাজ্য হিসেবে এক হাজারের বেশি করোনা আক্রান্তের রেকর্ড গড়েছে মহারাষ্ট্র। উল্লেখ্য, সোমবার এনসিপি নেতা শরদ পাওয়ারও নিজামুদ্দিনের সমাবেশের অনুমোদন নিয়ে প্রশ্ন তোলেন।

বন্ধ করুন