বাড়ি > ঘরে বাইরে > জুনের শেষে লকডাউন উঠছে না মহারাষ্ট্রে, তবে নিষেধাজ্ঞায় মিলবে আরও ছাড়
বিনামূল্যে করোনা পরীক্ষা অভিযান চালাতে মুম্বইয়ের বস্তি অঞ্চলে রবিবার উপস্থিত হলেন স্বাস্থ্যকর্মীরা। ছবি: এপি। (AP)
বিনামূল্যে করোনা পরীক্ষা অভিযান চালাতে মুম্বইয়ের বস্তি অঞ্চলে রবিবার উপস্থিত হলেন স্বাস্থ্যকর্মীরা। ছবি: এপি। (AP)

জুনের শেষে লকডাউন উঠছে না মহারাষ্ট্রে, তবে নিষেধাজ্ঞায় মিলবে আরও ছাড়

  • মহারাষ্ট্রে এখনও করোনা সংক্রমণের আশঙ্কা কমার লক্ষণ নেই বলে এখনই পুরোপুরি নিষেধাজ্ঞা তুলে দেওয়ার সম্ভাবনা নেই।

মহারাষ্ট্রে ৩০ জুন লকডাউন উঠছে না, ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে। তবে রাজ্য সরকারের Mission Begin Again অভিযানে আরও কিছু ছাড় পাওয়া যাবে। 

রবিবার ক্ষমতায় আসার ৭ মাস সম্পূর্ণ করল উদ্ধব ঠাকরের নেতৃত্বাধীন সরকার। তিনি জানিয়েছেন, মহারাষ্ট্রে এখনও করোনা সংক্রমণের আশঙ্কা কমার লক্ষণ নেই বলে এখনই পুরোপুরি নিষেধাজ্ঞা তুলে দেওয়ার সম্ভাবনা নেই। তবে লকডাউন শিথিল করা মহারাষ্ট্রবাসীর উপরেই নির্ভর করছে, জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

ফেসবুকে তিনি জানিয়েছেন, ‘আমি নিশ্চিত যে রাজ্যবাসী লকডাউনের নিষেধাজ্ঞা পালন করে চলবেন, তবে তা অমান্য করা হলে আরও কড়া নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা ছাড়া আমাদের হাতে কোনও বিকল্প নেই।’

ভারতে সবচেয়ে বেশি কোভিডের প্রকোপ দেখা গিয়েছে মহারাষ্ট্রেই। আপাতত রাজ্যে মোট আক্রান্তেদর সংখ্যা ১,৫৯,১৩৩, যার মধ্যে ৭৪,০০০ রোগী শুধু মুম্বইতেই। সংক্রমণে মারা গিয়েছেন ৭,২০০ জন, যাঁদের মধ্যে ৪,২৮৪ জন মুম্বইয়ের বাসিন্দা।

দেশের বাণিজ্য রাজধানী ছাড়াও রাজ্যের নয়টি শহরকে রেড জোন চিহ্নিত করেছে স্বাস্থ্য মন্ত্রক। এই সমস্ত অঞ্চলে গণপরিবহণ পরিষেবার উপরে কড়াকড়ি জারি করা হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রীর দাবি, আগামী কয়েক সপ্তাহে মহারাষ্ট্রে সংক্রমণের পারদ আরও চড়বে। 

তবে উদ্ধব জানিয়েছেন, সেই চ্যালেঞ্জ নিতে তৈরি রয়েছে তাঁর প্রশাসন। তাঁর দাবি, ভাইরাস আক্রমণ শানানোর আগে তাকেই আক্রমণ করার পন্থা অনুসরণ করে সুফল পেয়েছে তাঁর প্রশাসন। মুম্বইয়ে এই নীততি সাফল্য এনে দেওয়ার পরে লএবার গোটা রাজ্যে তা বাস্তবায়িত করার ডাক দিয়েছে মহারাষ্ট্র সরকার। 

সোমবার থেকে করোনা পরীক্ষার ক্ষেত্রে প্লাজমা থেরাপি প্রক্রিয়া চালু করছে মহারাষ্ট্র সরকার। রাজ্যবাসীর হিতার্থে কোভিড থেকে সুস্থ হয়ে ওঠা ব্যক্তিদের এই পরীক্ষার জন্য এগিয়ে আসার আবেদন জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী ঠাকরে। 

 

বন্ধ করুন