বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Global Hunger Index: ‘‘না খায়ুঙ্গা, না খানে দুঙ্গা’, ক্ষুধাসূচক রিপোর্ট নিয়ে মোদীকে তোপ মহুয়ার

Global Hunger Index: ‘‘না খায়ুঙ্গা, না খানে দুঙ্গা’, ক্ষুধাসূচক রিপোর্ট নিয়ে মোদীকে তোপ মহুয়ার

মহুয়া মৈত্র। (ANI)

অন্য একটি টুইটে তৃণমূল সাংসদ বলেন, ‘২০২২ সালের বিশ্ব ক্ষুধা সূচকে ভারত ১২২ টি দেশের মধ্যে ১০৭ নম্বরে রয়েছে। মহাশয় মোদী এবং শাহ - আমাদের সমস্ত প্রতিবেশী যাদেরকে আপনারা এত আদর করে উইপোকা এবং ঘুসপেটিয়া বলে ডাকেন তারা আমাদের থেকেও ভালো অবস্থানে আছে। সাবাশ!’

গ্লোবাল হাঙ্গার ইন্ডেক্সের রিপোর্ট প্রকাশে আসতেই কেন্দ্রীয় সরকারকে একযোগে আক্রমণ করেছেন বিরোধীরা। রিপোর্টে দেখা যাচ্ছে, ভারতের অবস্থান রয়েছে ১২২টি দেশের মধ্যে ১০৭ নম্বরে। প্রতিবেশী দেশ বাংলাদেশ, নেপাল এমনকি পাকিস্তানের থেকেও পিছিয়ে রয়েছে ভারত। এই রিপোর্ট নিয়ে এবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে কটাক্ষ করলেন তৃণমূল সাংসদ মহুয়া মৈত্র।

বিশ্ব ক্ষুধা সূচকে ১০৭ নম্বরে ভারত, এগিয়ে পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা, বাংলাদেশ, নেপালও

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ‘না খায়ুঙ্গা, না খানে দুঙ্গা’ স্লোগানকে হাতিয়ার করেই তোপ দাগলেন মহুয়া। টুইটারে নরেন্দ্র মোদীকে কটাক্ষ করে মহুয়া বলেন, ‘না খায়ুঙ্গা, না খানে দুঙ্গা বেশ আক্ষরিক অর্থেই মোদীজির স্লোগান বিশ্ব ক্ষুধা সূচকে ভারতের স্থান ১০৭ নম্বরে নিশ্চিত করেছে।’ এরপরেই অন্য একটি টুইটে তৃণমূল সাংসদ বলেন, ‘২০২২ সালের বিশ্ব ক্ষুধা সূচকে ভারত ১২২ টি দেশের মধ্যে ১০৭ নম্বরে রয়েছে। মহাশয় মোদী এবং শাহ - আমাদের সমস্ত প্রতিবেশী যাদেরকে আপনারা এত আদর করে উইপোকা এবং ঘুসপেটিয়া বলে ডাকেন তারা আমাদের থেকেও ভালো অবস্থানে আছে। সাবাশ!’

যদিও এই রিপোর্ট প্রকাশ্যে আসতেই তার বিরোধিতা করেছে কেন্দ্র সরকার। কেন্দ্রের বক্তব্য, মাত্র ৩০০০ লোকের মতামত নিয়েই এই রিপোর্ট তৈরি করা হয়েছে। যা ভারতের মতো একটি বড় দেশের ক্ষেত্রে একেবারে ঠিক নয়। এক্ষেত্রে দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করার প্রচেষ্টা করা হয়েছে বলে অভিযোগ তুলেছে কেন্দ্র। এই রিপোর্টে গুরুতর পদ্ধতিগত সমস্যা রয়েছে বলেই মনে করছে কেন্দ্র সরকার। তবে শুধু তৃণমূল সাংসদই নয় অন্যান্য বিরোধীরা এই রিপোর্টকে হাতিয়ার করে একযোগে কেন্দ্র সরকারকে আক্রমণ করেছে।

বন্ধ করুন