শুক্রবার রাতে ইলাজিগে ভেঙে পড়া বাড়ির বাইরে বাসিন্দারা। ছবি সৌজন্যে রয়টার্স।
শুক্রবার রাতে ইলাজিগে ভেঙে পড়া বাড়ির বাইরে বাসিন্দারা। ছবি সৌজন্যে রয়টার্স।

তুরস্কে তীব্র ভূমিকম্পে নিহত অন্তত ১৮, জখম ৫৫৩

  • স্থানীয় সময় রাত ৯টা নাগাদ পূর্ব ইলাজিগ প্রদেশের সিভরিস শহরের কাছে ভূপৃষ্ঠ থেকে ৬.৭ কিমি গভীরে তীব্র ভূমিকম্প হয়, জানিয়েছে তুরস্কের দুর্যোগ মোকাবিলা দফতর।নিহত হলেন কমপক্ষে ১৮ জন, জখম পাঁচশোরও বেশি।

তুরস্কে ভয়াবহ ভূমিকম্পে নিহত হলেন কমপক্ষে ১৮ জন, জখম পাঁচশোরও বেশি। ধুলিস্যাত্ হল দেশের পূর্ব প্রান্তের অসংখ্য ঘরবাড়ি।

শুক্রবার রাতে ৬.৮ মাত্রার কম্পনে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। ধ্বংসস্তূপের নীচে চাপা পড়েছেন প্রায় ৩০ জন। উদ্ধারকাজে নেমেছে নিরাপত্তা বাহিনী, দমকল ও স্থানীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী। গৃহহীন হয়েছেন অগুনতি পরিবার।

স্থানীয় সময় রাত ৯টা নাগাদ পূর্ব ইলাজিগ প্রদেশের সিভরিস শহরের কাছে ভূপৃষ্ঠ থেকে ৬.৭ কিমি গভীরে তীব্র ভূমিকম্প হয়, জানিয়েছে তুরস্কের দুর্যোগ মোকাবিলা দফতর (AFAD)। মূল কম্পনের প্রতিক্রিয়া হিসেবে পরে আরও বেশ কয়েক বার কম্পন অনুভূত হয়েছে, যার মধ্যে তীব্রতমর মাত্রা ছিল যথাক্রমে ৫.৪ ও ৫.১।

তুরস্কের আবাসন মন্ত্রী মুরত কারাম জানিয়েছেন, ক্ষতিগ্রস্ত দুই প্রদেশে মোট ৩০টি বাড়ি ভেঙে পড়েছে।

ভূমিকম্পের পরে শনিবার সকালেও ধ্বংসস্তূপ ঘেঁটে উদ্ধারকাজ চলেছে। ছবি সৌজন্যে রয়টার্স।
ভূমিকম্পের পরে শনিবার সকালেও ধ্বংসস্তূপ ঘেঁটে উদ্ধারকাজ চলেছে। ছবি সৌজন্যে রয়টার্স। (REUTERS)

আফটারশকের সম্ভাবনায় দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত বাড়িতে না ফেরার জন্য আতহ্কে ঘরছাড়া বাসিন্দাদের সতর্ক করে AFAD। দফতরের তরফে জানানো হয়েছে, ক্ষতিগ্রস্ত অঞ্চলের অধিবাসীদের জন্য তাঁবু, কম্বল ও বিছানা পাঠানো হয়। ওই অঞ্চলে রাতে তাপমাত্রা শূন্য ডিগ্রির নীচে নেমে যায় বলে জানিয়েছে আবহাওয়া দফতর।

ভূমিকম্প কবলিত এলাকা পরিদর্শনে গিয়ে তুরস্কের স্বাস্থ্যমন্ত্রী ফাহরেত্তিন কোকা জানিয়েছেন, ইলাজিগ প্রদেশে ১৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে দুই জন হার্ট অ্যাটাকের শিকার হয়েছেন। এ ছাড়া মালাত্যিয়া মারা গিয়েছেন ৫ জন। দুর্যোগে মোট ৫৫৩ জন আহত হয়েছেন বলেও তিনি জানিয়েছেন। তাঁদের মধ্যে ১১ জনের অবস্থা সংকটজনক।

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়িপ এরদোগান টুইউটারে জানিয়েছেন, ইলাজিগ অঞ্চলের ভূমিকম্পে আক্রান্ত একাধিক প্রদেশে দুর্যোগ মোকাবিলায় সব রকম সাহায্য করছে সরকার।

শুক্রবার রাতের ভূমিকম্প অনুভূত হয়েছে সিরিয়া, ইরান ও লেবাননেও।

বন্ধ করুন