বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > হুড়মুড়িয়ে ধস নামল হিমাচল প্রদেশে, পাথর পড়ল বাসের উপরে, আটকে ৪০ জনের বেশি
হুড়মুড়িয়ে ধস হিমাচল প্রদেশে। (ছবি সৌজন্য আইটিবিপি)
হুড়মুড়িয়ে ধস হিমাচল প্রদেশে। (ছবি সৌজন্য আইটিবিপি)

হুড়মুড়িয়ে ধস নামল হিমাচল প্রদেশে, পাথর পড়ল বাসের উপরে, আটকে ৪০ জনের বেশি

  • হুড়মুড়িয়ে ধস নামল হিমাচল প্রদেশের কিন্নরে।

হুড়মুড়িয়ে ধস নামল হিমাচল প্রদেশের কিন্নরে। আটকে পড়েছে হিমাচল প্রদেশের পরিবহন নিগমের একটি বাস-সহ আরও কয়েকটি গাড়ি। বাসে ৪০ জনের বেশি আছেন। তাঁরা সকলেই ধ্বংসস্তূপের নীচে আটকে আছেন বলে আশঙ্কা করছেন উদ্ধারকারীরা।

কিন্নরে ডেপুটি কমিশনার আবিদ হুসেন সাদিক জানিয়েছেন, বাসটি কিন্নরের রেকং পেও থেকে শিমলার দিকে যাচ্ছিল। সেই সময় রেকং পেও-শিমলা হাইওয়ে নুগুলসারির কাছে ধস নামে। ইতিমধ্যে উদ্ধারকাজে পাঠানো হয়েছে ইন্দো-টিবেটিয়ান বর্ডার পুলিশকে (আইটিবিপি)। উদ্ধারের জন্য এসেছে জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা দল (এনডিআরএফ) এবং স্থানীয় দল। এখনও নুড়ি-পাথর পড়ছে। তবে এখনও হতাহতের বিষয়ে কিছু জানানো হয়নি।

আইটিবিপির মুখপাত্র বিবেক পান্ডে জানিয়েছেন, ঘটনাস্থলে তিনটি ব্যাটেলিয়নের (১৭, ১৯ এবং ৪৩ ব্যাটেলিয়ন) ২০০ জন জওয়ানকে পাঠানো হয়েছে। পাহাড় থেকে পাথর এখনও পড়ছে। সেজন্য এক ঘণ্টা ধরে অপেক্ষা করছেন জওয়ানরা। এলাকা অত্যন্ত বিপজ্জনক অবস্থায় আছে।

ধসের বিষয়ে হিমাচল প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী জয়রাম ঠাকুরের সঙ্গে কথা বলেছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, ধসের বিষয়ে খোঁজ নেওয়া হয়েছে। সেইসঙ্গে উদ্ধারকাজ এবং ত্রাণের ক্ষেত্রে হিমাচল সরকারকে যাবতীয় সাহায্য প্রদানের জন্য আইটিবিপিকে নির্দেশ দিয়েছেন শাহ। কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে যাবতীয় সাহায্যেরও আশ্বাস দিয়েছেন। হিমাচল প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী বলেন, 'উদ্ধারকাজের জন্য পুলিশ এবং স্থানীয় প্রশাসনকে নির্দেশ দিয়েছি। আমরা জানতে পেরেছি যে একটি বাস এবং একটি গাড়ি আটকে আছে।'

বন্ধ করুন