বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > খুনের অভিযুক্তকে জামিন দিয়ে এলাকায় শান্তি স্থাপনের দায়িত্ব দিল দিল্লির আদালত!
বিয়ের প্রতিশ্রুতিকে কখনই দীর্ঘ সময় ধরে যৌন সম্পর্কে লিপ্ত থাকার টোপ হিসেবে প্রতিষ্ঠা করা যায় না, রায় দিল আদালত।
বিয়ের প্রতিশ্রুতিকে কখনই দীর্ঘ সময় ধরে যৌন সম্পর্কে লিপ্ত থাকার টোপ হিসেবে প্রতিষ্ঠা করা যায় না, রায় দিল আদালত।

খুনের অভিযুক্তকে জামিন দিয়ে এলাকায় শান্তি স্থাপনের দায়িত্ব দিল দিল্লির আদালত!

  • দিল্লি হিংসার সময় খুন করার অভিযোগে অভিযুক্ত ব্যক্তিকে জামিন দিয়ে আদালত নির্দেশ দেয় যাতে এলাকায় শান্তি বজায় রাখার দায়িত্ব পালন করে সেই ব্যক্তি।

দিল্লি হিংসার সময় খুন করার অভিযোগ রয়েছে তাঁর বিরুদ্ধে। সেরকমই এক ব্যক্তিকে জামিন দিয়ে তাঁর উপর এক গুরুদায়িত্ব দিল আদালত। এলাকায় শান্তি এবং সম্প্রীতি স্থাপনের দায়িত্ব এখন সেই খুনের অভিযুক্তের ঘাড়ে। এমনই এক রায় শোনাল দিল্লির এক দায়রা আদালত। জামিন পাওয়া ব্যক্তির নাম ইরশাদ। ২৪ বছর বয়সী সালমান নামক এখ যউবককে খুন করার অভিযোগ তাঁর বিরুদ্ধে। সেই ইরশাদকে শর্ত সাপেক্ষ জামিন মঞ্জুর করেন দিল্লির অতিরিক্ত দায়রা বিচারক বিনোদ যাদব।

গতবছরের ২৪ ফেব্রুয়ারি মাসে দিল্লির শিবসাগর এলাকায় সালমান নামক এক যুবক গুলিবিদ্ধ হয়ে প্রাণ হারান। সেখানেই নাকি উপস্থিত ছিলেন অভিযুক্ত ইরশাদ। পুলিশের দাবি, দাঙ্গাবাজ জনগণকে নেতৃত্ব দিচ্ছিলেন ইরশাদ। যদিও এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন ইরশাদ। এই ঘটনায় জড়িত থাকার সন্দেহে মহম্মদ ফুকরান নামক আরও এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছিল পুলিশ। গত ১৫ জুন ফুকরানের জামিনও মঞ্জুর হয়েছিল।

এদিন ইরশাদকে ব্যক্তিগত ১০ হাজার টাকার বন্ডের বিনিয়মে জামিন দেন বিচারক। ইরশাদকে আধালত নির্দেশ দিয়েছে যাতে কোনও ভাবে তথ্য লোপাট বা প্রমাণ নষ্টের চেষ্টা তিনি না করেন। তাছাড়া ইরশাদকে এলাকায় শান্তি এবং সম্প্রীতি স্থাপন করতে হবে বলে নির্দেশ দেন বিচারক।

উল্লেখ্য, এর আগে দুই বার ইরশাদের জামিনের আবেদন খারিজ হয়েছিল আদালতে। ২০২০ সালের ১৯ নভেম্বর এবং চলতি বছরের ৮ এপ্রিল জামিনের আবেদন জানিয়েছিলেন ইরশাদ। তবে তাঁর সেই আবেদন খারিজ করে দেয় আদালক। গতবছরের ২ এপ্রিল থেকে হেফাজতে রয়েছেন ইরশাদ। এদিকে পুলিশ পক্ষের আইনজীবীর দাবি, সালমানের উপর হামলা চালানো হয়েছিল এটা ভেবে যে তিনি অন্য সম্প্রদায়ের যুবক। তাই তাঁর উপর হামলা চালিয়ে তাঁকে খুন করা হয়েছিল।

বন্ধ করুন