বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ভিউ পেতে ইচ্ছা করে বিমান ক্র্যাশ, ২০ বছর পর্যন্ত জেল হতে পারে YouTuber-এর

ভিউ পেতে ইচ্ছা করে বিমান ক্র্যাশ, ২০ বছর পর্যন্ত জেল হতে পারে YouTuber-এর

ফাইল ছবি: ইউটিউব (YouTube)

বিমান ক্র্যাশের মতো বিষয়। মার্কিন প্রশাসনের তদন্তের মুখে পড়েন তিনি। আর তাতে বাধা দেওয়ার অপরাধে আদালতে দোষী সব্যস্ত হলেন তিনি। সান্তা বারবারা কাউন্টি বিচারবিভাগ তাঁকে অপরাধী ঘোষণা করেছে।

ভাইরাল হলেই ভিউ। ভিউ মানেই টাকা। ইউটিউবে টাকা কামানোর লোভে অনেকেই আজব আজব ভিডিয়ো বানিয়ে থাকেন। তাই বলে ইচ্ছাকৃতভাবে বিমান ক্র্যাশ করানো? আজ্ঞে হ্যাঁ, ভিউয়ের লোভে এমনই কাজ করেছিলেন এক ইউটিউবার। ভিউয়ের লোভে নিজের ছোট বিমান পরিকল্পিতভাবে, ক্র্যাশ করিয়েছিলেন। উড়ন্ত বিমান থেকে প্যারাসুট নিয়ে লাফ দিয়েছিলেন। সেটি নাটক করে ভিডিয়োও বানিয়েছিলেন। সেটি ভাইরালও হয়েছিল।

তবে বিমান ক্র্যাশের মতো বিষয়। মার্কিন প্রশাসনের তদন্তের মুখে পড়েন তিনি। আর তাতে বাধা দেওয়ার অপরাধে আদালতে দোষী সব্যস্ত হলেন তিনি। সান্তা বারবারা কাউন্টি বিচারবিভাগ তাঁকে অপরাধী ঘোষণা করেছে।

লোমপোকের বছর ২৯-এর ট্রেভর ড্যানিয়েল জ্যাকবের বিরুদ্ধে ফেডারেল তদন্তে বাধা দেওয়ার অভিযোগ এবং ধ্বংসাবশেষ লুকিয়ে রাখার জন্য দোষী সব্যস্ত করা হয়েছে। এই অপরাধে ফেডারেল কারাগারে তাঁর সর্বোচ্চ ২০ বছরের সাজা হতে পারে।

আগামী সপ্তাহের মধ্যে ট্রেভর প্রাথমিক আদালতে হাজিরা দেবেন বলে মনে করা হচ্ছে।

তাঁর আবেদনের চুক্তি অনুযায়ী, জ্যাকব একজন বেশ অভিজ্ঞ পাইলট। সেই সঙ্গে স্কাইডাইভারও বটে। একটি মানিব্যাগ-সহ বিভিন্ন পণ্য বিক্রয়কারী সংস্থার থেকে স্পনসরশিপ পেয়েছিলেন তিনি। স্পনসরশিপ চুক্তি অনুসারে, ট্রেভরকে তাঁর ইউটিউবের ভিডিয়োতে কোম্পানির ওয়ালেটের বিজ্ঞাপন প্রচার করতে হবে। সেটি তাঁর ইউটিউবে পোস্ট করতে হবে।

২৪ নভেম্বর ২০২১-এ জ্যাকব তাঁর বিমান নিয়ে লোম্পক সিটি বিমানবন্দর থেকে একা-একাই উড়াতে শুরু করেন। ম্যামথ লেক যাবে বলে বের হয়েছিলেন। কিন্তু সেটি করেননি। বরং উড়ানের সময়ে তাঁর বিমান থেকে লাফ দিয়ে বের হয়ে যান। এরপর প্যারাসুটে করে নেমে আসেন। এদিকে তাঁর বিমান নিচে পড়ে ধ্বংস হয়ে যায়। একেবারে হলিউড ধাঁচে।

উড়ানের আগে, জ্যাকব বিমানের বিভিন্ন অংশে বেশ কয়েকটি ভিডিয়ো ক্যামেরা বসিয়েছিলেন। নিজেও একটি প্যারাসুট, ভিডিয়ো ক্যামেরা এবং সেলফি স্টিক নিয়েছিলেন। উড়ানের প্রায় ৩৫ মিনিট পরে, সান্তা মারিয়ার কাছে লস প্যাড্রেস জাতীয় উদ্যানের উপর দিয়ে যাওয়ার সময়ে এই আজব কাণ্ড করেন।

ভিডিয়ো এডিট করে পরে ইউটিউবে আপলোড করেছিলেন। সেই ভিডিয়ো ভাইরাল হয়েছিল। তবে প্রায় সকলেই বুঝেছিলেন যে এটি পরিকল্পিত। নয় তো এত ক্যামেরা নিয়ে কেন তৈরি থাকবেন!

এই খবরটি আপনি পড়তে পারেন HT App থেকেও। এবার HT App বাংলায়। HT App ডাউনলোড করার লিঙ্ক https://htipad.onelink.me/277p/p7me4aup

বন্ধ করুন