বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > করোনা নিয়ে ভরতি, ধরা পড়ল ব্ল্যাক-হোয়াইট-ইয়েলো ফাংগাসও, মৃত্যু আইনজীবীর
করোনা নিয়ে ভরতি, ধরা পড়ল ব্ল্যাক-হোয়াইট-ইয়েলো ফাংগাসও, মৃত্যু আইনজীবীর। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য প্রথম গোখলে/হিন্দুস্তান টাইমস)
করোনা নিয়ে ভরতি, ধরা পড়ল ব্ল্যাক-হোয়াইট-ইয়েলো ফাংগাসও, মৃত্যু আইনজীবীর। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য প্রথম গোখলে/হিন্দুস্তান টাইমস)

করোনা নিয়ে ভরতি, ধরা পড়ল ব্ল্যাক-হোয়াইট-ইয়েলো ফাংগাসও, মৃত্যু আইনজীবীর

  • করোনাভাইরাস নিযে ভরতি হয়েছিলেন ওই ব্যক্তি।

একজন মানুষের দেহেই হোয়াইট, ইয়েলো ও ব্ল্যাক ফাংগাসের হদিশ মিলল। গাজিয়াবাদের এক হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন ৫৯ বছরের ওই ব্যক্তি। সম্প্রতি তাঁর মৃত্যু হয়।এভাবে একই ব্যক্তির দেহে এভাবে তিনটি ফাংগাসের অস্তিত্বের ঘটনা খুবই বিরল।

গাজিয়াবাদের রাজনগর এলাকায় একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন পেশায় আইনজীবী কানওয়ার সিং।হাসপাতালের তরফে ইএনটি বিশেষজ্ঞ ডঃ বি পি ত্যাগী জানান, ‘‌করোনায় আক্রান্ত অবস্থাতেই হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন কানওয়ার সিং।কিছুদিন ধরেই তিনি চিকিৎসাধীন ছিলেন। শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টা ২০ মিনিটে তাঁর মৃত্যু হয়। রক্তে বিষক্রিয়ার ফলেই তাঁর মৃত্যু হয়েছে।’‌ একইসঙ্গে চিকিৎসক ত্যাগী জানিয়েছেন, ইয়োলো ফাংগাসের পাশাপাশি ব্ল্যাক ও হোয়াইট ফাংগাসও পাওয়া যায়। জানা গিয়েছে, কানওয়ার সিং গাজিয়াবাদের সঞ্জয়নগর এলাকার বাসিন্দা।

হাসপাতালের তরফে আরও জানানো হয়, তাদের হাসপাতালে মুরাদনগরের এক বাসিন্দা ভর্তি হয়েছেন, যাঁর দেহে ইয়োলো ফাংগাস ধরা পড়েছে।রাজেশ কুমার নামে ৫৯ বছরের ওই বাসিন্দার মস্তিষ্কের কাছে ওই ফাংগাস ধরা পড়ে।ওই ব্যক্তির চোয়ালের অর্ধেকটাই কেটে বাদ দিতে হয়েছে। এই ব্যক্তির শরীরেও রক্তে বিষক্রিয়া ছড়িয়ে পড়েছে। তবে তা কানওয়ারের থেকে অনেকটাই কম।উল্লেখ্য, শুক্রবারের রিপোর্ট অনুযায়ী, গাজিয়াবাদে এখনও পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ৪৩২ জনের।করোনা আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ১৯৫৭ জন।

বন্ধ করুন