বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > প্রতিহিংসা নিতে ৫ বছরের দলিত মেয়েকে ধর্ষণ করে খুন, গ্রেফতার অভিযুক্ত
(প্রতীকী ছবি)
(প্রতীকী ছবি)

প্রতিহিংসা নিতে ৫ বছরের দলিত মেয়েকে ধর্ষণ করে খুন, গ্রেফতার অভিযুক্ত

  • মাত্র ১৫ দিন আগে জামিনে ছাড়া পেয়েছিল বান্টি রজক। শুক্রবার শিশু ধর্ষণ ও হত্যার অভিযোগে তাকে ফের গ্রেফতার করে পুলিশ।

প্রতিহিংসা নিতে পাঁচ বছরের দলিত শিশুকন্যাকে ধর্ষণের পরে খুন করল ধর্ষণের অভিযোগে কারাদণ্ড ভোগ করা আসামি। পুলিশ অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে।

নিহত শিশুকন্যার পিসিকে ধর্ষণের দায়ে কারাদণ্ড হয়েছিল মধ্য প্রদেশের মোরেনায় সবলগড় গ্রামের বাসিন্দা বছর একত্রিশের বান্টি রজকের। মাত্র ১৫ দিন আগে সে জামিনে ছাড়া পেয়েছিল। শুক্রবার ভোরে শিশু ধর্ষণ ও হত্যার অভিযোগে তাকে ফের গ্রেফতার করে পুলিশ। ধৃতের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৭৬ ধারা (ধর্ষণ) এবং পকসো আইনের সংশ্লিষ্ট ধারায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে, জানিয়েছেন মোরেনার পুলিশ সুপার সুনীল কুমার পান্ডে।

পান্ডে জানিয়েছেন, ঠাকুরদা ও ঠাকুমার সঙ্গে গ্রামে বসবাস করত শিশুকন্যাটি। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকে তার খোঁজ পাওয়া যায়নি। তল্লাশিতে নেমে বৃহস্পতিবার রাতে শস্যখেতের মাঝে রক্তাপ্লুত অবস্থায় শিশুর দেহটি খুঁজে পায় তার পরিবার। পুলিশকে বিষয়টি জানিয়ে শিশুটিকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

সুপার জানিয়েছেন, ‘তল্লাশির সময় কাছেই এক খেতে রজককে দেখতে পায় নিহতের দিদি। জেরার সময় সন্দেহ দেখা দেওয়ায় তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।’

উল্লেখ্য, গত জুন মাসে নিহত শিশুর পিসিকে ধর্ণের অভিযোগে রজককে গ্রেফতার করা হয়। ১৫ দিন পরে সে জামিনে ছাড়া পায়। 

নিহত শিশুর ঠাকুরদা বলেন, ‘অভিযুক্ত প্রতিহিংসা নিতোই আমার নাতনিকে খুন করেছে। এবার ওর পরিবার আমাদের বিরুদ্ধে যা পারবে করবে। আমাদের প্রাণ সংশয় ঘনিয়েছে। আমরা নিরাপত্তা চাই এবং নাতনির জন্য বিচারও চাই।’

পুলিশ জানিয়েছে, দেহটি ময়না তদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। গ্রামে মোতায়েন করা হয়েছে বিশাল পুলিশ বাহিনী। এ দিকে অভিযুক্তেোর মৃত্যুদণ্ড দাবি করে বিক্ষোভ অবস্থানে বসেন গ্রামবাসীরা।

এসপি জানিয়েছেন, ‘নিগৃহীতার বাড়িতে পুলিশ প্রহরা চলেছে। ওই পরিবারের সদস্যদের বোোঝানোর চেষ্টা করছে পুলিশ ও প্রশাসন।’

বন্ধ করুন