বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > যমজ কন্যা সন্তানের জন্ম দিয়েছিলেন স্ত্রী, জানতে পেরে আত্মঘাতী স্বামী

যমজ কন্যা সন্তানের জন্ম দিয়েছিলেন স্ত্রী, জানতে পেরে আত্মঘাতী স্বামী

আত্মঘাতী হলেন ব্যাক্তি। (প্রতীকী ছবি)

বাসুদেবের আর্থিক অবস্থা খুব খারাপ ছিল না। তিনি পেশায় একজন মার্বেল ব্যবসায়ী ছিলেন। তাঁর জমির পরিমাণ রয়েছে ১৫ থেকে ২০ একর। স্ত্রী যমজ কন্যা সন্তানের জন্ম দেওয়ার পরেই মানসিকভাবে ভেঙে পড়েন বাসুদেব। এরপর বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টা নাগাদ এলাকারই একটি সেতু থেকে নদীতে ঝাঁপ দেন। 

স্ত্রী যমজ কন্যা সন্তানের জন্ম দেওয়ায় আত্মঘাতী হলেন স্বামী। ঘটনাটি ঘটেছে মধ্যপ্রদেশের বালাঘাটে। একটি ব্রিজ থেকে ঝাঁপ দিয়ে আত্মঘাতী হয়েছেন ওই ব্যক্তি। মৃতের নাম বাসুদেব পাটেল। জানা গিয়েছে, ওই ব্যক্তি দীর্ঘদিন ধরেই পুত্র সন্তান চাইছিলেন। তবে স্ত্রী যমজ কন্যা সন্তানের জন্ম দেওয়ায় তার কন্যা সন্তানের সংখ্যা হয়ে দাঁড়ালো চারজন। তারপরেই চরম পদক্ষেপ নেন ওই ব্যক্তি।

বালাঘাট থানার ইন্সপেক্টর কমল সিং জানিয়েছেন, বাসুদেবের আর্থিক অবস্থা খুব খারাপ ছিল না। তিনি পেশায় একজন মার্বেল ব্যবসায়ী ছিলেন। তাঁর জমির পরিমাণ রয়েছে ১৫ থেকে ২০ একর। স্ত্রী যমজ কন্যা সন্তানের জন্ম দেওয়ার পরেই মানসিকভাবে ভেঙে পড়েন বাসুদেব। এরপর বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টা নাগাদ এলাকারই একটি সেতু থেকে নদীতে ঝাঁপ দেন। পরের দিন সকালে তাঁর মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। তবে ঘটনাস্থল থেকে কোনও সুইসাইড নোট পাওয়া যায়নি। তাঁর মৃতদেহ ময়না তদন্তের জন্য পাঠিয়েছে পুলিশ। তদন্তকারীদের প্রাথমিক অনুমান, স্ত্রী যমজ কন্যা সন্তানের জন্ম দেওয়ার কারণেই আত্মঘাতী হয়েছেন ওই ব্যক্তি।

মৃতের পরিবারের সদস্যদের জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ জানতে পারে, স্ত্রী সন্তান প্রসবের পরেই ওষুধ কেনার নামে হাসপাতাল থেকে বেরিয়ে যান বাসুদেব। তারপরে চরম পদক্ষেপ নেন। বাসুদেবরা ৪ ভাইবোন। তাঁর ৪ জন্য রয়েছে। যার মধ্যে একজনের বয়স ৬ বছর এবং অন্যজনের বয়স ৪ বছর। এই ঘটনায় শোকের ছায়া নেমেছে বাসুদেবের পরিবারে। তাঁর মৃত্যুর পিছনে অন্য কোনও কারণ রয়েছে কিনা তা জানার জন্য পরিবারের সদস্যদের জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ।

এই খবরটি আপনি পড়তে পারেন HT App থেকেও। এবার HT App বাংলায়। HT App ডাউনলোড করার লিঙ্ক https://htipad.onelink.me/277p/p7me4aup

বন্ধ করুন