বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Quran desecration: কোরান পোড়ানোর অভিযোগ, পাকিস্তানে থানায় ঢুকে অভিযুক্তকে গুলি করল ক্ষুব্ধ জনতা

Quran desecration: কোরান পোড়ানোর অভিযোগ, পাকিস্তানে থানায় ঢুকে অভিযুক্তকে গুলি করল ক্ষুব্ধ জনতা

কোরান পোড়ানোর অপরাধে পাকিস্তানে থানায় ঢুকে অভিযুক্তকে গুলি করল ক্ষুব্ধ জনতা (AP)

ঘটনার সূত্রপাত কোরানের কিছু পৃষ্ঠা পুড়িয়ে দেওয়াকে কেন্দ্র করে। শিয়ালকোট জেলার মহম্মদ ইসমাইল নামের এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে কোরানের পাতা পোড়ানোর অভিযোগ ওঠে। এই অভিযোগ পেয়ে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। কিন্তু, কোরান পোড়ানোর খবর দাবানলের মতো ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়।

কোরান পোড়ানোর অপরাধে গ্রেফতার করা হয়েছিল এক ব্যক্তিকে। তারপরেও নিয়ন্ত্রণে আসল না পরিস্থিতি। থানায় ঢুকে অভিযুক্ত ব্যক্তিকে গুলি করে হত্যা করে শাস্তি দিল উত্তেজিত জনতা। শুধু তাই নয়, বাধা দেওয়ায় পুলিশের ওপরেও গুলি চালানো হয়। পুড়িয়ে দেওয়া হয় থানা। কার্যত রণক্ষেত্র পরিস্থিতি তৈরি হয়। ঘটনায় ৮ জন আহত হয়েছেন। এরমধ্যে একজনের অবস্থা গুরুতর। তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর-পশ্চিম পাকিস্তানের খাইবার পাখতুনখোয়ার সোয়াতের মাদিয়ান এলাকায়। 

আরও পড়ুন: কোরান পোড়ানো ইরাকির মৃত্যু হয়েছে নরওয়েতে? কে এই ‘ইসলাম বিরোধী’ সালওয়ান?

কী ঘটেছিল?

জানা যাচ্ছে, ঘটনার সূত্রপাত কোরানের কিছু পৃষ্ঠা পুড়িয়ে দেওয়াকে কেন্দ্র করে। শিয়ালকোট জেলার মহম্মদ ইসমাইল নামের এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে কোরানের পাতা পোড়ানোর অভিযোগ ওঠে। এই অভিযোগ পেয়ে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। কিন্তু, কোরান পোড়ানোর খবর দাবানলের মতো ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। কোরানের অবমাননাকর খবর ছড়িয়ে পড়তেই ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন জনতা। এরপর ইসমাইলকে শাস্তি দিতে চেয়ে থানার বাইরে বিক্ষোভ দেখায় ক্ষুব্ধ জনতা। তারা অভিযুক্তকে তাদের হাতে তুলে দিতে বলে পুলিশকে। কিন্তু, তা না করায় পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে ওঠে।

বাধা পেয়ে বিক্ষুব্ধ জনতা পুলিশের ওপর হামলা চালায়। পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। পালটা পুলিশও গুলি চালায়। দুপক্ষের গুলি বিনিময়ে একজন গুলিবিদ্ধ হন। তারপরও পুলিশ ক্ষুব্ধ জনতাকে আটকাতে পারেনি। তারা থানার ভিতরে ঢুকে ইসমাইলকে গুলি করে হত্যা করে এবং থানায় আগুন ধরিয়ে দেয়। এরপর ইসমাইলের মৃতদেহ টানতে টানতে নিয়ে গিয়ে মাদিয়ানে ঝুলিয়ে দেয়। 

সোয়াতের জেলা পুলিশ অফিসার (ডিপিও) জাহিদুল্লাহ জানান, এই ঘটনায় আট জন আহত হয়েছেন। খবর পেয়ে মাদিয়ানে প্রচুর পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে এবং পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করা হচ্ছে। গুরুতর আহত একজনকে মাদিয়ান হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়েছে।

এই ঘটনার পর খাইবার পাখতুনখোয়ার মুখ্যমন্ত্রী আলী আমিন এলাকার পুলিশ প্রধানের কাছে রিপোর্ট চেয়ে পাঠিয়েছেন। তিনি এলাকা শান্ত করার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে পুলিশকে নির্দেশ দিয়েছেন। একইসঙ্গে সাধারণ মানুষকেও শান্ত হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। জানা যাচ্ছে,  অভিযুক্ত ইসমাইল মাদিয়ানের  একটি হোটেলে ছিলেন। খবর পেয়ে তার সুরক্ষার জন্য পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। কিন্তু, উত্তেজিত জনতা পুলিশের কাছ থেকে ইসমাইলকে ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে। পরে থানায় হামলা চালায়। 

ঘরে বাইরে খবর

Latest News

আর্জেন্তিনা-মরক্কো ম্যাচে ধুন্ধুমার,মাঠে উড়ে এল বোতল-আতসবাজি,হারল বিশ্বকাপজয়ীরা 'জঙ্গিরা প্ররোচিত হতে পারে মমতার কথায়, মিথ্যা বলেছেন’, চটলেন হাসিনারা- রিপোর্ট ৬০ লাখ টাকা দাম উঠেছিল নিটের প্রশ্নের, কতজন পেয়েছিলেন? CBI তদন্তে বিস্ফোরক তথ্য 'অভিনয় করেছি তাই...' ট্রোল্ড হতেই পুরস্কার নিয়ে সটান জবাব 'মহানায়ক' নচিকেতার! হাসপাতালে এসে ‘প্রেম রোগে’ আক্রান্ত বৃদ্ধ, লেডি-ডাক্তারকে লিখলেন লাভ লেটার ‘ওয়াহ, ওয়াহ’, ‘পক্ষপাতিত্বের জন্য’ ঠোঁটে আঙুল দিয়ে স্পিকারকে কটাক্ষ অভিষেকের উত্তমের শেষ ইচ্ছে পূরণ করেননি মহানায়িকা! সুচিত্রার কাছে কী চেয়েছিলেন তিনি? ‘বঞ্চিত’ নয় বাংলা, বাজেটে কোটি-কোটি টাকা পেল কলকাতার বিভিন্ন সংস্থা- রইল তালিকা রাজ্যপালের মানহানির প্রমাণ কোথায়? প্রশ্ন মমতার আইনজীবীর বিচ্ছেদের ঘোষণার পরেও নাতাশার সঙ্গে যোগাযোগ রয়েছে হার্দিকের! কী লিখলেন?

Copyright © 2024 HT Digital Streams Limited. All RightsReserved.