বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > 'মোদী পাঠিয়েছেন', ‘ভুলবশত’ অ্যাকাউন্টে আসা ৫.৫ লাখ টাকা ফিরিয়ে দিলেন না ব্যক্তি!
'মোদী পাঠিয়েছেন', ‘ভুলবশত’ অ্যাকাউন্টে আসা ৫.৫ লাখ টাকা ফিরিয়ে দিলেন না ব্যক্তি! (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য রয়টার্স)
'মোদী পাঠিয়েছেন', ‘ভুলবশত’ অ্যাকাউন্টে আসা ৫.৫ লাখ টাকা ফিরিয়ে দিলেন না ব্যক্তি! (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য রয়টার্স)

'মোদী পাঠিয়েছেন', ‘ভুলবশত’ অ্যাকাউন্টে আসা ৫.৫ লাখ টাকা ফিরিয়ে দিলেন না ব্যক্তি!

  • ওই ব্যক্তির দাবি, তিনি ভেবেছিলেন যে ১৫ লাখ টাকা কিস্তিতে দিচ্ছেন মোদী।

ভুলবশত বিহারের এক ব্যক্তির অ্যাকাউন্টে ৫.৫ লাখ টাকা পড়ে গিয়েছিল। কিন্তু সেই টাকা কিছুতেই ফিরিয়ে দেবেন না। তাঁর যুক্তি, সেই টাকা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তিনি তো প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। সেটা ভেবেই টাকা খরচ করে ফেলেছেন। এখন পয়সা কীভাবে দেবেন? একাধিক প্রতিবেদনে সেই দাবি করা হয়েছে।

ওই প্রতিবেদনগুলি অনুযায়ী, মানসি থানার অন্তর্গত বখতিয়ারপুর গ্রামের বাসিন্দা রঞ্জিত দাসের অ্যাকাউন্টে ভুলবশত ৫.৫ লাখ টাকা পাঠিয়ে দিয়েছিল গ্রামীণ ব্যাঙ্কের খাড়ারিয়া শাখা। বিষয়টি নজরে আসতেই বারবার নোটিশ পাঠানো হয়। কিন্তু তা সত্ত্বেও সেই টাকা ফিরিয়ে দিতে অস্বীকার করেন রঞ্জিত। উলটে দাবি করেন, তিনি সেই টাকা খরচ করে ফেলেছেন। তখন তো তিনি ভেবেছিলেন যে প্রতিশ্রুতি মতো টাকা দিয়েছেন মোদী।

পুলিশকে দেওয়া রঞ্জিতের বয়ান উদ্ধৃত করে একটি প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ‘চলতি বছরের মার্চে যখন টাকা পেয়েছিলাম, তখন আমি অত্যন্ত খুশি হয়েছিলাম। প্রধানমন্ত্রী প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন যে প্রত্যেকের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে ১৫ লাখ টাকা দেওয়া হবে। আমি ভেবেছিলাম যে এটা হয়তো প্রথম কিস্তির টাকা। আমি পুরো টাকা খরচ করে ফেলেছি। এবার আমার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট কোনও টাকা পড়ে নেই। ’ বিষয়টি নিয়ে মানসি থানার স্টেশন হাউস অফিসার দীপক কুমার বলেন, ‘ব্যাঙ্কের ম্যানেজারের অভিযোগের ভিত্তিতে রঞ্জিত দাসকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তদন্ত চলছে।’

বন্ধ করুন