বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > মেঘভাঙা বৃষ্টিতে ভেসে গেল কাশ্মীরি গ্রাম, মৃত ৭, জারি উদ্ধার কাজ
মেঘভাঙা বৃষ্টির জেরে ভেসে গিয়েছে গ্রাম (ছবি সৌজন্যে এএনআই)
মেঘভাঙা বৃষ্টির জেরে ভেসে গিয়েছে গ্রাম (ছবি সৌজন্যে এএনআই)

মেঘভাঙা বৃষ্টিতে ভেসে গেল কাশ্মীরি গ্রাম, মৃত ৭, জারি উদ্ধার কাজ

  • কিশ্তওয়ার জেলার হনজোর নামক প্রত্যন্ত গ্রামে এই ঘটনা ঘটেছে বলে জানা গিয়েছে।

কাশ্মীরে মেঘভাঙা বৃষ্টির জেরে মৃত্যু হল অন্তত ৭ জনের। ঘটনায় এখনও নিখোঁজ প্রায় ১০ জন। কিশ্তওয়ার জেলার হনজোর নামক প্রত্যন্ত গ্রামে এই ঘটনা ঘটেছে বলে জানা গিয়েছে। এই পরিস্থিতিতে নিখোঁজদের খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে ভারতীয় সেনার জওয়ামরা। বুধবার ভোরে এই বৃষ্টিতে ভেসে যায় গোটা গ্রামটি। এরপরই শুরু হয় তল্লাশি অভিযান। 

এই ঘটনার পর কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ খোঁজ নিয়েছেন। উচ্চপদস্থ পুলিশ কর্তাদের ফোন করে পরিস্থিতির বিষয়ে জানতে চেয়েছেন। এদিকে টুইট করে প্রধানমন্ত্রী মোদীও জানান যে কেন্দ্র পরিস্থিতির দিকে নজর রাখছে। উল্লেখ্য এর আগে আজই হিমাচলপ্রদেশেও মেঘভাঙা বৃষ্টি হল কয়েকদিন আগে। সেই ঘটনায় নিখোঁজ ১০ জন।

প্রসঙ্গত, বর্ষার জেরে বেশ কয়েকদিন ধরেই জম্মু ও কাশ্মীর জুরে প্রবল বৃষ্টি হচ্ছে। এই পরিস্থিতিতে আজ সকালে কিশ্তওয়ারের হনজোর গ্রামে মেঘভাঙা বৃষ্টিতে আট থেকে নয়টি বাড়ি ব্যাপক ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। নিখোঁজ হয়ে যান সেই বাড়ির বাসিন্দারা। এরপরই তল্লাশি অভিযান শুরু হয় নিখোঁজদের উদ্ধার করতে। ঘটনায় এখনও পর্যন্ত ৭ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে। মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলেই আশঙ্কা করা হচ্ছে।

কিশ্তওয়ারের পুলিশ প্রধান এসএসপি শফকত ভাট বলেনন, উদ্ধার কাজ শুরু হয়েছে। আমরা এখনও সাতটি মৃতদেহ খুঁজে পেয়েছি। আমাদের বিশ্বাস ঘটনার সময় গ্রামে ৩০ থেকে ৪০ জন উপস্থিত ছিলেন। নিকটবর্তী পুলিশ পিকেট থেকে আমরা উদ্ধারকারী দল পাঠিয়েছি। বায়ুসেনাও এই উদ্ধার কার্যে হাত লাগাবে বলে জানা গিয়েছে। জম্মু থেকে কিশ্তওয়ারে উড়িয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীকে। তবে উদ্ধার কাজ ব্যাহত হতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে, কারণ সেই এলাকায় ভারী বর্ষণের পূর্বাভাস রয়েছে।

বন্ধ করুন