বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > জানুয়ারিতেই পৃথিবীর কাছে বুর্জ খলিফার থেকেও বড় গ্রহাণু!ক্ষতির সম্ভাবনা আছে?
শিল্পীর কল্পনায়, ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য টুইটার   (Twitter)
শিল্পীর কল্পনায়, ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য টুইটার   (Twitter)

জানুয়ারিতেই পৃথিবীর কাছে বুর্জ খলিফার থেকেও বড় গ্রহাণু!ক্ষতির সম্ভাবনা আছে?

আগামী ১৮ জানুয়ারি ২০২২ পৃথিবীর সবচেয়ে নিকটে থাকবে এই গ্রহাণু।

পৃথিবীর কাছ দিয়ে বেরিয়ে যাবে এক বিশালাকায় গ্রহাণু। আর সেদিকেই এখন নজর মহাকাশ গবেষকদের।

কবে?

আগামী ১৮ জানুয়ারি ২০২২ পৃথিবীর সবচেয়ে নিকটে থাকবে এই গ্রহাণু।

গ্রহাণুর নাম কী?

মহাকাশ শিলা - গ্রহাণু 7482 পৃথিবীর কাছ দিয়ে বেরিয়ে যাবে। নাসার সেন্টার ফর নিয়ার-আর্থ অবজেক্ট স্টাডিজ (সিএনইওএস) জানিয়েছে, গ্রহাণুটি ঘন্টায় ৬৯,২০০ কিলোমিটার বেগে উড়ছে।

কতটা বড়

অ্যাস্টেরয়েড 7482, সাধারণভাবে 1994 PC1 নামে পরিচিত। এটির ব্যাস প্রায় ৩,২৮০ ফুট। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিখ্যাত এম্পায়ার স্টেট বিল্ডিংয়ের প্রায় দ্বিগুণ লম্বা এটি।

 

কতটা দূর দিয়ে যাবে?

প্রায় ১৯ লক্ষ কিলোমিটার দূর দিয়ে এই গ্রহাণু বেরিয়ে যাওয়ার কথা। পৃথিবী এবং চাঁদের মধ্যবর্তী দূরত্বের পাঁচগুণ এটি। তবে মহাকাশবিজ্ঞানের হিসাবে এটি 'নিয়ার আর্থ অবজেক্ট' বা পৃথিবীর সন্নিকটস্থ বস্তু হিসাবেই বিবেচিত হয়।

এই স্পেস রকটি প্রতি ১.৫ বছরে সূর্যকে প্রদক্ষিণ করে। ফের ২০৫১ সালে এটি পৃথিবীর কাছাকাছি দিয়ে যাবে। এর আগে শেষবার ১৯৩৩ সালে এটি পৃথিবীর সবচেয়ে কাছে এসেছিল। সেই সময়ে এটি পৃথিবী থেকে ১১ লক্ষ কিলোমিটার দূরত্ব দিয়ে বেরিয়ে গিয়েছিল।

গ্রহাণুটি ২০১৭ সালের এপ্রিলে শেষবারের মতো পৃথিবীর কাছাকাছি এসেছিল। আগামী ২০৩৪ সালের জুলাই পর্যন্ত আমাদের মহাজাগতিক অঞ্চলে ফিরে আসবে না।

১৯৯৪ সালে প্রথমবার জ্যোতির্বিজ্ঞানী রবার্ট ম্যাকনট গ্রহাণুটি দেখেছিলেন। অস্ট্রেলিয়ার সাইডিং স্প্রিং অবজারভেটরি থেকে তিনি এর পর্যবেক্ষণ করে। এর পরবর্তী বছরগুলিতে বিজ্ঞানীরা অধ্যয়নের পর এর কক্ষপথ নির্ধারণ করতে সক্ষম হন।

অন্য গ্রহাণু

গ্রহাণু 1994 PC1 ছাড়াও, গ্রহাণু 2021 YK গত ২ জানুয়ারি ১.১৮ লক্ষ কিলোমিটার দূরত্বে পৃথিবীর পাশ দিয়ে বেরিয়ে গেছে। এই গ্রহাণুটি অবশ্য অনেক ছোট। মাত্র ১২ মিটার লম্বা।

NASA এবং এর আন্তর্জাতিক অংশীদাররা ক্রমাগত আকাশে পৃথিবীর নিকটস্থ বস্তুর (NEOs) নজরদারি করেন। এই ধরনের 'বস্তুর' মধ্যে রয়েছে গ্রহাণু এবং ধূমকেতু। পৃথিবীর কক্ষপথের ৫০ মিলিয়ন কিলোমিটারের মধ্যে আসে এমন সবকিছুই নজরে রাখা হয়। বিজ্ঞানীদের অনুমান, কোটি কোটি গ্রহাণু এবং ধূমকেতু আমাদের সূর্যকে প্রদক্ষিণ করছে।

 

জ্যোতির্বিজ্ঞানের পরিমাপে 'সন্নিকটস্থ'

আমাদের প্রাত্যহিক জীবনের সঙ্গে এই স্কেল গুলিয়ে ফেললে চলবে না। জ্যোতির্বিজ্ঞানের ক্ষেত্রে 'কাছাকাছির' পরিমাপ কিন্তু অনেকটাই বেশি। পৃথিবী থেকে ১৯.৪ কোটি কিলোমিটার দূরত্ব পর্যন্ত যে কোনও গ্রহাণু বা অন্যান্য ছোট সৌরজাগতিক বস্তুকে পৃথিবীর নিকটবর্তী বস্তু হিসাবে বিবেচনা করা হয়।

বন্ধ করুন