বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > দেখা মিল্ল না বিরোধী ঐক্যের, উত্তরপ্রদেশের পিচে একাই খেলতে চান মায়াবতী!
বিএসপি নেত্রী মায়াবতী (ফাইল ছবি: পিটিআই) (HT_PRINT)
বিএসপি নেত্রী মায়াবতী (ফাইল ছবি: পিটিআই) (HT_PRINT)

দেখা মিল্ল না বিরোধী ঐক্যের, উত্তরপ্রদেশের পিচে একাই খেলতে চান মায়াবতী!

  • ২০২৪ এর আগে সবথেকে বড় পরীক্ষা ২০২২-এ উত্তরপ্রদেশ। সেখানেই দেখা মিল্ল না বিরোধী ঐক্যের।

২০২৪-এ বিজেপিকে ঠেকাতে বিরোধী ঐক্যের পরিসর তৈরি করার কাজ শুরু হয়ে গিয়েছে জাতীয় রাজনীতিতে। তবে ২০২৪ এর আগে সবথেকে বড় পরীক্ষা ২০২২-এ উত্তরপ্রদেশ। এখানে যোগীর গদি নড়াতে পারলে দিল্লি কেঁপে উঠবে, তা একপ্রকার নিশ্চিত। তবে উত্তরপ্রদেশে বিজেপিকে ঠেকাতে ঐক্যবদ্ধ হতে পারবেন বিরোধীরা? এটাই রাজনৈতিক মহলে সবথেকে বড় প্রশ্ন ছিল। এবং এই প্রশ্নের জবাব দিয়ে দিলেন বিএসপি নেত্রী মায়াবতী। তিনি জানিয়েছেন, পাঞ্জাব ছাড়া উত্তরপ্রদেশ ও উত্তরাখণ্ডে আগামী বছরের বিধানসভা নির্বাচনে তাঁর দল কারও সঙ্গে জোট বেঁধে লড়বে না।

প্রসঙ্গত, ২০১৯ সালে সপা-বিএসপি জোট চূড়ান্ত ফ্লপ করার পর থেকেই বহু বিএসপি নেতা যোগ দিয়েছেন সমাজবাদী পার্টিতে। এই আবহে কয়েকদিন আগে সমাজবাদী পার্টির নেতা অখিলেশ যাদব জানিয়েছিলেন যে কংগ্রেস বা বিএসপি-র সঙ্গে ২০২২-এর নির্বাচনে জোট গড়বে না তাঁর দল। এরপর বিএসপি-র টিকিটে জেতা ৯ জন বিধায়ক অখিলেশ যাদবের সঙ্গে দেখা করে দলবদল করার আগ্রহ প্রকাশ করেন বলে জানা গিয়েছে।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের বিধানসভা নির্বাচনে ১৯টি আসনে জিতেছিল বিএসপি। উপনির্বাচনে পরাজিত হয়েছিল একটি আসনে। তার পর থেকে ১১ জনকে বহিষ্কার করেছে বিএসপি। এর জেরে বর্তমানে বিএসপি-র বিধায়ক সংখ্যা মাত্র ৭। এদিকে ২০১৭ সালে বিজেপি বিপুল ভোটে জয়ী হয়ে সরকার গড়ায় ক্ষমতা হারান অখিলেশ যাদব। মুখ্যমন্ত্রীর আসনে বসেন যোগী আদিত্যনাথ। তাই আসন্ন নির্বাচনে বিজেপির প্রতিপক্ষ হিসেবে প্রধান মুখ হয়ে উঠতে চাইছেন অখিলেশ। আপাতত খুবই নড়বড়ে অবস্থা বিএসপি-র।

বন্ধ করুন