বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > পাকিস্তানি স্লোগানের বিরোধিতা করায় প্রাণনাশের হুমকি পেলেন কাশ্মীরের হবু ডাক্তার!
ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ চলাকালীন, ছবি সৌজন্যে টুইটার
ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ চলাকালীন, ছবি সৌজন্যে টুইটার

পাকিস্তানি স্লোগানের বিরোধিতা করায় প্রাণনাশের হুমকি পেলেন কাশ্মীরের হবু ডাক্তার!

  • পাকিস্তানপন্থী স্লোগানে আপত্তি জানানোর জন্য নাকি অনন্যা জামওয়াল নামক এক ডাক্তারি পড়ুয়াকে প্রাণনাশের হুমকি দেওয়া হচ্ছে কাশ্মীরে।

অনন্যা জামওয়াল নামক শ্রীনগরের এক মেডিকেল ছাত্রী দাবি করলেন যে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ম্যাচে ভারতের বিরুদ্ধে পাকিস্তানের জয়ের পরে তাঁর কলেজে কিছু পড়ুয়া পাকিস্তানপন্থী স্লোগান তুলায় তিনি তার বিরোধিতা করেছিলেন। পাকপন্থী স্লোগানে আপত্তি জানানোর জন্য নাকি তাই এখন তাঁকে প্রাণনাশের হুমকি দেওয়া হচ্ছে।

এর প্রেক্ষিতে আবদুল্লা গাজি নামক এখজন টুইটারে লেখে, 'এসকেআইএমএস-এর পুড়ায়দের বিরুদ্ধে এফআইআর এবং এইএপিএ-এর পিছনে পুলিশের ইনফর্মার এবং প্রধান অপরাধী আরএসএস সদস্য এবং কর্মী অনন্যা জামওয়াল। তিনি একজন বহিরাগত ডোগরা। তিনি বর্তমানে সেই কলেজ থেকে তাঁর মেডিকেল কোর্স করছেন। অন্যান্য আরএসএস কর্মীদের সাথে সংঘান স্থানীয় কাশ্মীরি ছাত্রদের বিরুদ্ধে ব্যাপক প্রচার চালাচ্ছে এবং তাদের জেল ও এনকাউন্টার করার হুমকি দিচ্ছে।' পাশাপাশি আরও অনেকে টুইট করে অনন্যার দিকে আঙুল তোলে।

এর জবাবে অবশ্য অনন্যা টুইট করে দাবি করেন, 'যখন পাকিস্তানের জয়ের উদযাপন করা বিশ্বাসঘাতকদের পর্দা ফাঁস হয়ে গেল, যারা বিশ্বাসঘাতকদের সমর্থন করছিল তাঁদের পাল্টা জবাব দিয়েছিলাম। তারপরই তারা সবাই আমাকে বিভিন্নভাবে হয়রানি করতে লাগল। আমি কেবল তাদের প্রতিহত করেছি। আমি কাউকে ফাঁসাইনি এবং আমি কোনও পুলিশ ইনফর্মারও নই। তারা নিজেরাই নিজেদের পর্দা ফাঁস করেছে।'

উল্লেখ্য, টি-২০ বিশ্বকাপে ভারতের বিরুদ্ধে পাকিস্তান জেতায় উল্লাস করতে দেখা গিয়েছিল হবু চিকিত্সকদের। আর তাই বেআইনি কার্যকলাপ প্রতিরোধ আইন বা ইউএপিএ ধারায় মামলা রুজু করা হয়েছে কাশ্মীরের দুটি মেডিক্যাল কলেজের পড়ুয়াদের বিরুদ্ধে। জানা গিয়েছে দুটি পৃথক ঘটনার প্রেক্ষিতে দুটি মামলা রুজু করে কাশ্মীর পুলিশ। দুটি মেডিক্যাল কলেজের হোস্টেলে বসাবসরত পড়ুয়াদের নামে মামলাটি রুজু হয়েছে।

বন্ধ করুন