বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > চিনের মেডিকেল কোর্সে ভর্তির নামে আর্থিক প্রতারণা,অথৈ জলে ব্যারাকপুরের যুবক

চিনের মেডিকেল কোর্সে ভর্তির নামে আর্থিক প্রতারণা,অথৈ জলে ব্যারাকপুরের যুবক

চিনে মেডিকেল কোর্সে ভর্তি করিয়ে দেওয়ার নাম করে আর্থিক প্রতারণার অভিযোগ একটি কনসালটেন্সি ফার্মের বিরুদ্ধে। প্রতীকী ছবি। (HT_PRINT)

বর্তমানে ওই ফার্মটি সেক্টর ফাইভে চলে গিয়েছে। বার বার বলার পরে ২০২১ সালের ২০ অক্টোবর ৩.৮ লাখ টাকার চেক ফেরৎ দেওয়া হয়। কিন্তু সেই চেকও বাউন্স করে। পরে সেক্টর ফাইভের অফিসেরও ঝাঁপ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ।

চিনে মেডিকেল কোর্সে ভর্তি করিয়ে দেওয়ার নাম করে আর্থিক প্রতারণার অভিযোগ একটি কনসালটেন্সি ফার্মের বিরুদ্ধে। ৪.৯ লাখ টাকা প্রতারণার অভিযোগ। প্রাক্তন এক সার্ভিসম্যানের ছেলে ইউক্রেনের মেডিক্যাল স্টুডেন্ট। তাকে চিনের মেডিক্য়াল কোর্সে ভর্তি করিয়ে দেওয়ার কথা বলে এই আর্থিক প্রতারণা করা হয়েছে বলে অভিযোগ। পুলিশের কাছে এনিয়ে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

তরিৎ কুমার দাস নামে ওই পড়ুয়ার বাবা সংবাদ মাধ্যমে জানিয়েছেন, চিনের বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির জন্য টাকাও দিয়েছিলাম। তারপর জানা যায় সে সিলেক্টেড হয়নি। এরপর চন্ডীগড়ের অপর ফার্মের সঙ্গে যোগাযোগ করি। সেখান থেকে ইউক্রেনে ছেলেকে ভর্তি করা হয়েছে। ওই ব্যক্তির দাবি সেমেস্টারের ফি দিতে পারছি না। চিনের বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য় জমা দেওয়া টাকা ফেরৎ দেওয়ার আবেদন জানাচ্ছি।

ব্যারাকপুরের ওই বাসিন্দার দাবি, লিফলেটের মাধ্যমে সংস্থার ব্যাপারে জানতে পারি। ৬০ হাজার টাকা নগদ ও বাকিটা ব্যাঙ্ক ট্রান্সফারের মাধ্যমে দিয়েছি। ২০২১ সালের ফেব্রুয়ারিতে টাকা দেওয়া হয়। তারা জানিয়েছিল ফ্লাইট চালু হলেই ছেলে বিশ্ববিদ্যালয়ে যেতে পারবে। কিন্তু পরে জানা যায় সে ভর্তিই হতে পারেনি।

এদিকে বর্তমানে ওই ফার্মটি সেক্টর ফাইভে চলে গিয়েছে। বার বার বলার পরে ২০২১ সালের ২০ অক্টোবর ৩.৮ লাখ টাকার চেক ফেরৎ দেওয়া হয়। কিন্তু সেই চেকও বাউন্স করে। পরে সেক্টর ফাইভের অফিসেরও ঝাঁপ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ।

 

বন্ধ করুন