বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ভাঙল ২৬ বছরের রেকর্ড, তাপমাত্রা ৪০.৭ ডিগ্রি, শুক্রবারের পর ঢাকায় কালবৈশাখীর সম্ভাবনা
ভাঙল ২৬ বছরের রেকর্ড, পার৪০.৭ ডিগ্রি, শুক্রবারের পর কালবৈশাখীর সম্ভাবনা। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
ভাঙল ২৬ বছরের রেকর্ড, পার৪০.৭ ডিগ্রি, শুক্রবারের পর কালবৈশাখীর সম্ভাবনা। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)

ভাঙল ২৬ বছরের রেকর্ড, তাপমাত্রা ৪০.৭ ডিগ্রি, শুক্রবারের পর ঢাকায় কালবৈশাখীর সম্ভাবনা

  • গত ২ দিন ধরে রাজধানীর তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রির আশেপাশেই ছিল।

গ্রীষ্মের দাবদাহে পুড়ছে ঢাকা।গরম এতটাই যা ২৬ বছরে দেখেনি ঢাকার মানুষ। আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর, ঢাকায় মঙ্গলবার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৪০.‌৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এর আগে, ১৯৯৫ সালে ঢাকায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা উঠেছিল ৩৯ ডিগ্রি সেলসিয়েসে। এবার সেই তাপমাত্রার রেকর্ডও অতিক্রম করে ৪০ ডিগ্রি ছুঁল বাংলাদেশের রাজধানীতে। তবে এখনই আবহাওয়ার খুব একটা বেশি পরিবর্তন হবে না। আগামী ৩০ এপ্রিলের (শুক্রবার) পর বাংলাদেশে কালবৈশাখী ঝড় আসতে পারে বলে আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর।

গত দু' দিন ধরে রাজধানীর তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রির আশেপাশেই ছিল। মঙ্গলবার গরমের তীব্রতা এতটাই ছিল যে ঢাকায় একজন রিকশা চালকের মৃত্যু হয়েছে। ঢাকা ছাড়াও রাজশাহী, যশোর, কুষ্টিয়া, খুলনা এলাকায় তীব্র তাপপ্রবাহ হয়।তবে চট্টগ্রাম, ময়মনসিং, রংপুর, সিলেট এলাকায় তাপমাত্রা কিছুটা হলেও কম। রাতের মধ্যে সিলেট, ময়মনসিংয়ের অনেক জায়গায় দমকা হাওয়া সহ বৃষ্টি হতে পারে।ফলে তাপমাত্রা ওই এলাকায় আরও কমতে পারে।

আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস অনুযায়ী, বুধবার বেশিরভাগ এলাকায় মেঘের আনাগোনা বাড়তে পারে। আগামী শুক্রবার অর্থাৎ ৩০ এপ্রিল থেকে দেশের বিভিন্ন জায়গায় কালবৈশাখীর সম্ভাবনা দেখা দিতে পারে। তা আগামী রবিবার পর্যন্ত চলতে পারে।আবহাওয়াবিদ হাফিজুর রহমান বাংলাদেশের এক সংবাদ মাধ্যমকে জানান, গত এক সপ্তাহ ধরে যে তীব্র গরম ছিল, তা আগামিকাল থেকে কিছুটা হলেও কমতে শুরু করবে।

বন্ধ করুন