বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ঘটনাস্থলে কন্ডোম থাকলে প্রমাণ হয় না যে সম্মতির ভিত্তিতে যৌন সংসর্গ হয়েছে:আদালত
প্রতীকী ছবি
প্রতীকী ছবি

ঘটনাস্থলে কন্ডোম থাকলে প্রমাণ হয় না যে সম্মতির ভিত্তিতে যৌন সংসর্গ হয়েছে:আদালত

আদালতের তরফে জানানো হয়েছে, আবেদনকারীর জামিনের আবেদন মঞ্জুর করা হচ্ছে। যেহেতু তদন্ত প্রক্রিয়া শেষ হয়েছে ও চার্জশিট পেশ হয়ে গিয়েছে, তাই এই আবেদন মঞ্জুর করা হল।

ঘটনাস্থলে শুধুমাত্র কন্ডোম থাকলেই প্রমাণিত হয় না যে উভয়ের সম্মতিক্রমে যৌন সংসর্গ হয়েছে। সম্প্রতি এক ধর্ষণ মামলার রায় দিতে গিয়ে এই কথা জানিয়েছে মুম্বইয়ের নগর দায়রা আদালত।

মুম্বইয়ে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে এক বিবাহিত মহিলাকে ধর্ষণের অভিযোগ ওঠে। নির্যাতিতার স্বামীর থানায় অভিযোগের ভিত্তিতেই এফআইআর দায়ের করা হয়। ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হওয়ার পরই তিনি প্রথমে আদালতের কাছে জামিনের আবেদন জানান। কিন্তু তাঁর সেই আবেদন প্রথমে খারিজ হয়ে যায়। এরপর ফের জামিনের জন্য মুম্বইয়ের নগর দায়রা আদালতে আবেদন করেন অভিযুক্ত। সেই মামলার রায় দিতে গিয়ে নগর দায়রা আদালতের বিচারক সঞ্জশ্রী জে ঘারাট জানান, আবেদনকারীর প্রথম আবেদন খারিজের সিদ্ধান্ত ঠিকই ছিল। ঘটনাস্থলে কন্ডোম থাকা মানেই প্রমাণিত হয় না যে অভিযুক্তের সঙ্গে অভিযোগকারিণীর যৌন সংসর্গ পরস্পরের সম্মতিতে হয়েছিল। এমনটাও হতে পারে, পরবর্তীকালে যাতে কোনও অসুবিধার সম্মুখীন হতে না হয়, সেই কারণেও কন্ডোম রাখা হয়েছিল। একইসঙ্গে আদালতের তরফে জানানো হয়েছে, আবেদনকারীর জামিনের আবেদন মঞ্জুর করা হচ্ছে। যেহেতু তদন্ত প্রক্রিয়া শেষ হয়েছে ও চার্জশিট পেশ হয়ে গিয়েছে, তাই এই আবেদন মঞ্জুর করা হল।

এর আগে মামলাকারীর তরফে আদালতকে জানানো হয়েছিল, ঘটনার দিন ওই বাড়িতে তিনি একা ছিলেন না। আরও একজন ছিলেন। তৃতীয় একজন যেখানে হাজির ছিলেন, সেখানে কোনও অপরাধমূলক কাজ করা অসম্ভব। পাশাপাশি মামলাকারীর তরফে আরও জানানো হয়েছে, যেহেতু ঘটনাস্থল থেকে কন্ডোম পাওয়া গিয়েছে, তাই এটা ধারণাই করা যায় কোনও অসামাজিক কাজ হয়নি। যদিও মামলাকারীর যুক্তি আদালতের কাছে ধোপে টেকেনি। 

দেওয়া হয়।

বন্ধ করুন