বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > মোদীর যাত্রাপথে ‘অবরোধ’, ‘নিরাপত্তায় বড়সড় গলদে’ পঞ্জাবের রিপোর্ট তলব কেন্দ্রের
আটকে প্রধানমন্ত্রীর কনভয়। (ছবি সৌজন্য এএনআই)

মোদীর যাত্রাপথে ‘অবরোধ’, ‘নিরাপত্তায় বড়সড় গলদে’ পঞ্জাবের রিপোর্ট তলব কেন্দ্রের

  • পঞ্জাবে মোদীর যাত্রাপথে ‘অবরোধ’। ‘নিরাপত্তায় বড়সড় গলদে’ পঞ্জাবের রিপোর্ট তলব কেন্দ্রের।

পঞ্জাবে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর যাত্রাপথে অবরোধ করছিলেন কয়েকজন বিক্ষোভকারী। তার জেরে নির্দিষ্ট গন্তব্যস্থলে না গিয়েই মোদীকে ভাতিন্দা বিমানবন্দরে ফিরে আসতে হয়েছে। এমনই দাবি করল কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। যা প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তার ক্ষেত্রে বড়সড় গলদ বলে অভিযোগ করা হয়েছে। সেই ঘটনায় পঞ্জাব সরকারের থেকে রিপোর্ট তলব করেছে কেন্দ্র।  

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছে, আজ সকালে ভাতিন্দায় নামেন প্রধানমন্ত্রী। সেখান থেকে হেলিকপ্টারে ফিরোজপুর জেলার জাতীয় শহিদ মেমোরিয়ালে যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু বৃষ্টি এবং কম দৃশ্যমানতার কারণে তা সম্ভব হয়নি। ২০ মিনিটে অপেক্ষা করেও আবহাওয়ার উন্নতি না হওয়ায় মোদী সড়কপথে রওনা দেবেন বলে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। যে পথ যেতে দু'ঘণ্টার বেশি লাগবে। নিরাপত্তা সংক্রান্ত বিষয়ে আশ্বস্ত করেন পঞ্জাব পুলিশের ডিজি। কিন্তু জাতীয় শহিদ মেমোরিয়ালের ৩০ কিলোমিটার আগে একটি উড়ালপুলে দেখা যায়, রাস্তা আটকে রেখেছেন বিক্ষোভকারীরা। সেই উড়ালপুলে ১৫-২০ মিনিট আটকে ছিল প্রধানমন্ত্রীর কনভয়। যা প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তার ক্ষেত্রে বড়সড় গলদ।

বুধবার দুপুরের দিকে পঞ্জাবের ফিরোজপুরের জনসভার মঞ্চ থেকে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী মনসুখ মাণ্ডবিয়া জানান, 'কোনও কারণে' আজ আসতে পারছেন না মোদী। তবে তিনি কোনও কারণ স্পষ্ট করেননি। কিছুক্ষণ পরেই অমিত শাহের মন্ত্রকের তরফে প্রধানমন্ত্রীর ‘নিরাপত্তায় বড়সড় গলদের’ অভিযোগ করা হয়। একটি বিবৃতিতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছে, আগেভাগেই পঞ্জাব সরকারকে প্রধানমন্ত্রীর সূচির বিষয়ে জানানো হয়েছিল। নিয়ম মোতাবেক, পঞ্জাব সরকারকে যাবতীয় বন্দোবস্ত করতে হয়। বিকল্প পরিকল্পনাও তৈরি রাখতে হয় রাজ্য সরকারকে। সড়কপথে যাওয়ার জন্য বাড়তি নিরাপত্তা বাহিনী মোতায়েন করতে হয়। কিন্তু তা স্পষ্টত করা হয়নি। সেই পরিস্থিতিতে পুরো বিষয়টি ‘গুরুতরভাবে’ দেখা হচ্ছে। রাজ্য সরকারের থেকে বিস্তারিত রিপোর্ট তলব করা হয়েছে। ‘নিরাপত্তায় বড়সড় গলদের’ জন্য কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ারও নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্র। তারইমধ্যে ফিরোজপুরের সভায় না গিয়ে ভাতিন্দা বিমানবন্দরে ফিরে আসেন মোদী। 

বন্ধ করুন