বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > আধাসামরিক বাহিনীতে তৃতীয় লিঙ্গের নিয়োগ সম্পর্কে মতামত চেয়ে কর্তৃপক্ষকে চিঠি কেন্দ্রের
আধাসামরিক বাহিনীতে তৃতীয় লিঙ্গের অন্তর্ভুক্তি সম্পর্কে কর্তৃপক্ষের মতামত জানতে চাইল কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক।
আধাসামরিক বাহিনীতে তৃতীয় লিঙ্গের অন্তর্ভুক্তি সম্পর্কে কর্তৃপক্ষের মতামত জানতে চাইল কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক।

আধাসামরিক বাহিনীতে তৃতীয় লিঙ্গের নিয়োগ সম্পর্কে মতামত চেয়ে কর্তৃপক্ষকে চিঠি কেন্দ্রের

  • অ্যাসিস্ট্যান্ট কম্যান্ডান্ট পদের জন্য আসন্ন এসি পরীক্ষায় তৃতীয় লিঙ্গের প্রতিনিধিদের অংশগ্রহণ নিয়ে বাহিনীর মত জানতে চাইল স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক।

লিঙ্গসাম্যের পথে গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ কেন্দ্রের। কেন্দ্রীয় আধাসামরিক বাহিনীতে তৃতীয় লিঙ্গের অন্তর্ভুক্তি সম্পর্কে কর্তৃপক্ষের মতামত জানতে চাইল কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক।

বুধবার সিআরপিএফ, আইটিবিপি, সশস্ত্র সীমা বল (এসএসবি) ও সিআইএসএফ বাহিনীর উদ্দেশে চিঠিতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফে জানতে চাওয়া হয়েছে, অ্যাসিস্ট্যান্ট কম্যান্ডান্ট পদের জন্য আসন্ন এসি পরীক্ষায় তৃতীয় লিঙ্গের প্রতিনিধিদের অংশগ্রহণ নিয়ে বাহিনীর কী মত। 

আগামী ডিসেম্বর মাসে অনুষ্ঠিত হতে চলেছে গ্রেড এ অফিসার অ্যাসিস্ট্যান্ট কম্যান্ডান্ট বাছাইয়ের বার্ষিক পরীক্ষা। আধাসামরিক বাহিনীগুলির সম্মতি পেলে তার উপরে মন্তব্য করে পাঠানো হবে UPSC-তে, যার ভিত্তিতে পরীক্ষার আবেদনপত্রে তৃতীয় লিঙ্গের লউল্লেখ রাখা হবে।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের কাছে থাকা পরিসংখ্যান অনুযায়ী বর্তমানে ৭,৫৮৯ জন অ্যাসিস্ট্যান্ট কম্যান্ডান্ট (এসি) রয়েছেন আধাসামরিক বাহিনীতে। এর মধ্যে সর্বোচ্চ সিআরপিএফ-এ ৩,০৫৪, বিএসএফ-এ ১,৮৮৮, আইটিবিপি-তে ৭১৬, সিআইএসএফ-এ ৭২৫ এবং এসএসবি-তে ৫৪২ জন এসি রয়েছেন।

কেন্দ্রীয় পদক্ষেপ সম্পর্কে ওয়াকিবহাল মহলের দাবি, তৃতীয় লিঙ্গকে আধাসামরিক বাহিনীতে শামিল করার উদ্দেশে প্রথমে অফিসার পদ ছাড়াও জওয়ান, সাব-ইন্সপেক্টর ইত্যাদি দায়িত্বে সরাসরি বাহিনী ও এসএসসি মারফৎ নিয়োগ করতে চাইছে কেন্দ্র। যদিও বর্তমানে ভারতীয় সেনা ও আধাসামরিক বাহিনীতে তৃতীয় লিঙ্গের অন্তর্ভুক্তি ঘটেনি।

প্রসঙ্গত ২০১৯ সালের ডিসেম্বর মাসে পাশ হয় রূপান্তরকামী ব্যক্তি (নুরক্ষা ও অধিকার) বিল। এই আইনে কোনও প্রতিষ্ঠান কর্মসংস্থান, নিয়োগ, পদোন্নতি ইত্যাদি বিষয়ে তৃতীয় লিঙ্গের বিরুদ্ধে বৈষম্যমূলক আচরণ করলে তা শাস্তিযোগ্য অপরাধ হিসেবে গণ্য করা হবে। পাশাপাশি, ওই আইনে প্রতিটি সংস্থায় এই বিষয়ে অভিযোগ জানানোর ব্যবস্থা করা এবং তৃতীয় লিঙ্গের জন্য জাতীয় কাউন্সিল গড়ার নির্দেশও দেওয়া হয়েছে।

 

বন্ধ করুন