বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ৫ রাজ্যে অ-মুসলিমদের নাগরিকত্ব দেওয়ার সঙ্গে CAA-র যোগ নেই : কেন্দ্র
কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ (ছবি সৌজন্যে পিটিআই) (PTI)
কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ (ছবি সৌজন্যে পিটিআই) (PTI)

৫ রাজ্যে অ-মুসলিমদের নাগরিকত্ব দেওয়ার সঙ্গে CAA-র যোগ নেই : কেন্দ্র

  • গত ২৮ মে একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করে ৫ রাজ্যের ১৩ জেলায় প্রতিবেশী দেশগুলি থেকে আসা অ-মুসলিমদের নাগরিকত্ব দেওয়ার কথা জানায় কেন্দ্র।

গত ২৮ মে একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করে ৫ রাজ্যের ১৩ জেলায় প্রতিবেশী দেশগুলি থেকে আসা অ-মুসলিমদের নাগরিকত্ব দেওয়ার কথা জানায় কেন্দ্র। সেই বিজ্ঞপ্তি নিয়ে বিরোধীরা তোপ দাগতে শুরু করে। সেই বিতর্ক প্রসঙ্গে এবার সুপ্রিমকোর্টে কেন্দ্র হলফনামা দিয়ে জানাল, সেই বিজ্ঞপ্তির সঙ্গে সিএএ-র কোনও সম্পর্ক নেই।

সুপ্রিমকোর্টে জমা দেওয়া হলফনামায় কেন্দ্র বলে, '২০২১ সালের ২৮ মে জারি করা বিজ্ঞপ্তির সঙ্গে সিএএ-র সঙ্গে যোগ নেই। এর আগে কেন্দ্রীয় সরকার ২০০৪, ২০০৬, ২০১৬, ২০১৮ সালেও একই ধরনের বিজ্ঞপ্তি জারি করেছিল।' উল্লেখ্য, কেরলের ইন্ডিয়ান ইউনিয়ন মুসলিম লিগ এই বিজ্ঞপ্তির বিরোধিতায় সুপ্রিমকোর্টে একটি মামলা দায়ের করে। সেই মামলার প্রেক্ষিতে শুনানিতেই এই দাবি করে কেন্দ্র।

প্রসঙ্গত, ২৮ মে একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করে কেন্দ্র জানায়, দেশের পাঁচ রাজ্যের ১৩টি জেলায় পাকিস্তান, বাংলাদেশ, আফগানিস্তান থেকে আগত হিন্দু, শিখ, বৌদ্ধ, জৈন, পার্সি এবং খ্রিস্টানদের নাগরিকত্ব দেওয়া হবে। নাগরিকত্ব আইন, ১৯৫৫ এবং নাগরিকত্ব নিয়ম, ২০০৯ সালের অধীনে এই বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়। গুজরাত, ছত্তিশগড়, রাজস্থান, হরিয়ানা এবং পঞ্জাবের ১৩টি জেলায় এই নাগরিকত্বের আবেদন জানাতে পারবেন প্রতিবেশী দেশ থেকে আসা শরণার্থীরা।

কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে জানানো হয়েছে, মোরবি, রাজকোট, পাটান এবং বদোদরা (গুজরাত); দুর্গ এবং বালোদবাজার (ছত্তিশগড়); জালোর, উদয়পুর, পালি, বার্মার এবং সিরোহি (রাজস্থান); ফরিদাবাদ (হরিয়ানা); এবং জলন্ধর (পঞ্জাব)-এ পাকিস্তান, বাংলাদেশ, আফগানিস্তান থেকে আগত হিন্দু, শিখ, বৌদ্ধ, জৈন, পার্সি এবং খ্রিস্টানরা নাগরিকত্বের আবেদন জানাতে পারবেন। সেই আবেদন জেলার কালেক্টর খতিয়ে দেখবেন বলে জানানো হয়েছে বিজ্ঞপ্তিতে।

 

বন্ধ করুন