বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > আলফার সঙ্গে শান্তি আলোচনার জন্য মাঝামাঝি কোনও পথ খুঁজতেই হবে: হিমন্ত বিশ্বশর্মা
অসমে অশান্তি এড়াতে যথেষ্ট তৎপর নিরাপত্তা এজেন্সি (প্রতীকী ছবি)
অসমে অশান্তি এড়াতে যথেষ্ট তৎপর নিরাপত্তা এজেন্সি (প্রতীকী ছবি)

আলফার সঙ্গে শান্তি আলোচনার জন্য মাঝামাঝি কোনও পথ খুঁজতেই হবে: হিমন্ত বিশ্বশর্মা

  • সাংবিধানিক প্রতিনিধি হিসাবে আমরা যাঁরা শপথ নিয়েছি দেশের সংবিধান ও দেশের সার্বভৌমত্বকে রক্ষা করার তাঁরা এই বিষয় নিয়ে আলোচনায় বসতে পারি না।

ইউনাইটেড লিবারেশন ফ্রন্ট অফ অসম ইন্ডিপেন্ডেন্টের(আলফা-১) সঙ্গে শান্তি আলোচনার জন্য মধ্যম পন্থা খুঁজতেই হবে। জানিয়েছেন অসমের মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা। এদিকে আলফার একটি গোষ্ঠী ইতিমধ্যেই অস্ত্র ছেড়ে কেন্দ্রের সঙ্গে আলোচনায় রাজি, অন্যদিকে পরেশ বড়ুয়ার নেতৃত্বে সংগঠনের অপর অংশ আত্মসমর্পন করতে রাজি নয়। মুখ্যমন্ত্রী সাংবাদিক বৈঠকে জানিয়েছেন, ‘আলফা-১ নির্দিষ্টভাবে জানিয়ে দিয়েছে ভারত সরকার যতক্ষণ না সার্বভৌমত্বের প্রশ্নে আলোচনা করতে রাজি না হচ্ছে ততক্ষণ তারা আলোচনায় বসতে চাইছেন না। কিন্তু সাংবিধানিক প্রতিনিধি হিসাবে আমরা যাঁরা শপথ নিয়েছি দেশের সংবিধান ও দেশের সার্বভৌমত্বকে রক্ষা করার, তাঁরা এই বিষয় নিয়ে আলোচনায় বসতে পারি না। ’

‘সেক্ষেত্রে সমস্যা মেটানোর জন্য মাঝামাঝি কোনও পথ খুঁজতেই হবে। আলফা-১ ও সরকারের মধ্যে কথাবার্তা বলার জন্য সরকারের গণ্ডির বাইরে কোনও মধ্যস্থতাকারীর সহায়তা নেওয়া যেতে পারে। আসলে কথা তখনই হতে পারে যখন আমরা একটা মাঝামাঝি পথ খুঁজে পাব।’ জানিয়েছেন অসমের মুখ্যমন্ত্রী।তবে অস্ত্র ছেড়ে আলোচনায় বসার জন্য অসমের মুখ্যমন্ত্রী বারবারই পরেশ বড়ুয়াকে বার্তা দিয়েছেন। চলতি বছরের মে মাসে ওএনজিসিতে কর্মরত এক অপহৃতকে মুক্তি দেওয়ার জন্যও তিনি আলফার কমান্ডার ইন চিফকে আবেদন করেছিলেন। তবে এই নিষিদ্ধ গোষ্ঠী অতিমারি পরিস্থিতির জন্য মে মাস থেকে তিনমাসের অস্ত্রবিরতি ঘোষণা করেছে। 

 

বন্ধ করুন