বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > MiG-21 Crash: পাইলটের দেহ আনতে আসছিলেন পরিবার, বিমানে 'লজ্জাজনক' অভিজ্ঞতা

MiG-21 Crash: পাইলটের দেহ আনতে আসছিলেন পরিবার, বিমানে 'লজ্জাজনক' অভিজ্ঞতা

প্রয়াত উইং কমান্ডার এম রানা ও ও ফ্লাইট লেফটেনান্ট আদিত্য বাল (ANI Photo/ANI Pic Service) (ANI)

তিনি লিখেছেন, আমি ও কয়েকজন চিৎকার করে তাঁদের বসতে বলি। এরকম স্বার্থপর স্বভাব দেখে আমি শিউরে উঠেছি। এটাই হচ্ছে আত্মবলিদানকারীদের প্রতি আমাদের শ্রদ্ধার বাস্তব ছবি।

অনিরুদ্ধ ধর

বৃহস্পতিবার রাতে রাজস্থানে মিগ ২১ এর প্রশিক্ষক বিমানে মর্মান্তিক দুর্ঘটনা। মৃত্যু হয়েছিল বায়ুসেনার দুই পাইলটের। উইং কমান্ডার এম রানা ও ও ফ্লাইট লেফটেনান্ট আদিত্য বাল। এম রানা ছিলেন হিমাচল প্রদেশের বাসিন্দা। আর ফ্লাইট লেফটেনান্ট আদিত্য বাল ছিলেন জম্মু বাসিন্দা।

শুক্রবার প্রয়াত ফ্লাইট লেফটেনান্ট আদিত্য বালের পরিবার রাজস্থানে পৌঁছন। দেহ নিতেই তাঁরা রাজস্থানে যান। সেই বিমানেরই যাত্রী ছিলেন শেরবীর পনাগ বলে এক আইনজীবী। তিনি মডেল গুল পনাগের দাদা। তাঁর বাবা এইচএস পনাগ প্রাক্তন লেফটেনান্ট জেনারেল। শেরবীর টুইট করে এক হৃদয়বিদারক ঘটনার কথা তুলে ধরেছেন ।

 

তিনি লিখেছেন, দিল্লি থেকে যোধপুরগামী ইন্ডিগোর বিমানে ছিলাম। ফ্লাইট লেফটেনান্ট আদিত্য বালের পরিবারে তিন নম্বর সারিতে আমার পাশেই বসেছিলেন। ফ্লাইট অবতরণের পরে ক্যাপ্টেন অনুরোধ করেন ফ্লাইট লেফটেনান্ট আদিত্য বালের পরিবার যাতে বিমান থেকে আগে নামতে পারেন সেজন্য় সকলে একটু বসে অপেক্ষা করুন। কিন্তু ১ ও ২ নম্বর সারির কেউই সেকথা মানতে চাননি। সকলেই উঠে এগোতে শুরু করেন।

তিনি লিখেছেন, আমি ও কয়েকজন চিৎকার করে তাঁদের বসতে বলি। এরকম স্বার্থপর স্বভাব দেখে আমি শিউরে উঠেছি। এটাই হচ্ছে আত্মবলিদানকারীদের প্রতি আমাদের শ্রদ্ধার বাস্তব ছবি।

বন্ধ করুন