বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > প্রবল তুষারপাতে সিকিমে আটকে থাকা পর্যটকদের উদ্ধার করলেন সেনা জওয়ানরা
প্রবল তুষারপাতে সিকিমে আটকে থাকা পর্যটকদের উদ্ধার করলেন সেনা জওয়ানরা। (ছবিটি প্রতিকী সৌজন্য পিটিআই)
প্রবল তুষারপাতে সিকিমে আটকে থাকা পর্যটকদের উদ্ধার করলেন সেনা জওয়ানরা। (ছবিটি প্রতিকী সৌজন্য পিটিআই)

প্রবল তুষারপাতে সিকিমে আটকে থাকা পর্যটকদের উদ্ধার করলেন সেনা জওয়ানরা

  • সিকিমে প্রবল তুষারপাতে আটকে পড়া পর্যটকদের উদ্ধার করলেন সেনা জওয়ানরা। শনিবার রাত অবধি চলে উদ্ধার কার্য। উদ্ধারের পর শনিবার রাতে পর্যটকদের সেনাছাউনিতে থাকার ব্যবস্থা করে সেনাবাহিনী।

সিকিমে প্রবল তুষারপাতে আটকে পড়া পর্যটকদের উদ্ধার করলেন সেনা জওয়ানরা। শনিবার রাত অবধি চলে উদ্ধার কার্য। উদ্ধারের পর শনিবার রাতে পর্যটকদের সেনাছাউনিতে থাকার ব্যবস্থা করে সেনাবাহিনী। সেখানেই চিকিৎসা চলেছে অসুস্থ পর্যটকদের।

গত কয়েকদিন ধরেই ব্যাপক তুষারপাত চলছিল সিকিমের নাথুলা, লাচেন, ছাঙ্গু প্রভৃতি এলাকায়। বড়দিনের ছুটি তার ওপর তুষারপাতের মতো মনোরম দৃশ্য উপভোগ করার ইচ্ছা কার না থাকে। এই মনোরম দৃশ্য উপভোগ করতেই সেখানে গিয়েছিলেন হাজার হাজার পর্যটক। ব্যাপক তুষারপাতের ফলে রাস্তা কয়েক মিটার পুরু বরফের চাদরে ঢেকে যায়। এর জেরে যানচলাচল ব্যাপকভাবে ব্যাহত হয়। প্রশাসনিক সূত্রে খবর, প্রায় ২৭৫টি পর্যটক বোঝাই গাড়ি ছাঙ্গুতে আটকে পড়েছিল। বেড়াতে গিয়ে এরকম পরিস্থিতির সম্মুখীন হওয়ায় স্বাভাবিকভাবেই আতঙ্কিত হয়ে পড়েন পর্যটকরা।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাওয়ায় সেনা জওয়ানদের সাহায্য নেয় প্রশাসন। জানা যাচ্ছে, শনিবার থেকেই পর্যটকদের উদ্ধারকার্য চালান সেনা জওয়ানরা। শনিবার রাত পর্যন্ত সেখানে আটকে থাকা প্রায় দেড় হাজার পর্যটককে নিরাপদে উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে।

প্রশাসনিক সূত্রে জানা যাচ্ছে, আবহাওয়া পরিষ্কার এবং রাস্তা থেকে বরফ পরিষ্কার না হওয়া পর্যন্ত পর্যটকদের গ্যাংটকে ফেরানো সম্ভব নয়। তবে বর্তমানে পর্যটকরা নিরাপদে রয়েছেন বলেই সিকিম প্রশাসন জানিয়েছে। প্রতিনিয়ত তাদের খোঁজ নিচ্ছে সিকিম প্রশাসন। গ্যাংটকে না ফেরানো পর্যন্ত আপাতত পর্যটকরা সেনা ছাউনিতে থাকবেন বলে জানা যাচ্ছে।

এ বিষয়ে হিমালয়ান হসপিটালিটি এণ্ড ট্যুরিজম ডেভলোপমেন্ট নেটওয়ার্কের সাধারণ সম্পাদক সম্রাট সান্যাল জানান, ব্যাপক তুষারপাতের ফলে এই সমস্যা হয়েছে। তবে সমস্ত পর্যটকদের নিরাপদে উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে। আবহাওয়া পরিষ্কার হলে পর্যটকদের ফেরানো হবে।

বন্ধ করুন