বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > নাম পালটে হল ‘ইলন মাস্ক’, ‘হ্যাকারদের' কবলে পড়ল IB মন্ত্রকের টুইটার অ্যাকাউন্ট
বুধবার সকালের দিকে নেটিজেনরা দাবি করতে থাকেন, কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রকের টুইটার অ্যাকাউন্টের (@MIB_India) নাম পালটে ‘ইলন মাস্ক’ রাখা হয়েছে। (ছবি সৌজন্যে, টুইটার এবং রয়টার্স)
বুধবার সকালের দিকে নেটিজেনরা দাবি করতে থাকেন, কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রকের টুইটার অ্যাকাউন্টের (@MIB_India) নাম পালটে ‘ইলন মাস্ক’ রাখা হয়েছে। (ছবি সৌজন্যে, টুইটার এবং রয়টার্স)

নাম পালটে হল ‘ইলন মাস্ক’, ‘হ্যাকারদের' কবলে পড়ল IB মন্ত্রকের টুইটার অ্যাকাউন্ট

  • বুধবার সকালের দিকে নেটিজেনরা দাবি করতে থাকেন, কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রকের টুইটার অ্যাকাউন্টের (@MIB_India) নাম পালটে ‘ইলন মাস্ক’ রাখা হয়েছে।

'ফিরে এসেছে অ্যাকাউন্ট'। বুধবার সকালে নিজেদের টুইটার অ্যাকাউন্ট ‘হ্যাকারদের' কবলে পড়ার কিছুক্ষণ পর এমনটাই জানাল কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রক। বিষয়টি নিয়ে অবশ্য কেন্দ্রের তরফে বিস্তারিতভাবে কিছু জানানো হয়নি।

বুধবার সকালের দিকে নেটিজেনরা দাবি করতে থাকেন, কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রকের টুইটার অ্যাকাউন্টের (@MIB_India) নাম পালটে ‘ইলন মাস্ক’ রাখা হয়েছে। আদতে যে অ্যাকাউন্টের নাম 'Ministry of Information and Broadcasting'। অনেকেই সেই ‘ইলন মাস্ক’ নাম লেখা টুইটার অ্যাকান্টের স্ক্রিনশট তুলে রাখেন। তা সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ে। অনেকেই দাবি করেন, তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রকের হ্যান্ডেল থেকে কয়েকটি টুইটও করা হয়েছে। তাতে লেখা ছিল, ‘দারুণ কাজ।’ সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়া স্ক্রিনশটে (সত্যতা যাচাই করেনি হিন্দুস্তান টাইমস বাংলা) দেখা গিয়েছে, ‘দুর্দান্ত’ লেখা টুইট করা হয়েছে @MIB_India হ্যান্ডেল থেকে। সেই পরিস্থিতিতে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রকের টুইটার অ্যাকাউন্ট হ্যাক করা হয়েছে বলে দাবি করতে থাকেন অনেকে।

বিষয়টি নিয়ে শোরগোলের মধ্যে পরে কার্যত সেই দাবি স্বীকার করে নেয় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রক। সরাসরি হ্যাকিংয়ের বিষয়ে কোনও শব্দ উচ্চারণ না করলেও সকাল ১০ টা ১১ মিনিটে @MIB_India হ্যান্ডেলে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রকের তরফে বলা হয়, ‘ফিরে এসেছে অ্যাকাউন্ট। সকল ফলোয়ারদের জন্য এই তথ্য দেওয়া হচ্ছে।' 

তবে কীভাবে, কী হয়েছে, সেই বিষয় নিয়ে কেন্দ্রের তরফে কোনও মন্তব্য করা হয়নি। বিষয়টি নিয়ে কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুরের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেছিল ‘হিন্দুস্তান টাইমস’। তবে আপাতত তাঁর কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি। বিষয়টির সঙ্গে অবহিত এক আধিকারিক ‘হিন্দুস্তান টাইমস’-কে বলেছেন, ‘ঠিক কী হয়েছিল, তা জানার জন্য তদন্ত করা হবে।’

বন্ধ করুন