বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > টিকা নেওয়ার দুই বছরের মধ্যে মৃত্যু? নোবেল জয়ী গবেষকের নামে ভুয়ো খবর ভাইরাল
হোয়াটসঅ্যাপে ছড়িয়ে পড়ে ভুয়ো খবরের স্ক্রিনশট (ছবি সৌজন্যে টুইটার/অসম পুলিশ)
হোয়াটসঅ্যাপে ছড়িয়ে পড়ে ভুয়ো খবরের স্ক্রিনশট (ছবি সৌজন্যে টুইটার/অসম পুলিশ)

টিকা নেওয়ার দুই বছরের মধ্যে মৃত্যু? নোবেল জয়ী গবেষকের নামে ভুয়ো খবর ভাইরাল

  • সম্প্রতি একটি হোয়াটসঅ্যাপ বার্তা ভাইরাল হয়েছে যাতে দাবি করা হয়, নবোল জয়ী ভাইরোলজিস্ট লুক মন্টেনিয়ার দাবি করছেন, কোভিড টিকা নেওয়া ব্যক্তিদের দুই বছর পর বেঁচে থাকার কোনও সম্ভাবনা নেই।

সম্প্রতি একটি হোয়াটসঅ্যাপ বার্তা ভাইরাল হয়েছে যাতে দাবি করা হয়, নবোল জয়ী ভাইরোলজিস্ট লুক মন্টেনিয়ার দাবি করছেন, কোভিড টিকা নেওয়া ব্যক্তিদের দুই বছর পর বেঁচে থাকার কোনও সম্ভাবনা নেই। তবে অসম পুলিশের তরফে ফেক নিউজ অ্যালার্ট দিয়ে জানিয়ে দেওয়া হয়, নবেল জয়ী এই গবেষক এমন কিছুই বলেননি। তবে টিকাকরণের বিরুদ্ধে তিনি মুখ খুলেছেন বটে।

একটি সাক্ষাৎকারে এইচআইভির আবিষ্কারক গবেষক লুক বলেন, 'করোনার টিকাকরণ মারাত্মক ভুল সিদ্ধান্ত। কোনও টিকাই ভাইরাসকে আটকাতে পারবে না। বরং ভাইরাসকে আরও শক্তিশালী হয়ে উঠতে সাহায্য করে টিকা। টিকাকরণ হলে মানবদেহে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়ে ভাইরাসকে মেরে ফেলে বা এর মিউটেশন হয়। মিউটেশনের ফলে ফের ভাইরাসের নয় ভ্যারিয়েন্ট তৈরি হয়ে যায়।' প্রখ্যাত ভাইরোলজিস্টের করোনার টিকাকরণ নিয়ে এহেন মন্তব্যে বিতর্ক তৈরি হয়। এরপরই ভাইরাল হয় লুক সংক্রান্ত ভুয়ো খবর।

এর আগে লুক মন্টেনিয়ার দাবি করেছিলেন, করোনা ভাইরাস নিশ্চিত ভাবে মানুষের তৈরি। পাশাপাশি তাঁর দাবি ছিল, একটা স্তর পর্যন্ত এইচআইভি ভাইরাসের সঙ্গে করোনার অনেক মিল রয়েছে। লুক মনে করেন, এইচআইইভি রোধক ভ্যাকসিন আবিষ্কারের জন্য কাজ করছিলেন চিনা গবেষকরা। সেই সময়ে নিশ্চয় বিভিন্ন ভাইরাসের বিশ্লেষণ করে দেখে চিনা বিজ্ঞানীরা। লুকের অনুমান, সেই ল্যাব থেকে দুর্ঘটনাবশত করোনা ছড়িয়ে পড়েছে সারা বিশ্বে।

বন্ধ করুন