বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > রাজ আমলের ১,৪৪১টি মন্দির খুঁজছে সরকার , দখল না পেলে প্রয়োজনে আদালতে যেতেও তৈরি
রাজ আমলের নথি মিলিয়ে মন্দির খুঁজছে মধ্যপ্রদেশ সরকার (প্রতীকী ছবি)
রাজ আমলের নথি মিলিয়ে মন্দির খুঁজছে মধ্যপ্রদেশ সরকার (প্রতীকী ছবি)

রাজ আমলের ১,৪৪১টি মন্দির খুঁজছে সরকার , দখল না পেলে প্রয়োজনে আদালতে যেতেও তৈরি

  • বিভিন্ন জেলায় ও পাঁচ রাজ্যে হারিয়ে ফেলা প্রাচীন মন্দির খোঁজার উদ্যোগ নিয়েছে মধ্যপ্রদেশ সরকার

কিছু মন্দিরের খোঁজ মিলছে না দীর্ঘদিন ধরে। কিছু মন্দিরের কথা ভুলে গিয়েছেন অনেকেই। এবার একেবারে তালিকা ধরে রাজ আমলের সেই মন্দির খোঁজার কাজ শুরু করে দিল মধ্যপ্রদেশ সরকার। প্রশাসন সূত্রে খবর, সেই হারানো ও ভুলে যাওয়া মন্দিরের সংখ্যা ১ হাজার ৪৪১টি। সাবেক রাজপাটের সঙ্গেই যুক্ত ছিল মন্দিরগুলি। সেগুলি সবই মধ্যপ্রদেশের বিভিন্ন জেলায় ও দেশের পাঁচটি রাজ্যের মধ্যে সীমাবদ্ধ। সেই মন্দিরগুলিরই এবার দখল নিতে চাইছে মধ্যপ্রদেশ সরকার।

 

গত মার্চ মাসে মধ্যপ্রদেশের স্পিরিচুয়াল ডিপার্টমেন্টের হাতে ১৯৩০ সালের কিছু নথি আসে। সেই সময় এই মন্দিরগুলির সম্পর্কে জানা যায়। এরপরই এনিয়ে নড়েচড়ে বসে সরকার। সেই নথি অনুসারে এই মন্দিরগুলির সম্পত্তির পরিমাণ প্রায় এক হাজার থেকে দেড় হাজার কোটি টাকা। 

 

এদিকে রাজ্য সরকার সূত্রে খবর, ইতিমধ্যেই ছত্তিশগড়, উত্তরপ্রদেশ, রাজস্থান, তামিলনাড়ু ও মহারাষ্ট্রে এরকম ৮৫টি মন্দিরের সন্ধান পাওয়া গিয়েছে। এদিকে দেখা যাচ্ছে একাধিক মন্দির বর্তমানে পুরোহিতদের পরিবারের আয়ত্তে রয়েছে। মথুরা ও বৃন্দাবনের ক্ষেত্রে মধ্যপ্রদেশ সরকারের প্রতিনিধিরা গিয়ে দেখেন, প্রায় কোটি টাকার দান সংগ্রহ হয় মন্দিরগুলি থেকে। সেই মন্দিরগুলির দখল নেওয়ার চেষ্টা করছিল সরকার। কিন্তু পুরোহিতদের পরিবার নানাভাবে তাদের বাঁধা দিয়েছিল বলে অভিযোগ। এরপরই বিভিন্ন রাজ্যকে চিঠি পাঠিয়ে  মন্দিরগুলির অধিকার তাদের হাতে তুলে দেওয়ার কথা জানিয়েছে মধ্যপ্রদেশ সরকার। স্পিরিচুয়াল দফতরের মন্ত্রী উষা ঠাকুর বলেন, যুদ্ধকালীন তৎপরতায় কাজ চলছে। আমাদের কাছে মন্দির সম্পর্কিত তথ্য ও ছবি আছে। বিভিন্ন রাজ্যে চিঠিও পাঠিয়েছি। মন্দিরগুলি আমাদের হাতে তুলে দেওয়া না হলে প্রয়োজনে আদালতে যাব।  

বন্ধ করুন