বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ‌মুঘলরা কখনও ধর্মের নামে নৃশংসতা করে নি, দাবি কংগ্রেস নেতার
মণিশংকর আইয়ার (HT_PRINT)
মণিশংকর আইয়ার (HT_PRINT)

‌মুঘলরা কখনও ধর্মের নামে নৃশংসতা করে নি, দাবি কংগ্রেস নেতার

  • কংগ্রেস নেতা জানান, ব্রিটিশ ও মুঘলদের মধ্যে বড় পার্থক্য হল মুঘলরা এই দেশকে নিজেদের মনে করত।

মুঘল শাসকদের প্রশংসা করে বিজেপি সরকারের নিন্দায় সরব হলেন কংগ্রেস নেতা মণিশঙ্কর আইয়ার। তাঁর মতে, ‘‌আমরা আকবরকে নিজেদের বলে মনে করি। মুঘলরা কখনও ধর্মের নামে নৃশংসতা করেনি।’‌ একইসঙ্গে তিনি বিজেপি সরকারকে তুলোধোনা করে জানিয়েছেন, যারা ক্ষমতায় আসেন, তাঁরা মনে করেন, ৮০ শতাংশ মানুষই প্রকৃত ভারতীয়। বাকিরা অতিথি হিসাবে বসবাস করছেন।

 

এই প্রসঙ্গে পুরনো কথা উল্লেখ করে কংগ্রেস নেতা জানান, ‘‌আমরা আকবরকে নিজেদের বলে মনে করি। তাই আমরা কখনও মহারানা প্রতাপের নাম দিয়ে আকবরের নামে থাকা রাস্তার নাম পরিবর্তনের কথা বলি না। ভারত এমন একটি দেশ যেখানে মুসলিমরা এসেছিল। কিন্তু ভারত মুসলিম দেশ হয়ে যায়নি। ধর্মের নামে মুসলিমরা কখনও নৃশংসতা করেনি।’‌ একইসঙ্গে পুরনো আদমসুরামি উদ্ধৃত করে কংগ্রেস নেতা জানান, ১৮৭২ সালে দেশে ৭২ শতাংশ হিন্দু ছিল, ২৪ শতাংশ ছিল মুসলিম। এখনও কম বেশি এই শতাংশের হারই আছে। তাই মুসলিমদের ওপর জনসংখ্যা বৃদ্ধির অভিযোগ তোলা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন।

একইসঙ্গে মুঘল শাসনের প্রশংসা করে কংগ্রেস নেতা জানান, ব্রিটিশ ও মুঘলদের মধ্যে বড় পার্থক্য হল মুঘলরা এই দেশকে নিজেদের মনে করত। বাবর তাঁর ছেলে হুমায়ুনকে চিঠি লিখেছিলেন যাতে তিনি এদেশের মানুষের ধর্মে হস্তক্ষেপ না করার কথা বলেছিলেন। বিজেপির বিরুদ্ধে তোপ দেগে কংগ্রেস নেতা জানান, দেশে যারা ক্ষমতায় রয়েছেন, তাঁরা দেশের ৮০ শতাংশ মানুষকে নিয়ে চিন্তিত।

 

বন্ধ করুন