বাড়ি > ঘরে বাইরে > ট্রেনে খোয়ানো ওয়ালেটের সঙ্গে ১৪ বছর পরে মিলল ৫০০ টাকার কড়কড়ে নোটও
২০০৬ সালে মুম্বইয়ের লোকাল ট্রেনের কামরায় নিজের ওয়ালেট হারিয়েছিলেন হেমন্ত।
২০০৬ সালে মুম্বইয়ের লোকাল ট্রেনের কামরায় নিজের ওয়ালেট হারিয়েছিলেন হেমন্ত।

ট্রেনে খোয়ানো ওয়ালেটের সঙ্গে ১৪ বছর পরে মিলল ৫০০ টাকার কড়কড়ে নোটও

  • ভাশির জিআরপি দফতর থেকে হারানো ওয়ালেটটি ফিরে পান। সেই সঙ্গে ওয়ালেটে থাকা টাকাও তাঁকে ফেরত দেওয়া হয়।

লোকাল ট্রেনে হারিয়ে যাওয়ার ১৪ বছর পরে নিজের ওয়ালেট ফেরত পেলেন মুম্বইয়ের বাসিন্দা হেমন্ত পেডলকর। সেই সঙ্গে ফেরত পেলেন ভিতরে থাকা অর্থের একাংশ।

২০০৬ সালে মুম্বইয়ের ছত্রপতি শিবাজি মহারাজ টার্মিনাসে প্যানভেল লোকালে নিজের ওয়ালেট হারিয়েছিলেন হেমন্ত। গত এপ্রিল মাসে তিনি ভাশি রেল স্টেশনের জিআরপি-র থেকে একটি ফোন পান। ফোনে তাঁকে ১৪ বছর আগে খোয়ানো ওয়ালেট খুঁজে পাওয়ার খবর দেওয়া হয়। 

সেই সময় দেশব্যাপী লকডাউন জারি থাকার কারণে উদ্ধার হওয়া ওয়ালেট ফেরত আনতে পারেননি হেমন্ত। পরে নিষেধাজ্ঞা উঠলে তিনি ভাশির জিআরপি থানায় গিয়ে হারানো ওয়ালেটটি ফিরে পান। তাঁকে ওয়ালেটে থাকা টাকাও ফেরত দেওয়া হয়।

পিটিআই-কে হেমন্ত জানিয়েছেন, ‘হারানোর সময় ওয়ালেটে আমার ৯০০ টাকা ছিল, যার মধ্যে ছিল পরবর্তীকালে ২০১৬ সালে ঘোষিত নোটবন্দিতে অচল হয়ে যাওয়া একটি ৫০০ টাকার নোট। ভাশি থানার জিআরপি ১০০ টাকা স্ট্যাম্প পেপার সংক্রান্ত খরচ বাবদ বাদ পড়ে এবং অচল নোট বদলে নতুন একটি ৫০০ টাকার নোট দেওয়া হয়।’

জিআরপি দফতরে তাঁর সঙ্গে আরও বহু মানুষ তাঁদের খোয়া যাওয়া সম্পত্তি ফেরত পেতে হাজির হয়েছিলেন বলে জানিয়েছেন হেমন্ত। তার মধ্যে বেশ কিছু নোটবন্দিতে অচল নোট ছিল বলেও তিনি জানিয়েছেন। তবে নিজের হারিয়ে যাওয়া ওয়ালেট ও টাকা ফেরত পেয়ে খুবই খুশি হেমন্ত। 

জিআরপি-র তরফে জানানো হয়েছে, হেমন্তের ওয়ালেট চুরি করা দুষ্কৃতীরা কয়েক মাস আগে ধরা পড়েছে। তাদের থেকেই ফেরত পাওয়া যায় ওই ওয়ালেট-সহ চুরি যাওয়া বেশ কিছু সামগ্রী।

বন্ধ করুন