বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > সাইবার হানার মুখে মুম্বই পুলিশ, 'ম্যালওয়ার' ইমেলের নেপথ্যে পাকিস্তান হ্যাকাররা?
হ্যাকারদের কবলে পড়েছে মুম্বই পুলিশ। এমনই জানানো হয়েছে একাধিক প্রতিবেদনে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য রয়টার্স)
হ্যাকারদের কবলে পড়েছে মুম্বই পুলিশ। এমনই জানানো হয়েছে একাধিক প্রতিবেদনে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য রয়টার্স)

সাইবার হানার মুখে মুম্বই পুলিশ, 'ম্যালওয়ার' ইমেলের নেপথ্যে পাকিস্তান হ্যাকাররা?

  • নাম গোপন রাখার শর্তে এক পুলিশকর্তা বলেছেন, ‘প্রাথমিক তদন্ত থেকে জানা গিয়েছে যে পাকিস্তানের পঞ্জাব প্রদেশ থেকে ইমেলটি পাঠানো হয়েছে।'

হ্যাকারদের কবলে পড়েছে মুম্বই পুলিশ। এমনই জানানো হয়েছে একাধিক প্রতিবেদনে। ওই প্রতিবেদনগুলি অনুযায়ী, পূর্বাঞ্চলীয় সাইবার পুলিশ থানার ইমেল আইডির নাম দেওয়া মহারাষ্ট্র-সহ দেশের বিভিন্ন সরকারি অফিসে একটি মেল পাঠানো হয়েছে। যে মেল ম্যালওয়ারে ঠাসা ছিল বলে অভিযোগ। পুরো ঘটনায় পাকিস্তানের হ্যাকারদের হাত আছে বলে একটি মহল থেকে দাবি করা হয়েছে। যদিও বিষয়টি নিয়ে এখনও সরকারিভাবে মুখ খোলা হয়নি।

‘হিন্দুস্তান টাইমস’-এর প্রতিবেদন অনুযায়ী, ওই মেলে জম্মু ও কাশ্মীরের সাম্প্রতিক সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপ সংক্রান্ত একটি ‘গোয়েন্দা’ রিপোর্ট আছে বলে দাবি করা হয়েছে। পুলিশের এক সূত্র জানিয়েছেন, মেলের বিষয়বস্তু ছিল যে ‘জম্মু ও কাশ্মীরে হামলাগুলির পিছনে থাকা জঙ্গিদের মুম্বইয়ে খতম করা হয়েছে।’ সঙ্গে একটি পিডিএফ ছিল। সেটির নাম ছিল ‘গোয়েন্দা রিপোর্ট’ (রিপোর্ট ইন্টেলিজেন্স)। সেই পিডিএফে ম্যালওয়ার ঠাসা ছিল বলে অভিযোগ। সেই পিডিএফ ক্লিক করতেই সংশ্লিষ্ট কম্পিউটার হ্যাকারদের ফাঁদে পড়ে যায় বলে দাবি করা হয়েছে। সূত্রের খবর, ps.eastcyber.mum@mahapolice.gov.in নামে একটি আইডি থেকে তেমনই মেল পাঠানো হয়েছে। যা পূর্বাঞ্চলীয় সাইবার পুলিশ থানার ইমেল আইডি এবং সিনিয়র ইনস্পেকটর তথা থানার দায়িত্বপ্রাপ্ত আধিকারিক রাজেশ শিবাজিরাও নাগাওয়াড়ের নামে সেই ইমেল আইডি আছে।

বিষয়টি সামনে আসার পরই নড়েচড়ে বসেছে মহারাষ্ট্রের সাইবার পুলিশ। ‘হিন্দুস্তান টাইমস’-এর প্রতিবেদন অনুযায়ী, মঙ্গলবার রাজ্যের সব পুলিশ কমিশনার এবং পুলিশ সুপারদের সতর্ক করা হয়েছে। বিস্তারিত তদন্তের জন্য পূর্বাঞ্চলীয় সাইবার পুলিশ থানায় যান সাইবার উইংয়ের ডেপুটি পুলিশ কমিশনার। আধিকারিকরা জানিয়েছেন, ইমেল অ্যাকাউন্ট হ্যাক করে সম্ভবত সেই কাজ করেছে অভিযুক্তরা।

নাম গোপন রাখার শর্তে এক পুলিশকর্তা বলেছেন, ‘প্রাথমিক তদন্ত থেকে জানা গিয়েছে যে পাকিস্তানের পঞ্জাব প্রদেশ থেকে ইমেলটি পাঠানো হয়েছে। তবে আমরা নিশ্চিত নই যে মেলটি সত্যিই পাকিস্তান থেকে পাঠানো হয়েছে নাকি সাইবার অপরাধীরা অন্য কোনও উপায় অবলম্বন করে দেখিয়েছে যে পাকিস্তানের সার্ভার থেকে মেল পাঠানো হয়েছে। তদন্ত চলছে।’ তারইমধ্যে এক উচ্চপদস্থ আইপিএস অফিসার জানিয়েছে, বিষয়টি ম্যালওয়ার নাকি অন্য কিছুৃ, তা খতিয়ে দেখছেন বিশেষজ্ঞরা।

বন্ধ করুন