বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতির ফোনের পর অন্তবর্তীকালীন জামিনে মুক্ত মুনাওয়ার ফারুকি
স্ট্যান্ড-আপ কমেডিয়ান মুনাওয়ার ফারুকি। (ফাইল ছবি, সৌজন্য টুইটার)
স্ট্যান্ড-আপ কমেডিয়ান মুনাওয়ার ফারুকি। (ফাইল ছবি, সৌজন্য টুইটার)

সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতির ফোনের পর অন্তবর্তীকালীন জামিনে মুক্ত মুনাওয়ার ফারুকি

  • শুক্রবারই অন্তর্বর্তীকালীন জামিন দিয়েছিল সুপ্রিম কোর্ট।

শুক্রবারই অন্তর্বর্তীকালীন জামিন দিয়েছিল সুপ্রিম কোর্ট। যদিও মুনাওয়ার ফারুকির জেল থেকে মুক্তি পাওয়া নিয়ে টালবাহানা চলছিল। অবশেষে শীর্ষ আদালতের বিচারপতির ফোনের পর শনিবার রাত ১১ টা নাগাদ ইন্দোর জেল থেকে ছাড়া পেলেন ওই স্ট্যান্ড-আপ কমেডিয়ান। ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের প্রতিবেদনে একথা জানানো হয়েছে।

ইন্দোরের তুকোগঞ্জ থানায় দায়ের হওয়া মামলায় গত শুক্রবার সকালে মুনাওয়ারকে অন্তর্বর্তীকালীন জামিন দেয় আর এফ নরিম্যানের নেতৃত্বাধীন সুপ্রিম কোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ। একইসঙ্গে উত্তরপ্রদেশের জর্জটাউন থানায় কমেডিয়ানের বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া অপর একটি মামলায় যে সমন জারি করা হয়েছিল, তাতেও স্থগিতাদেশ দেয় শীর্ষ আদালত। কিন্তু শীর্ষ আদালতের নির্দেশের পরও শনিবার সকালে মুনাওয়ারকে ছাড়তে অস্বীকার করে ইন্দোর জেল কর্তৃপক্ষ। দাবি করা হয়, আগের সমনে স্থগিতাদেশ নিয়ে প্রয়াগরাজের মুখ্য বিচারবিভাগীয় ম্যাজিস্ট্রেটের (সিজেএম) তরফে সরকারিভাবে কোনও বার্তা মেলেনি।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে ইন্দোর জেলের রাজেশ বাঙ্গড়ে জানান, আগে জেল কর্তৃপক্ষ কোনও নির্দেশ হাতে পায়নি। পরে ইন্দোরের মুখ্য বিচারবিভাগীয় ম্যাজিস্ট্রেটকে (সিজেএম) ফোন করেন সুপ্রিম কোর্টের একজন বিচারপতি। রায়ের জন্য ওয়েবসাইট দেখতে বলেন। তা আপলোড হয়ে গেলে সেই রায় মেনে চলতে বলেন। সেই মোতাবেক ওয়েবসাইট দেখা হয়। তখন রায় আপলোড করা হয়ে গিয়েছিল। তারপর রাত ১১ টা নাগাদ মুনাওয়ারকে জেল থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, জেল থেকে ছাড়া পাওয়ার পর চুপচাপভাবে চলে যান। পরে এনটিভিকে একটি সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘বিষয়টি আদালতে বিচারাধীন। প্রশাসন এবং বিচারবিভাগের উপর আমরা পূর্ণ আস্থা আছে। এই পর্যায়ে আমি আর কোনও মন্তব্য করব না।’

বন্ধ করুন