বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > অনলাইনে ‘বিক্রি’ হচ্ছে মুসলিম নারী! কী এই বিতর্কিত ‘বুল্লি বাই’ অ্যাপ?
প্রতীকী ছবি (সৌজন্যে হিন্দুস্তান টাইমস) (Satish Bate/HT Photo)
প্রতীকী ছবি (সৌজন্যে হিন্দুস্তান টাইমস) (Satish Bate/HT Photo)

অনলাইনে ‘বিক্রি’ হচ্ছে মুসলিম নারী! কী এই বিতর্কিত ‘বুল্লি বাই’ অ্যাপ?

  • সম্প্রতি দিল্লির এক মহিলা সাংবাদিকের ছবি দেখা যায় ‘বুল্লি বাই’ নামক অ্যাপটিতে। তারপরই এই অ্যআপটি নিয়ে তোলপাড় শুরু হয়।

মুসলিম নারীদের বিক্রি করতে ‘বুল্লি বাই’ নামক অনলাইন অ্যাপ তৈরি হয়েছে সম্প্রতি। এর আগে এই একই ধরনের একটি অ্যাপ ব্লক করা হয়েছিল ভারতে। সেই অ্যাপটির নাম ছিল ‘সুল্লি ডিলস’। সম্প্রতি দিল্লির এক সাংবাদিকের ছবি দেখা যায় ‘বুল্লি বাই’ নামক অ্যাপটিতে। তারপরই এই অ্যআপটি নিয়ে তোলপাড় শুরু হয়। দিল্লি পুলিশ সূত্রে খবর, অভিযোগকারী মহিলা সাংবাদিক তাঁর সোশ্যাল মিডিয়ায় জানিয়েছেন, মুসলিম মহিলাদের হেনস্থা ও অপমান করার উদ্দেশ্যে এই অ্যাপটি চালু করা হয়েছে।

এদিকে, 'বুল্লি বাই' অ্যাপ অভিযোগ ওঠার পর তথ্য ও প্রযুক্ত মন্ত্রকের মন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণব জানিয়েছেন, 'বুল্লি বাই' অ্যাপ ব্লক করা হয়েছে৷ এর আগে শনিবার টুইটারে এক মহিলা সাংবাদিক বুল্লি বাই অ্যাপ নিয়ে লেখেন, ‘খুবই দুঃখজনক যে একজন মুসলিম নারী হিসেবে আপনাকে এই ভয় ও বিতৃষ্ণার অনুভূতি নিয়ে আপনার নতুন বছর শুরু করতে হবে।’

পরে দিল্লি পুলিশে অভিযোগ জানিয়ে সেই মহিলা সাংবাদিক একটি চিঠি দেন। সেই অভিযোগ পত্রে তিনি লেখেন, ‘১ জানুয়ারি বুল্লিবাই.গিটহাব.আইও নামক এক ওয়েবসাইটে আমার বিকৃত একটি ছবি দেখতে পাই। তা দেখে আমি অবাক হয়ে যাই। অশ্লীল সেই ছবিটি অগ্রহণযোগ্য। আমার মতো স্বাধীনচেতা মহিলা সাংবাদিকদের হেনস্থা করার উদ্দেশ্যেই এই কাজ করা।’

এই ঘটনা প্রসঙ্গে কংগ্রেস সাংসদ শশী থারুর টুইঠ করে লেখেন, ‘অনলাইনে কোনও মানুষকে বিক্রি করার বিজ্ঞাপন দেওয়া আইনত অপরাধ।’ শিবসেনা সাংসদ প্রিয়াঙ্কা চতুর্বেদী বলেছেন যে তিনি কেন্দ্রীয় তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণবকে তিনি বারবার বলেছেন যে এই ধরনের প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে নারীদের সাম্প্রদায়িক টার্গেট করা হচ্ছে। তাঁর দাবি, এর বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে।

বন্ধ করুন