বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > বিজেপি ও এআইএমআইএমকে বার্তা দিতে সংস্কৃতে শপথ নিলেন কংগ্রেসের মুসলমান বিধায়ক
শাকিল আহমেদ খান
শাকিল আহমেদ খান

বিজেপি ও এআইএমআইএমকে বার্তা দিতে সংস্কৃতে শপথ নিলেন কংগ্রেসের মুসলমান বিধায়ক

  • জেএনইউ-র প্রাক্তনী এই বিধায়ক। 

১৭তম বিহার বিধানসভার প্রথম দিনে শপথ নিলেন নয়া নির্বাচিত বিধায়করা। বিভিন্ন ভাষায় শপথ নিলেন জনপ্রতিনিধিরা, কিন্তু সংস্কৃতে শপথ নিয়ে সবাইকে চমকে কংগ্রেসের এক মুসলমান বিধায়ক। পরে তিনি জানান যে বিজেপি ও মিমকে বার্তা দিতে সংস্কৃতে তিনি শপথ নেন। 

জেএনইউ-র প্রাক্তনী শাকিল আহমেদ খান সংস্কৃতে শপথবাক্য প্রাক্তন। কসবা বিধানসভা কেন্দ্র থেকে কংগ্রেসের টিকিটে জিতেছেন তিনি। পরে তিনি বলেন যে ভারতের সংস্কৃতি এত সুন্দর ও সব ভাষার উৎপত্তি তো সংস্কৃত থেকে। সেই কারণে বিজেপি ও এআইএমআইএম-কে সংস্কৃতির পাঠ পড়ানোর জন্য তিনি সংস্কৃতে শপথ নেন বলে জানান কংগ্রেস বিধায়ক। এআইএমআইএমের আখতারুল ইমাম উর্দুতে শপথ নেন। তবে তিনি ভারতের জায়গায় হিন্দুস্তান শব্দটি ব্যবহার করেন। বিহারে মিমের মুখ তিনি। 

বিহারের বিভিন্ন অঞ্চলের মানুষ বিভিন্ন ভাষায় শপথ নিলেন। মিথিলাঞ্চলের সবাই মৈথিলি ভাষায় সংবিধানের প্রতি নিজেদের আস্থা জ্ঞাপন করেন। অন্যদিকে সীমাঞ্চলের বিধায়করা উর্দুতে শপথ নেন। এবারের বিধানসভায় প্রায় একশোজনের ওপর নতুন সদস্য আছেন। ২৭ তারিখ চলবে অধিবেশন। স্পিকারের নির্বাচন হবে ২৫ নভেম্বর, ২৬ তারিখ যৌথ অধিবেশন। এবারের বিধানসভায় ৭৫ আসন বিশিষ্ট আরজেডি একক বৃহত্তম দল। অনেক কম আসনে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করেও ৭৪ আসন জিতেছে বিজেপি। সবমিলিয়ে ২৪৩ আসনের বিধানসভায় ১২৫ বিধায়কের সমর্থন আছে নীতিশ কুমারের প্রতি। 

বন্ধ করুন