বাড়ি > ঘরে বাইরে > ভূমিপূজোর আগে রাম মন্দির আন্দোলনে নিজের ‘বিশাল অবদানের’ কথা মনে করালেন আডবানি
অযোধ্যার সরযূ নদীর তীর  (AP)
অযোধ্যার সরযূ নদীর তীর  (AP)

ভূমিপূজোর আগে রাম মন্দির আন্দোলনে নিজের ‘বিশাল অবদানের’ কথা মনে করালেন আডবানি

  • স্মৃতিচারণা করে আডবানি বলেন যে রামজন্মভূমি আন্দোলনের সময় নিয়তি তাকে দিয়ে একটি বড় কাজ করায় যখন তিনি রাম রথ নিয়ে সোমনাথ থেকে অযোধ্যায় যান। তিনি বলেন যে রামভক্তদের মনের ইচ্ছা, যাবতীয় উদ্যম একত্রিত হয়েছিল রথযাত্রার সময়।

 অনুষ্ঠানে থাকছেন না। কিন্তু অযোধ্যায় রাম মন্দির নির্মাণে তাঁর যে বড় একটি অবদান রয়েছে, সেটার কথা ভিত্তি প্রস্তরের প্রাক্কালে স্মরণ করলেন বর্ষীয়ান বিজেপি নেতা লালকৃষ্ণ আডবানি। তিনি বলেন যে এটি ঐতিহাসিক ও আবেগপূর্ণ দিন সকল ভারতীয়র জন্য। এই প্রসঙ্গে তাঁর রথযাত্রার কথা তুলে ধরেন তিনি। 

প্রাক্তন উপ-প্রধানমন্ত্রী বলেন যে তিনি বিশ্বাস করেন যে রাম মন্দির প্রতিষ্ঠা করলে সেটি এমন ভারতের প্রতিভূ হবে যেটি শক্তিশালী, শান্তিপূর্ণ, বিত্তশীল একটি দেশ। যেখানে সুবিচার পাবেন সবাই। অর্থাৎ সত্যিকারের রাম রাজ্য আসবে দেশে বলে আশা প্রকাশ করেন লালকৃষ্ণ আডবানি। 

স্মৃতিচারণা করে আডবানি বলেন যে রামজন্মভূমি আন্দোলনের সময় নিয়তি তাকে দিয়ে একটি বড় কাজ করায় যখন তিনি রাম রথ নিয়ে সোমনাথ থেকে অযোধ্যায় যান। তিনি বলেন যে রামভক্তদের মনের ইচ্ছা, যাবতীয় উদ্যম একত্রিত হয়েছিল রথযাত্রার সময়। 

তিনি বলেন শ্রীরামচন্দ্র ভারতের সাংস্কৃতিক ও সভ্যতায় খুব বড় স্থান দখল করেছেন। আডবানি বলেন যে শ্রীরামচন্দ্রের সমস্ত গুণাবলী ভারতীয়রা আত্মস্থ করবেন। 

কোভিডের জেরে ৯২ বছরের লালকৃষ্ণ আডবানিকে আমন্ত্রণ পাঠানো হয়নি অযোধ্যায় ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে। বাড়ি বসেই তিনি দেখবেন এই বহু প্রতীক্ষিত অনুষ্ঠান। 

 

বন্ধ করুন