বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > বিজ্ঞানের মাইলফলক, অসম্ভবকে সম্ভব করে সূর্যের করোনাকে ছুঁল নাসার মহাকাশযান!
ছবি সৌজন্যে ইনস্টাগ্রাম 
ছবি সৌজন্যে ইনস্টাগ্রাম 

বিজ্ঞানের মাইলফলক, অসম্ভবকে সম্ভব করে সূর্যের করোনাকে ছুঁল নাসার মহাকাশযান!

  •  ২০১৮ সালে পৃথিবী থেকে সূর্যের উদ্দেশে যাত্রা শুরু করেছিল পার্কার। এর আগে সূর্যের খুব কাছাকাছি গেলেও এত কাছে এর আগে কখনও যেতে পারেনি পার্কার।

নাসা এমন এক কৃতিত্ব অর্জন করল যা একসময় অসম্ভব বলে মনে করা হয়েছিল। ইতিহাসে প্রথমবারের মতো একটি মহাকাশযান সূর্যের করোনাকে (সূর্যের বহিরাবরণ) স্পর্শ করেছে। প্রায় দুই মিলিয়ন ডিগ্রি ফারেনহাইট তাপমাত্রায় থেকে সেই মহাকাশযানটি মাইলফলক সৃষ্টি করেছে। মার্কিন মহাকাশযান সংস্থার এই পদক্ষেপ মানবজাতি এবং সৌর বিজ্ঞানের জন্য একটি বিশাল লাফ৷ নাসার এই কৃতিত্বে উৎসাহিত বিজ্ঞানীরা৷

গত ২৮ এপ্রিল সূর্যের উপরের বায়ুমণ্ডল ‘করোনা’কে ভেদ করে ঢুকে যায় নাসার মহাকাশযান পার্কার। সেখানে সূর্যের বায়ুমণ্ডল থেকে নমুনা সংগ্রহ করে পার্কার। ২০১৮ সালে পৃথিবী থেকে সূর্যের উদ্দেশে যাত্রা শুরু করেছিল পার্কার। এর আগে সূর্যের খুব কাছাকাছি গেলেও এত কাছে এর আগে কখনও যেতে পারেনি পার্কার। তবে এবার প্রথমবার সূর্যের বায়ুমণ্ডলকে ছুঁয়ে ইতিহাস তৈরি করল পার্কার।

দুই মিলিয়ন ডিগ্রি ফারেনহাইটের চরম পরিবেশে পার্কার যে শুধু টিকে গিয়েছে এমন নয়; করোনাতে প্রবেশ করে সূর্যের প্রবল মাধ্যাকর্ষণ, চৌম্বক ক্ষমতার সঙ্গে লড়াই করে সৌরপদার্থের নমুনা সংগ্রহ করে পার্কার। পার্কারের এই সফল অভিযানে বিজ্ঞানীদের মনে আশা জন্মেছে। অদূর ভবিষ্যতে সূর্যের উত্পত্তি, পৃথিবী বা অন্য গ্রহের বিবর্তনে সূর্যের অবদান ও প্রক্রিয়ার বিষয়ে বিস্তারিত ভাবে জানা যাবে।  

 

 

 

 

 

বন্ধ করুন