বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > National Award for Tantuja: বাংলার তন্তুজকে পুরস্কার দেবে মোদীর সরকার, দিল্লি থেকে টুইট মমতার
National Award for Tantuja: জাতীয় তাঁতবস্ত্র দিবসে পশ্চিমবঙ্গে তাঁতের প্রধান সমিতি তন্তুজকে পুরস্কার দিচ্ছে কেন্দ্র। (ছবি সৌজন্যে টুইটার)

National Award for Tantuja: বাংলার তন্তুজকে পুরস্কার দেবে মোদীর সরকার, দিল্লি থেকে টুইট মমতার

  • National Award for Tantuja: তাঁতশিল্পী জ্যোতিষ দেবনাথকে সন্ত কবীর পুরস্কার দেবে কেন্দ্র। বীরেন বসাক পাবেন জাতীয় নকশা ও বিপণন পুরস্কার। জাতীয় তাঁতশিল্পী পুরস্কার পাবেন রাজ্যের সাত শিল্পী।

কেন্দ্রের পুরস্কার পাচ্ছে পশ্চিমবঙ্গের তন্তুজ। সেইসঙ্গে জ্যোতিষ দেবনাথ, বীরেন বসাক এবং সাতজন তাঁতশিল্পীকে কেন্দ্রের পুরস্কার দেওয়া হচ্ছে। এমনটাই জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আপাতত মুখ্যমন্ত্রী দিল্লিতে আছেন। সেখান থেকেই আজ রাতে মুখ্যমন্ত্রী জানান, জাতীয় তাঁতবস্ত্র দিবসে পশ্চিমবঙ্গে তাঁতের প্রধান সমিতি তন্তুজকে পুরস্কার দিচ্ছে নরেন্দ্র মোদী সরকার। কেন্দ্রীয় বস্ত্র মন্ত্রকের তরফে ‘ডিজাইন ডেভেলপমেন্ট’-র জন্য সেই জাতীয় পুরস্কার দেওয়া হবে। সেইসঙ্গে তিনি জানিয়েছেন, তাঁতশিল্পী জ্যোতিষ দেবনাথকে সন্ত কবীর পুরস্কার দেবে কেন্দ্র। বীরেন বসাক পাবেন জাতীয় নকশা ও বিপণন পুরস্কার। জাতীয় তাঁতশিল্পী পুরস্কার পাবেন রাজ্যের সাত শিল্পী।

আরও পড়ুন: Mamata's Delhi Visit: অভিষেককে সঙ্গে নিয়ে দিল্লি উড়ে গেলেন মমতা, দেখা করতে পারেন মোদীর সঙ্গে

মমতা-মোদীর সম্ভাব্য বৈঠক

বৃহস্পতিবার বিকেলে তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেককে নিয়ে দিল্লি আসেন মুখ্যমন্ত্রী। সংসদে দলের রণকৌশল ঠিক করতে সাংসদদের নিয়ে বৈঠকে বসেন। সূত্রের খবর, ঝাড়খণ্ডের বিধায়কদের গ্রেফতার, বিজেপির বিরুদ্ধে লড়াইয়ের প্রসঙ্গও ওঠে এই বৈঠকে।

সূত্রের খবর, শুক্রবার বিকেলে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে তাঁর দেখা করার কথা রয়েছে। এ নিয়েই এবার ম্যাচ ফিক্সিংয়ের অভিযোগ তুলেছেন বিরোধী নেতারা। কংগ্রেস নেতা ঋজু ঘোষাল বলেন, ‘২০১৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনের সময় থেকেই এই ম্যাচ ফিক্সিং চলছে। ইডি অভিষেককে মাত্র দু'বার জিজ্ঞাসাবাদ করেছে। আর ইডি সোনিয়া গান্ধী, রাহুল গান্ধীকে রোজ জিজ্ঞাসাবাদ করে হয়রানি করছে। কংগ্রেসকে দুর্বল করতে তৃণমূলকে শক্তিশালী করতে চাইছে বিজেপি।’

সিপিএম নেতা মহম্মদ সেলিম বলেছেন, ‘ম্যাচ ফিক্সিংয়ের অঙ্গ হিসেবে মমতা-মোদীর বৈঠক হচ্চে। দাবি করা হচ্ছে, রাজ্যের বিষয়ে কথা বলতে তিনি মোদীর সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছেন। কিন্তু তার জন্য একান্তে সাক্ষাৎ কেন? আমলাদের থাকা উচিত ছিল। এটা সচিব পর্যায়ের বৈঠক কেন নয়? এসব সেটিংয়ের অঙ্গ। মানুষকে বোকা বানাতে চাইছেন।’

বন্ধ করুন