বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > NCRB Report: লজ্জার নজির! বধূ নির্যাতনে শীর্ষে পশ্চিমবঙ্গ

NCRB Report: লজ্জার নজির! বধূ নির্যাতনে শীর্ষে পশ্চিমবঙ্গ

গার্হস্থ্য হিংসা নিয়ে বিস্ফোরক রিপোর্ট। প্রতীকী ছবি (Getty Images/iStockphoto)

চলচ্চিত্র নির্মাতা সুদেষ্ণা রায় বলেন, আমরা বাংলার মহিলারা জোর গলায় কথা বলতে ভয় পাই না।পুরুষের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতেও ভয় পাই না। অন্যান্য রাজ্যে এটা হয় না।

বধূ নির্যাতনে সবথেকে এগিয়ে বাংলা। ২০২১ সালের পরিসংখ্যান অনুসারে এমনটাই সামনে আসছে। ন্যাশানাল ক্রাইম রেকর্ডস ব্যুরোর রিপোর্ট অনুসারে এমনটাই খবর।আইপিসির ৪৯৮এ ধারায় ১৯,৯৫২টি মামলা হয়েছে এই রাজ্যেই। মূলত অতিরিক্ত পণের দাবিতে স্বামী ও শ্বশুড়বাড়ির লোকজনের অত্যাচারের বিরুদ্ধে এই মামলাগুলি হয়েছে।

তবে পশ্চিমবঙ্গের পরেই উত্তরপ্রদেশের স্থান। সেখানে গত বছর ১৮,৩৭৫টি মামলা হয়েছে। রাজস্থানের স্থান তার পরেই। সেখানে ১৬,৯৪৯টি মামলা নথিভুক্ত হয়েছে। গোয়া একেবারে শেষ সারিতে রয়েছে। সেখানে মাত্র একটি বধূ নির্যাতনের মামলা হয়েছে। নাগাল্যান্ডে দুটি ও সিকিমে তিনটি মামলা হয়েছে।

এদিকে তাৎপর্যপূর্ণভাবে ১ লাখ নারীর মধ্যে বাংলায় ৪১.৫০ শতাংশ মহিলা এই ধরনের হিংসার শিকার হয়েছে গতবছর। এই পর্যায়ে জাতীয় গড় মাত্র ২০.৫০ শতাংশ।

পশ্চিমবঙ্গ মহিলা কমিশনের চেয়ারপার্সন লীনা গঙ্গোপাধ্যায় জানিয়েছেন, এই পরিসংখ্যান অনুসারে এটা বোঝা যাচ্ছে এই রাজ্যের মহিলারা অপরাধের বিরুদ্ধে কর্তৃপক্ষের কাছে অভিযোগ জানান। তিনি বলেন,  সমাজে গার্হস্থ্য হিংসা রয়েছে, এটা আমরা স্বীকার করছি  । এটা গোটা দেশের পাশাপাশি পশ্চিমবঙ্গেও হচ্ছে। তবে এই রিপোর্টের একটি ইতিবাচক দিক রয়েছে যে এখানে নারীরা অভিযোগ জানাতে পারেন। আর গোটা বিষয়টিতে একটি স্বচ্ছতা রয়েছে।

তিনি জানিয়েছেন, এটা নিয়ে কোনও সিদ্ধান্তে আসাটা ঠিক হবে না। অন্যান্য রাজ্যে হিংসার শিকার হওয়ার নারী অভিযোগ জানানোর সুযোগ পান না।

চলচ্চিত্র নির্মাতা সুদেষ্ণা রায় বলেন, আমরা বাংলার মহিলারা জোর গলায় কথা বলতে ভয় পাই না।পুরুষের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতেও ভয় পাই না। অন্যান্য রাজ্যে এটা হয় না।

বন্ধ করুন