বাড়ি > ঘরে বাইরে > 'আমি ক্ষমাপ্রার্থী, আমি ক্লান্ত', আত্মঘাতী NEET পরীক্ষার্থী
'আমি ক্ষমাপ্রার্থী, আমি ক্লান্ত', আত্মঘাতী NEET পরীক্ষার্থী (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)
'আমি ক্ষমাপ্রার্থী, আমি ক্লান্ত', আত্মঘাতী NEET পরীক্ষার্থী (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)

'আমি ক্ষমাপ্রার্থী, আমি ক্লান্ত', আত্মঘাতী NEET পরীক্ষার্থী

  • এক বছরের বেশি সময় ধরে পরীক্ষার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন।

'আমি ক্ষমাপ্রার্থী। আমি ক্লান্ত।' বাবা-মা'র উদ্দেশে একথা বলে সর্বভারতীয় মেডিক্যাল প্রবেশিকার (নিট) আগে আত্মহত্যা করলেন এক পরীক্ষার্থী। ঘটনাটি তামিলনাড়ুর মাদুরাইয়ের।

পরিবারের সঙ্গে মাদুরাইয়ে রাজ্য পুলিশের রিজার্ভড কোয়ার্টারে থাকতেন জ্যোতি শ্রী দুর্গা নামে বছর ১৯-এর ওই নিট পরীক্ষার্থী। তাঁর বাবা সশস্ত্র বাহিনীর পঞ্চম ব্যাটেলিয়নের কর্মরত। গত বছরও নিট পরীক্ষায় বসেছিলেন জ্যোতি। কিন্তু ফল আশাপ্রদ হয়নি। সেজন্য এক বছরের বেশি সময় ধরে পরীক্ষার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন।

পরিবারের তরফে জানানো হয়েছে, রাতে খাওয়ার সময় স্বাভাবিক ছিলেন জ্যোতি। তারপর নিজের ঘরে চলে গিয়েছিলেন। সেখানেই রাতে পড়াশোনা করতেন। কিন্তু শনিবার সকালে তাঁর কোনও সাড়াশব্দ পাওয়া যানি। দরজায় ধাক্কা দিয়েও কোনও লাভ নেই। ফোনও বেজে যায়। তারপর দরজা ভেঙে ঘরে ঢুকে জ্যোতির নিথর দেহ উদ্ধার করা হয়। পাওয়া যায় একটি চিঠি এবং ভিডিয়ো। তাতে পরীক্ষা নিয়ে তাঁর মনে যে ভয় কাজ করছিল এবং পরিবারের প্রত্যাশা পূরণ করতে পারবেন কিনা, তা নিয়ে মনে ক্রমশ ভয় গ্রাস করছিল বলে জ্যোতির চিঠিতে উল্লেখ করা আছে।

মেয়ের আত্মহত্যার ঘটনায় একেবারে ভেঙে পড়েছেন বাবা-মা। একইসঙ্গে হতবাকও তাঁরা। বাবা বলেন, ‘ও পড়াশোনায় ভালো ছিল। ৫৫০-এর বেশি পেত। তবে ও অবসাদে ভুগত। রাতে আমাদের সঙ্গে ভালোভাবেই কথা বলেছিল। সকালে বুঝতে পারলাম, এরকম হয়েছে।’

বন্ধ করুন